west Bengal

কলকাতা: আগামী ৫ ডিসেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির রথযাত্রা। গণতন্ত্র বাঁচাও-এর ডাক দিয়ে রাজ্যের তিনটি জায়গা থেকে রথযাত্রায় শামিল হবে বিজেপি। ওই তিন দিনই রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা-কর্মীরাও শামিল হবেন পৃথক যাত্রায়।

শুক্রবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে তৃণমূলের সাধারণ পরিষদের বর্ধিত অধিবেশনে অংশ নেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী ১৯ জানুয়ারি ব্রিগেড সমাবেশের প্রস্তুতির উদ্দেশে আয়োজিত ওই অধিবেশনে দলের সাংসদ, বিধায়ক, পুর ও পঞ্চায়েত প্রতিনিধি-সহ জেলা নেতৃত্বের উপস্থিতিতে মমতা বলেন, “ওটা রথযাত্রা নয়, ওটা রাবণ যাত্রা৷”

তিনি দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে নির্দেশ দেন , রথযাত্রার পরের দিন ওই একই সময়ে একই রাস্তা দিয়ে মিছিল করবে তৃণমূল কংগ্রেস৷ তিনি ওই কর্মসূচির নাম দেন ‘পবিত্র যাত্রা, শান্তি যাত্রা, একতা যাত্রা’৷

ইতি মধ্যেই বিজেপির রথযাত্রার বিরোধিতায় বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়ে ফেলেছে সিপিএম। আগামী মাসেই মোট ৩টি পদযাত্রার আয়োজন করবে সিপিএম। প্রথমটি ২৮ নভেম্বর সিঙ্গুর থেকে শুরু করে ৩০ নভেম্বর বা ১ ডিসেম্বর পৌঁছাবে কলকাতায়। নদিয়া-মুর্শিদাবাদের পদযাত্রা শেষ হবে পলাশিতে এবং উত্তরবঙ্গে তিস্তা নদীর গতিপথ ধরে চলা পদযাত্রা শেষ হবে কোচবিহারে। তবে সেগুলির দিনক্ষণ এখনও স্থির হয়নি।

অবশ্য, বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা এ দিন সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, তৃণমূলের পবিত্র যাত্রা আসলে শ্মশান যাত্রা

কংগ্রেসের যাত্রা নয়, অভিযান

পিছিয়ে নেই কংগ্রেসও। নামে যাত্রা না থাকলেও এ মাসের শেষের দিকে জনসম্পর্ক অভিযান-এ নামছে প্রদেশ কংগ্রেস। প্রদেশ কংগ্রেস সূত্রে খবর, সারা রাজ্য জুড়েই এই ‘জন সম্পর্ক অভিযান’ কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে। যা ইতিমধ্যে দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের উদ্যোগে অন্যান্য রাজগুলিতে শুরু হয়ে গিয়েছে।

হাতে সময় রাখুন। তার আগে বাছুন দেখবেন কোন কোন যাত্রা!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here