আসানসোল: শনিবার এখানকার একটি বিশেষ সিবিআই আদালতে খারজি হয়ে গেল তৃণমূল কংগ্রেস নেতা অনুব্রত মণ্ডলের জামিনের আবেদন। আপাতত আরও চার দিন সিবিআই হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

গত ১১ আগস্ট কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার হাতে গ্রেফতার হন বীরভূমে তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত। এ দিন ১০ দিনের সিবিআই হেফাজত শেষে আদালতে তোলা হয় গোরু পাচার মামলায় গ্রেফতার তৃণমূল নেতাকে।

অনুব্রতকে একজন “খুব ক্ষমতাশালী এবং অত্যন্ত প্রভাবশালী ব্যক্তি” হিসাবে বর্ণনা করে, তাঁর হেফাজতের মেয়াদ বাড়ানোর জন্য আবেদন করেন সিবিআই আইনজীবী। তিনি বলেন, “জামিন দিলে সাক্ষীদের প্রভাবিত করতে এবং প্রমাণ বিকৃত করতে পারেন অনুব্রত”।

অন্য দিকে, এ দিন শুনানির শুরুতেই অনুব্রতের জামিনের আবেদন করেন তাঁর আইনজীবী। তার বিরোধিতা করেন সিবিআইয়ের কৌঁসুলি। অনুব্রতর শরীর ভালো নেই বলে তাঁকে জামিন দেওয়া হোক, আদালতে জানিয়েছিলেন তাঁর আইনজীবীরা। যদিও সেই আবেদন খারিজ হয়ে যায়। প্রভাবশালী তত্ত্বে সিলমোহর দিয়ে ফের সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দিলেন আসানসোলের বিশেষ সিবিআই আদালতের বিচারক রাজেশ চক্রবর্তী।

উল্লেখযোগ্য ভাবে, এ দিন আদালতে অনুব্রত বলেন, “শরীর অসুস্থ, জ্বর এবং কাশি হয়েছে”। তা শুনেই বিচারক বলেন, “চিকিৎসকরা আপনাকে দেখছে তো”? জবাবে বীরভূমের দাপুটে নেতা বলেন, “হ্যাঁ, ওষুধ খাচ্ছি”। বিচারক সেই সময় বলেন, “কোনো অসুবিধা হলে চিকিৎসকদের বলবেন”।

আরও পড়তে পারেন:

আগামী ২-৩ দিনের মধ্যেই গ্রেফতার হবেন মণীশ সিসোদিয়া! কী কারণে, সেটাই জানালেন দিল্লির উপ-মুখ্যমন্ত্রী

বাংলার ফুটবলের আর-এক কিংবদন্তি বদ্রু ব্যানার্জি প্রয়াত, শোকস্তব্ধ ফুটবলমহল

শেখ হাসিনা সরকারকে টিকিয়ে রাখার অনুরোধ ভারতকে, মন্ত্রীর মন্তব্যে তোলপাড় বাংলাদেশ

শ্রীলঙ্কার পর অর্থনৈতিক সংকটের মুখে ভুটান! ঝুঁকি এড়াতে জারি নিষেধাজ্ঞা

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন