আলিপুরদুয়ার: উত্তরবঙ্গ সফরে এসে মঙ্গলবার হাসিমারায় এক গণ বিবাহের অনুষ্ঠানে অংশ নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যয়া। সেই অনুষ্ঠানে আদিবাসী মহিলাদের সঙ্গে নাচে পা মেলালেন মুখ্যমন্ত্রী। ধামসা মাদলের তালে কয়েক মুহূর্তের জন্যে আদিবাসী মহিলাদের সঙ্গে একাত্ম হয়ে গেলেন তিনি।

সুভাষিণী ময়দানে আদিবাসী সমাজের গণবিবাহ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে পাঁচ শতাধিক তরুণ-তরুণীর চারহাত এক হওয়ার সাক্ষী হলেন মমতা। রাজ্য পুলিশের তরফে আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি ও কোচবিহার জেলার ৫১০ জন ছেলে-মেয়ের গণবিবাহের একটি অনুষ্ঠান হয়।

এ দিনের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে আদিবাসী নবদম্পতিদের সঙ্গে কথা বলেন, তাঁদের আশীর্বাদ করেন মুখ্যমন্ত্রী। কয়েকজনের হাতে উপহারও তুলে দেন। ওই অনুষ্ঠানে পাত্রীদের হাতে রূপশ্রীর ২৫ হাজার টাকা দেন তিনি। এ ছাড়াও পোশাক, বিছানা-সহ অন্য উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন। একই সঙ্গে মঞ্চে উঠে ধামসা-মাদলের তালে পা মেলান মুখ্যমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, আলিপুরদুয়ারে তৃণমূলের কর্মীসভায় গণবিবাহ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “৫১০ জনের বিয়ের ব্যবস্থা করা খুব একটা সহজ ব্যাপার নয়। আপনার ওই অনুষ্ঠানে এলে খুশি হব”। এই অনুষ্ঠানে সাধারণের অংশগ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মতোই। বিশেষ করে নতুন জীবন শুরুর মুখে মুখ্যমন্ত্রী আশীর্বাদ পেয়ে আপ্লুত নব দম্পতিরা।

আদিবাসী উন্নয়নে রাজ্য সরকারের একগুচ্ছ প্রকল্পের উল্লেখ করে মমতা বলেন, “আমাদের বিশ্বাস আদিবাসী ঘরের মেয়েরে অলিম্পিক্সে সোনা জিতে আসবে। ঝাড়গ্রামে আর্চেরি অ্যাকাডেমি করেছি। কলকাতায় আদিবাসী ভবন তৈরি করা হয়েছে থাকার জন্য। কালম্পিঙে আদিবাসী ভবন বানিয়েছি। বিরসা মুণ্ডার জন্মদিন ছুটি দিয়েছি। মাঝি থান, জহর থান বানাচ্ছি”।

আরও পড়তে পারেন:

ভবানীপুর জোড়া খুনের তদন্তে নয়া মোড়, ধর্মতলা চত্বরে মিলল নিহতের মোবাইল

ফের মূল সুদের হার বাড়াল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক, আরও বাড়বে আপনার ঋণের ইএমআই

করোনার গতি ফের ঊর্ধ্বমুখী! ৪১ শতাংশ বেড়ে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত ৫২৩৩

ট্রানজিট রিমান্ডে আজই রোদ্দুর রায়কে আনা হচ্ছে কলকাতায়, তোলা হবে আদালতে

সেনার সর্বাধিনায়ক নিয়োগের মাপকাঠি বদলে দিল কেন্দ্র

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন