ব্যারাকপুর: গত ১৯ জুনের পর নিরবিচ্ছন্ন সংঘর্ষে উত্তপ্ত ভাটপাড়া, কাঁকিনাড়া, জগদ্দল এলাকার মানুষ স্বাভাবিক ছন্দে ফেরার চেষ্টা করছেন বলে জানাল মানবাধিকার সংগঠন এপিডিআর। রবিবার সকালে সংগঠনের একটি প্রতিনিধিদল বিস্তীর্ণ এলাকা পরিদর্শন করে তথ্যানুসন্ধান করে। এলাকার মানুষের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের মনে জুড়ে বসা আতঙ্কের আবহ কাটাতে সাহস জোগায়।

এ দিন সকাল ১০টায় কাঁকিনাড়া স্টেশনে একত্রিত হন সংগঠনের ২৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল। সেখান থেকে দু’টি দলে বিভক্ত হয়ে ভাটপাড়া, কাঁকিনাড়া এবং জগদ্দলের বিভিন্ন এলাকার বাড়ি বাড়ি ঘুরে কথা বলেন তাঁরা।

গত ১৯ জুন থেকে ঘটে চলা সংঘর্ষের ঘটনায় নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন এপিডিআরের প্রতিনিধিরা। সরকারি ভাবে নিহতদের পরিবারের জন্য আর্থিক ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করা হয়েছিল, সে বিষয়েও বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করেন তাঁরা। নিহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, আংশিক ক্ষতিপূরণ পাওয়া গিয়েছে। বাকিটা কিছুদিনের মধ্যেই পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে প্রশাসন।

ওই সময়ের সংঘর্ষের ঘটনায় ভাঙচুর চলে সংলগ্ন জুট মিলের কোয়াটারেও। ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলি মেরামতে আশ্বাস দিয়েছেন মিল কর্তৃপক্ষ। এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে পুলিশ প্রশাসনের বৈঠকে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলি মেরামতের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান এপিডিআরের প্রতিনিধিরা।

তাঁরা বলেন, এলাকায় শান্তি ফিরছে। তবে উত্তেজনার রেশ রয়ে গিয়েছে। এক টানা এত বড়ো একটা সংঘর্ষ ঘটে গিয়েছে, তার আতঙ্ক চেপে বসেছে এলাকার মানুষের মনে। তা কাটাতে আরও কয়েক দিন সময় লাগবে। স্থানীয় মানুষের একাংশ জানিয়েছেন, তাঁরা এখনও কাজে যেতে ভয় পাচ্ছেন। তবে পুলিশ প্রশাসন-সহ বিভিন্ন সংগঠনের দফায় দফায় এলাকা পরিদর্শন তাঁদের মনে সাহস জোগাচ্ছে।

এপিডিআরের প্রতিনিধিরা এ দিন ভাটপাড়ার থানার আইসির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন