খবরঅনলাইন ডেস্ক: খাসি ছাত্র সংগঠনের ঘোষণা, মেঘালয়ের সব বাঙালিই বাংলাদেশি। এর ফলে পুজোর ঠিক মুখেই নতুন করে উত্তপ্ত হতে শুরু করেছে মেঘালয় (Meghalaya)।

ঘটনার সূত্রপাত গত ফেব্রুয়ারিতে মেঘালয়ের ইছামতীতে একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে। সিএএ (CAA) বিরোধী আন্দোলনে সময় ফেব্রুয়ারিতে স্থানীয় গ্রামবাসীদের সঙ্গে হাতাহাতিতে এক খাসি ট্যাক্সিচালকের মৃত্যু হয়। তার জেরে স্থানীয় বাঙালিদের ভয়ে গ্রামছাড়া হতে হয়েছিল বলে অভিযোগ।

Loading videos...

সম্প্রতি ফের অভিযোগ ওঠে ইছামতীর পুরুষদের এখনও গ্রামে ফিরতে দেওয়া, ব্যবসা করতে দেওয়া হচ্ছে না। গ্রামে থাকা মহিলা-শিশুরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। এ নিয়ে জাতীয় মহিলা কমিশন রাজ্যের কাছে রিপোর্ট তলব করে।

কিন্তু তদন্তে ও স্থানীয় গ্রামবাসীদের বক্তব্যে নির্যাতনের কথা প্রমাণিত হয়নি। বিষয়টি নিয়ে অসমের বরাক উপত্যকার আমরা বাঙালি সংগঠন এবং যুব কংগ্রেস আন্দোলনে নেমেছে। সর্বভারতীয় মহিলা কংগ্রেস সভাপতি সুস্মিতা দেবও মেঘালয়ের বাঙালি নিগ্রহ নিয়ে মুখ খোলেন৷ নালিশ জানান প্রধানমন্ত্রীর কাছে। 

মঙ্গলবার নাগরিক অধিকার রক্ষা কমিটি ও আমরা বাঙালি অসম-মেঘালয় সীমানায় বিক্ষোভ দেখায়৷ কাছাড় জেলার মালিডহরে গিয়ে শতাধিক মানুষ মেঘালয় সরকারের কাছে বঙ্গভাষীদের নিরাপত্তা চেয়ে স্লোগান দেয়৷ কাটিগড়ায় ধরনা দেন কংগ্রেসের সমর্থকরা।

বাঙালি সংগঠনের প্রতিনিধিরা মেঘালয়ের রাজ্যপালের কাছে স্মারকলিপি দিয়ে অভিযোগ করেন, বাঙালিদের বিরুদ্ধে পুলিশ, বিচারব্যবস্থা, প্রশাসন, ছাত্র সংগঠন, জঙ্গি- সকলেই একজোট হয়েছে।

এর পরেই, আজ মেঘালয়ের সব বাঙালিদের বাংলাদেশি বলে পোস্টার সাঁটে কেএসইউ। কোথাও লেখা হয়, ‘বাংলাদেশিরা মেঘালয়, ত্রিপুরা, অসম ও মিজোরামে অত্যাচার বন্ধ কর।’ সুস্মিতা দেবকেও মেঘালয়ের ব্যাপারে নাক না-গলাতে সতর্ক করা হয়।

ঘটনাটি নিয়ে মেঘালয় সরকার যে চাপে পড়েছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এমনিতেও মেঘালয়ে বাঙালি বিরোধীতা নতুন কোনো ঘটনা নয়। তবে রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হয়, সাম্প্রদায়িক বা ভাষিক বিভেদ কখনওই কাম্য নয়।

মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমার বক্তব্য, “পরিস্থিতি যাতে খারাপ না-হয় তাই আমরা খাসি ও বাঙালি সংগঠনগুলির সঙ্গে কথা বলছি। কেন্দ্রের সঙ্গেও কথা বলা হচ্ছে।”

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নেওয়া এক স্বেচ্ছাসেবকের মৃত্যু ব্রাজিলে, তবে বন্ধ হচ্ছে না টিকার ট্রায়াল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.