অপর্ণা সেনকে আক্রমণ করতে গিয়ে রুচিবোধের সীমা ছাড়ালেন অনুপম হাজরা

0

ওয়েবডেস্ক: শুক্রবার তেলঙ্গানায় ধর্ষণে অভিযুক্ত চারজনকে যে ভাবে এনকাউন্টারে মারা হয়েছে সে নিয়ে দেশ জুড়ে বাহবার পাশাপাশি বিরুদ্ধ মতও রয়েছে। অনেকেই মনে করছেন, এনকাউন্টারে কাউকে মারলে সেটা সঠিক বিচারপদ্ধতি নয়।

অপর্ণা সেনও এমনই একজন। তিনিও মনে করেন এনকাউন্টার কোনো সমাধানসূত্র নয়। কিন্তু অপর্ণা সেনের এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তাঁকে আক্রমণ করতে গিয়ে রুচিবোধের সমস্ত সীমা ছাড়ালেন বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা।

ফেসবুকে অনুপমের প্রশ্ন হায়দরাবাদে ধর্ষিতার জায়গায় যদি অপর্ণা সেনের মেয়ে থাকত, তা হলেও কি তিনি এই এনকাউন্টারের বিরোধিতা করতেন? অনুপমের ভাষায়, “জানতে খুব ইচ্ছে করছে, হায়দরাবাদ গণধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডে, নির্যাতিতার নাম যদি কঙ্কণা সেন শর্মা হতো, তাহলে কি শ্রীমতি অপর্ণা সেনের পুলিশ এনকাউন্টার সম্পর্কে একই প্রতিক্রিয়া থাকত?”

উল্লেখ্য, শুক্রবারের এনকাউন্টার প্রসঙ্গে অপর্ণা সেন বলেন, এ ভাবে পুলিশ আইন হাতে তুলে নিতে পারে না। বিচারব্যবস্থার বাইরে গিয়ে কাউকে শাস্তি দেওয়া যায় না।

আরও পড়ুন ‘ওদেরও গুলি করে মারো’, কাতর আবেদন উন্নাওয়ের মৃতার বাবার

তবে অনুপমের কথায় একটা কথা পরিষ্কার, মুখে আমরা যতই ধর্ষণের বিরোধিতা করি না কেন, আমাদের সমাজব্যবস্থার মধ্যেই ‘ধর্ষণ’ শব্দটা ওতপ্রোত ভাবে ঢুকে গিয়েছে। ফলে স্বাভাবিক ভাবেই কাউকে আক্রমণ করার জন্যও ‘ধর্ষণ’ শব্দটি ব্যবহার করতেও পিছপা হচ্ছন না এক শ্রেণির মানুষ।

------------------------------------------------
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.