জয়নগরে দুধে ভেজাল মেশানোর ঘটনা সামনে আসায় নড়েচড়ে বসল পুলিশ

Milk
প্রতীকী ছবি
উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়

জয়নগর: দুধে রাসায়নিক মিশিয়ে মিষ্টির দোকানে সরবরাহের ঘটনা সামনে চলে আসায় বিপাকে মিষ্টির ব্যবসায়ীরা। ঘটনাটি ঘটেছে জয়নগর থানা এলাকায়।

ঘটনায় প্রকাশ, দুধে ভেজাল মেশানোর অভিযোগে কয়েকদিন আগে গোচারণ-ঢোষা রোডের চাতরা মোড় থেকে চার জন দুধ ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে জয়নগর থানার পুলিশ। সোনারপুর থানা এলাকার বাসিন্দা ওই চারজন দমদম এলাকার একটি খাটাল থেকে দুধ এনে ঢোষা এলাকার কয়েকটি মিষ্টির দোকানে সরবরাহ করত।

এই এলাকার মিষ্টির দোকানগুলোর সঙ্গে কথা বলে জানা গেল, মূলত এই দুধ থেকে ছানা হতো। প্রায় এক বছর ধরে ওই দলটি এই এলাকায় দুধ সরবরাহ করছিল। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই দলটি খাটাল থেকে দুধ নিয়ে চলে আসত জয়নগরের দিকে। তার পর রাস্তার ধারের কোনো নির্জন জায়গা দেখে দুধে জল ও বিশেষ ধরনের এক পাউডার মিশিয়ে তা বাড়িয়ে দিত অনেকটা। এ ভাবে কখনো তিনগুণ, চারগুণ করে নেওয়া হতো দুধের পরিমাণ। তার পর সেই দুধ থেকে তৈরি হতো ছানা। আর সেখানেও মেশানো হতো এক ধরনের রাসায়নিক পাউডার।

তদন্তকারী পুলিশ অফিসাররা জানান, স্বাভাবিকের চেয়ে দ্রুত ছানা কাটানোর জন্যেই এই রাসায়নিকের ব্যবহার করা হতো। নিজেদের মিল্ক ভ্যান লেখা একটা গাড়ি ছিল দলটির। তবে কী মেশানো হতো তার খোঁজ করছে পুলিশ।

ধৃতদের কাছ থেকে পুলিশ বেশ কয়েকটা প্যাকেট এবং কৌটো ভর্তি পাউডার জাতীয় রাসায়নিক উদ্ধার করেছে। তবে সেগুলি কী আর তাতে ক্ষতি কতটা তা জানার জন্য পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় ভয়ে জয়নগর এলাকায় মিষ্টির দোকান থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন ক্রেতারা। তবে এই এলাকায় দুধে ভেজাল মেশানোর ঘটনা সামনে চলে আসায় নড়েচড়ে বসেছে পুলিশ। নজরদারি চালাচ্ছে এলাকায়। ফলে বিশেষ কিছু দুশ্চিন্তার নেই বলে জানানো হয়েছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.