Jhargram
Samir mahat
সমীর মাহাত

ঝাড়গ্রাম: এ বার একাধিক দাবিতে সরব হল জঙ্গল মহলের মাওবাদী সন্ত্রাসে শহিদ ও নিখোঁজ পরিবারের সদস্যরা।মঙ্গলবার “শহিদ ও নিখোঁজ পরিবারের মঞ্চ”র ব্যানারে কয়েক’শ সদস্য পথসভা করে প্রশাসনের কাছে দাবি দাওয়া জানায়। “মাওবাদী হঠাও”, সিবিআই তদন্তের দাবিও প্রচারে উঠে এসেছে।

মঞ্চের অন্যতম দাবি গুলি হল, কেন্দ্র সরকারের পক্ষে ১০ লক্ষ ও রাজ্য সরকারের পক্ষে পাঁচ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। শহিদ পরিবারগুলির প্রত্যেক পরিবারের এক জনকে সরকারি চাকরি দিতে হবে। কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার কর্তৃক কৃষক ও ক্ষেতমজুর পরিবারের ব্যঙ্কের কৃষিঋণ মুকুব করতে হবে। মাওবাদী আক্রমণে অক্ষম ও প্রতিবন্ধীদের সরকারি সাহায্য দিতে হবে। মাওবাদী আক্রমণে ক্ষতিগ্রস্তদের  স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের আওতায় আনতে হবে। ঘরছাড়া পরিবারগুলিকে পুনর্বাসন দিতে হবে।শহিদ পরিবারের বিধবা ভাতা চালু করতে হবে। ছেলে-মেয়েদের পড়াশোনায় সরকারি সাহায্য ও নিখোঁজ ব্যক্তিদের সরকারি ভাবে মৃত ঘোষণা করতে হবে।

Jhargram-2

উল্লেখ্য, বিরোধী শিবির বহু আগে থেকে অভিযোগ তুলে আসছে, যারা মাওবাদীদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে সন্ত্রাস করল, সেই অভিযুক্তদের সরকার পুলিশে চাকরি দিল, আর শহিদ ও নিখোঁজ পরিবারগুলির দিকে ফিরেও তাকাল না। টানা ৪-৫ বছরে মাওবাদী সন্ত্রাসে প্রায় সাড়ে তিন’শর বেশি খুন হয়েছে জঙ্গল মহলে, যাঁদের বেশির ভাগই নিচু তলার ছা-পোষা সিপিএম কর্মী। নিখোঁজ রয়েছেন বহু। অসহায় অবস্থায় দল যে পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে, তাও নয়।

jhargram-3

প্রতিক্ষার প্রহর গুনতে গুনতে পঞ্চায়েত নির্বাচন পার হয়। শাসক দলের বিরূপ ফল হয় ঝাড়গ্রাম এলাকায়। অবশেষে আমলা ,পুলিশ, মন্ত্রিত্বে রদবদল ঘটিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজ হাতে ঝাড়গ্রামের দায়িত্ব নেন। অবশ্য দেশের আর পাঁচটি মাওবাদী অধ্যুষিত রাজ্যের চেয়ে এ রাজ্য তা দমনের ক্ষেত্রে তিনি কৃতিত্ব অর্জন করেছেন। পাশাপাশি, কয়েক দিন আগে ঝাড়খণ্ড বাংলা সীমান্তে পুলিশ-মাওবাদী লড়াইয়ের খবর সংবাদে উঠে এসেছে। এমনকি সীমানা এলাকা সিল করেছে পুলিশ। সাধারণের দাবি ও অভিযোগকে শিখণ্ডি খাড়া করে যাতে কেউ ফের জঙ্গল মহলে অশান্তি পাকাতে না পারে, সে দিকে সতর্ক রয়েছে পুলিশ ও প্রশাসন। মঞ্চের এই দাবি-দাওয়া খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে প্রশাসন সুত্রে জানা গিয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here