কলকাতা: শুক্রবার বিকালে ভাঙড়ের নতুনহাটে জমি জীবিকা রক্ষা কমিটির সমর্থক খুনে পুলিশ গ্রেফতার করল তৃণমূল নেতা আরাবুল ইসলামকে।

অভিযোগ, স্থানীয় নির্দল প্রার্থীর সমর্থনে এ দিন একটি মিছিল বের হয়। ওই মিছিল নতুনহাটের কাছে যেতেই আরাবুল ঘনিষ্ট দুষ্কৃতীরা সেখানে হাজির হয়। এলোপাথাড়ি গুলি ও বোমা ছুড়তে শুরু করে দুষ্কৃতীরা। গুলি লাগে মিছিলে অংশগ্রহণকারী বছর ২৫-এর যুবক হাফিজুল মোল্লার মুখে। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও তৎক্ষণাৎ তাঁর মৃত্যু ঘটে।

আগামী ১৪ মে পঞ্চায়েত নির্বাচনের কথা মাথায় রেখেই রাজ্য প্রশাসন উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার পুলিশকে ঘটনাস্থলে পৌঁছে তল্লাশি অভিযান চালানো এবং আরাবুলকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেয়। ঘটনার পাঁচ ঘণ্টার মধ্যেই বারুইপুর এসপির নেতৃত্বে পুলিশ বাহিনী আরাবুল ও তাঁর এক সঙ্গীকে গ্রেফতার করে।

পুলিশ সূত্রে খবর, নিজের বাড়ির পিছনে একটি জঙ্গলে সঙ্গীদের নিয়ে লুকিয়ে ছিলেন আরাবুল। তাঁর মোবাইল ফোনের টাওয়ার লোকেশন করেই পুলিশ তাঁর নাগালে পৌঁছে যায়।

আরও পড়ুন: ভাঙড়ে গুলিতে মৃত্যু নির্দল প্রার্থীর সমর্থকের, আরাবুলকে গ্রেফতারের নির্দেশ নবান্নের!

যদিও স্থানীয় বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতাদের দাবি, ভোটের আগে সাধারণ মানুষের চোখে ধুলো দিতেই আরাবুলের গ্রেফতারিতে এতটা সক্রিয়তা দেখাল রাজ্য পুলিশ। কারণ এর আগেও আরাবুলকে পুলিশ গ্রেফতার করেছিল। অভিযোগের গুরুত্ব নেই, এমন কিছু কারণ দেখিয়ে তিনি ছাড়া পেয়ে যান। এ ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হবে না বলে তাঁদের অনুমান।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here