minor

কলকাতা: একই দিনে শহরে ধর্ষণ ও শ্লীলতাহানির দু’টি অভিযোগ। কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ আর শ্লীলতাহানি মার্কিন ডেপুটি কনসাল জেনারেলকে। দু’টি ক্ষেত্রেই অভিযুক্তদের গ্রেফতার করেছে কলকাতা পুলিশ। ধৃত দু’ জনেই কলেজছাত্র।

শহরে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছে এক কলেজছাত্র। আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন নির্যাতিতা ছাত্রী। ধৃতের নাম শশীরঞ্জন রায়। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, ১৯ বছরের ওই ছাত্রীকে নির্জন বাড়িতে ডেকে নিয়ে গিয়ে জোর করে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করে সে। নির্যাতিতার যৌনাঙ্গ দিয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। তাঁকে বাঁশদ্রোনী একটি নার্সিংহোম নিয়ে যাওয়া হয়। মেয়েটির বাড়ি হাওড়ার সালকিয়াতে। বাঁশদ্রোনী এলাকায় দাদু ও ঠাকুমার কাছে থাকেন। অভিযুক্তকে শুক্রবার আলিপুর এসিজেএম আদালতে তোলা হলে তাকে ১৮ এপ্রিল তারিখ পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি।

শহরে শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছেন মার্কিন মহিলা ডেপুটি কনসাল জেনারেল। ওই মহিলার অভিযোগের ভিত্তিতে শেকসপিয়র সরণি থানার পুলিশ রোহিত আগরওয়াল নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনাটি ঘটে ১১ তারিখ রাতে। মহিলা হেঁটে বাড়ি ফিরছিলেন ব্রড স্ট্রিট দিয়ে। সেই সময় অভিযুক্ত তাঁর শ্লীলতাহানি করে অভিযোগ। রোহিতের বাড়ি পোস্তা এলাকায়। সে ভবানীপুর এডুকেশন সোসাইটির ছাত্র। শুক্রবার ব্যাঙ্কশাল আদালতে তাকে তোলা হলে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারপতি। তদন্তকারীরাদের পক্ষ থেকে আদালতে টি আই প্যারেড ও নির্যাতিতার গোপন জবানবন্দির আবেদন জানানো হয়। তা মঞ্জুর করেছেন বিচারপতি।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন