‘আমি যদি বিজেপিতে যাই তা হলে…’, সিবিআই তলব নিয়ে মুখ খুললেন অনুব্রত মণ্ডল

0
অনুব্রত মণ্ডল। প্রতীকী ছবি: টেলিগ্রাফ ইন্ডিয়া থেকে

বোলপুর: ভোট পরবর্তী হিংসা মামলা। গরুপাচার মামলা। একাধিক মামলায় বার বার সিবিআই তলব। হাজিরাও দিয়েছেন। তবে এই সব মামলায় সিবিআই যে তাঁকে মিথ্যাই ডাকছে, মঙ্গলবার তেমনটাই দাবি করলেন বীরভূমের জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal)।

কখনও ভোট পরবর্তী হিংসা আবার কখনও গরুপাচার মামলায় সিবিআইয়ের ডাকাডাকিকে কলকাতা-বোলপুর যাতায়াত লেগেই রয়েছে। সে ভাবে “রাজনৈতিক বাণী”ও আর শোনা যাচ্ছে। তবে এ দিন বোলপুরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে পুরনো মেজাজে দেখা গেল অনুব্রতকে। তাঁর দাবি, “আমি চুরিও করিনি। ডাকাতিও করিনি। আমি মহাদেবের ভক্ত। ওরা যেটা বলে ডাকছে সেটা মিথ্যা। ওরা যেটা বলে ডাকছে, ফলস ডাকছে”।

এ দিন বোলপুরে দলীয় কার্যালয়ে বসে বিজেপিকে নিশানা করে অনুব্রত বলেন, “এরা তো যা কিছু করছে, সবই লুকিয়ে। রাজনীতি করছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ওদের তো লোকজনই নেই। নোংরামি করছে। আরে তৃণমূলের লোক নিয়ে কি আর বিজেপি করা যায়”?

এ প্রসঙ্গেই নিজেকে উদাহরণ হিসেবে তুলে ধরে দাপুটে নেতা বলেন, “আমি যদি বিজেপিতে যাই তা হলে তৃণমূলের লোক তো আরও সক্রিয় হবে। তারা তো তখন বলবে, ‘বেইমান কেষ্ট মণ্ডল চলে গেল। দে, ভোট দে তৃণমূলকে।’ সংগঠনের লোক তৈরি করে রাজনীতি করতে হবে। আমি বাম, কংগ্রেসের সঙ্গে লড়াই করে উঠে এসেছি”।

অনুব্রত এ দিন জানান, তাঁর শ্বাসের কিছুটা সমস্যা রয়েছে। যদিও আসছে ২১ জুলাইয়ের সভাতে থাকবেন তিনি। তার পরে দুর্গাপুজো মিটলেই পঞ্চায়েত ভোটের প্রচারে নেমে পড়বেন। নিজের মতো করেই প্রতিটা ব্লকে ব্লকে সভা-জনসভা করবেন। তাঁর কথায়, “পুজোর পর সব ব্লকে সভা করব”।

আরও পড়তে পারেন:

সর্বকালের সর্বোচ্চ পতন টাকার দামে, আশংকার কথা শোনাচ্ছেন অর্থনীতিবিদরা

কুণাল ঘোষের সঙ্গে সাক্ষাৎ নিয়ে দলবদলের জল্পনা, প্রতিক্রিয়া রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ের

বৈঠকে যোগ দিতে কলকাতায় আসছেন রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী দ্রৌপদী মুর্মু, তালিকায় নেই ২ বিজেপি বিধায়ক

দলবদল করছেন রূপা গঙ্গোপাধ্যায়? কুণাল ঘোষের সঙ্গে বৈঠক ঘিরে জোর জল্পনা

স্পাইসজেটের বিমানে ফের গণ্ডগোল! এ বার জরুরি অবতরণ করাতে হল করাচিতে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন