হাতিদের প্রাণ বাঁচিয়ে পুরস্কৃত হলেন ১৪ রেলকর্মী

0

আলিপুরদুয়ার: এক বা দুই নয়, তাঁরা বাঁচিয়েছেন প্রায় ১৬০টি হাতির প্রাণ। সে কারণেই ১০জন ট্রেন চালক আর চারজন ট্র্যাকম্যানকে পুরস্কৃত করল রেল।

মঙ্গলবার বিকেলে আলিপুরদুয়ার ডিভিশনাল রেলওয়ে ম্যানেজারের অফিসে ওই ১৪ জনের হাতে মানপত্র ও এক হাজার টাকা করে পুরস্কার তুলে দেন ডিআরএম এসকে জৈন।

এই প্রসঙ্গে উত্তরপূর্ব সীমান্ত রেলের আলিপুরদুয়ার ডিভিশনের ডিভিশনাল কর্মাশিয়াল ম্যানেজার রমেশ মাহাত বলেন, “এ বছর জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত আলিপুরদুয়ার ও শিলিগুড়ি জংশনের মাঝে ডুয়ার্সের ভেতরে দিয়ে ট্রেন চলার সময়ে প্রায় ১৬০টি হাতির প্রাণ বাঁচানো সম্ভব হয়েছে। তারই পুরস্কার স্বরূপ এই ১৪ জনকে সম্মান জানানো হচ্ছে।”

শুধু হাতির প্রাণই নয়। ট্রেন ভরতি যাত্রীদের প্রাণও বাঁচানো সম্ভব হয়েছে। মাস খানেক আগে সেবকের তিস্তা ব্রিজের উপর আচমকাই দাঁড়িয়ে যায় গুয়াহাটি-তিরুঅনন্তপুরম এক্সপ্রেস। জানা যায়, এই যাত্রী চেন টেনে ট্রেনটিকে দাঁড় করিয়ে দিয়েছেন। ব্রিজের উপর ট্রেন দাঁড়িয়ে পড়ায় ফের চালু করা অসম্ভব হয়ে পড়ে । নিচে বইছে খরস্রোতা তিস্তা নদী ।

আরও পড়ুন ‘উত্তরপূর্বের চিন্তাকে দূর করবই’, রাজ্যসভায় বিল পেশ করে বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

জীবনের মায়া না করে ঝুঁকি নেন ট্র্যাকম্যান রাজু রায় ৷ ব্রিজের নিচ দিয়ে ঝুলে ঝুলে গিয়ে ওই ট্রেনের ষষ্ঠ বগীর মাঝখানে গিয়ে ট্রেনের ভ্যাকুয়াম ঠিক করে দেন। এর পরেই ট্রেনটি আবার চালু হয়। ওই ট্র্যাকম্যানকেও এ দিন পুরস্কৃত করা হয়েছে ।

তবে হাতিদের প্রাণ বাঁচানোর জন্য যখন রেলকর্মীদের পুরস্কৃত করা হয়, তার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই শিলিগুড়িতে মালগাড়ির ধাক্কায় প্রাণ হারাল দুটি হাতি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.