বীরভূম: গোরুপাচার মামলায় অনুব্রত মণ্ডলকে (Anubrata Mondal) ফের তলব করল সিবিআই (CBI)। বুধবার সকাল ১১টায় নিজাম প্যালেসে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতিকে। সংশ্লিষ্ট মামলার তদন্তে এই নিয়ে ১০ বার অনুব্রতকে তলব করল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা।

মঙ্গলবার বোলপুরে অনুব্রতর বাড়িতে গিয়ে নোটিশ দিয়ে আসেন সিবিআই আধিকারিকরা। কিন্তু তার পর পরই তাঁর বাড়িতে, পৌঁছে যান বোলপুরের চিকিৎসক।

গত সোমবারেও অনুব্রতকে তলব করেছিল সিবিআই। কিন্তু শারীরিক অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে হাজিরা এড়ান বীরভূমের এই দাপুটে নেতা। ওই দিন প্রথমে এসএসকেএম হাসপাতালে যান। সেখানে পরীক্ষার পর চিকিৎসকরা জানিয়ে দেন, হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার প্রয়োজন নেই। সেখান থেকে সটান চিনার পার্ক এলাকার বাড়িতে আসেন অনুব্রত। তার পর বোলপুরের বাড়িতে ফেরেন।

এ দিন সিবিআই-এর হাজিরা নোটিশ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই অনুব্রতর বাড়িতে পৌঁছোন বোলপুর মহকুমা হাসপাতালের চিকিৎসক চন্দ্রনাথ অধিকারী। তিনি সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানান, অনুব্রতর পুরনো ফিশচুলার সমস্যা রয়েছে। ওর মধুমেহর সমস্যা থাকায় ইনফেকশন ছড়িয়েছে বেশি। দিতে হয়েছে কড়া অ্যান্টিবায়োটিকের ডোজ। সেটি বর্তমানে বেশি সংক্রমিত হয়েছে। সেই সঙ্গে তিনি সিওপিডির রোগী। আছে হাইপারটেনশনের সমস্যাও। তাই ফিশচুলা অপারেশন এখন সম্ভব নয়। দরকার কনজারবেটিভ ট্রিটমেন্ট।

শুধু তাই নয়, চিকিৎসক আরও জানান, শ্বাসকষ্টও রয়েছে অনুব্রতর। ডিপ্রেশনের সমস্যাতেও ভুগছেন তিনি। তাই ওই চিকিৎসকের ভাষায়, রাজনৈতিক ভাবনা থেকে নয়, বরং মানবিক দিক থেকে বিষয়টি বিচার করে তাঁকে বেড রেস্টে থাকতে দেওয়া দরকার। অনুব্রতকে হাসপাতালে ভর্তি করার দরকার না থাকলেও, তাঁর বেড রেস্ট প্রয়োজন।

আরও পড়তে পারেন:

যৌনকর্মীদের সমস্ত মৌলিক অধিকার রয়েছে, কিন্তু আইন লঙ্ঘনের জন্য বিশেষ সুবিধা নয়: দিল্লি হাইকোর্ট

যৌনকর্মীদের রেশন, ভোটার আইডি, আধার দেওয়ার নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

মোদী জমানায় টানা সাত বার, নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ হয়ে গেল সংসদের অধিবেশন

জিতলে হিমাচলে ‘লক্ষ্মীর ভান্ডার’, ঘোষণা করল কংগ্রেস

বিধায়কদের বৈঠক ডাকলেন নীতীশ, আজই কি বিজপির সঙ্গত্যাগ করার সরকারি ঘোষণা?

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন