কলকাতা: অ্যাডভেঞ্চার ট্যুরিজমের জনপ্রিয়তা এখন খুবই বাড়ছে। সমুদ্রে গেলে স্কুবা ডাইভিং বা প্যারাগ্লাইডিং হোক অথবা পাহাড়ে গেলে ট্রেকিং হোক বা অন্য কিছু। অ্যাডভেঞ্চারের নানা দিক এখন আবিষ্কার করতে চাইছেন পর্যটক।

এই অ্যাডভেঞ্চার ট্যুরিজমের হরেক পসরা নিয়ে এ বার হাজির হল ট্যুরিজম ফেয়ার। শুক্রবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে শুরু হল তিন দিনের এই ভ্রমণমেলা। রাজ্যের ক্রেতাসুরক্ষা মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে এই মেলার উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ছিলেন কাঞ্চনজঙ্ঘা অভিযানে গিয়ে মৃত্যুকে সামনে থেকে দেখা পর্বতারোহী রমেশ রায়।

এ বার পর্বতারোহণে যে অন্ধকারাচ্ছন্ন সময় গেল, কথা প্রসঙ্গে সেটাই উঠে আসে। হিমালয়ে পর্বতারোহণে এত মৃত্যু কি কোনো ভাবে অনভিজ্ঞতার কারণে হচ্ছে? এই ব্যাপারে রমেশবাবু বলেন, “পুরোটা অনভিজ্ঞতার কারণে নয়। কারণ সেটা কারণ হলে দীপঙ্কর ঘোষের মতো একজনকে এ ভাবে হারাতে হত না। পাহাড়ে গেলে মৃত্যুর ঝুঁকি সব সময়েই থাকে। সেটা উপেক্ষা করেই যেতে হয়।”

আরও পড়ুন মুখ্যমন্ত্রীর পাশে দাঁড়িয়ে বিজেপির ওপর চাপ বাড়াতে কৌশলী সিদ্ধান্ত মোর্চার

এ বার এই ট্যুরিজম ফেয়ারে ফোকাল দেশ চিন। এ ছাড়াও এখানে অংশগ্রহণ করছে রাজস্থান, ছত্তীসগঢ়, গুজরাত প্রভৃতি রাজ্য পর্যটন সংস্থাও। ট্রেকিং-সহ অ্যাডভেঞ্চার ট্যুরিজমের যাবতীয় তথ্য এখানে পাওয়া যাবে। বিশেষ নজর কেড়েছে আন্দামান। জলক্রীড়ার হরেক পসরা নিয়ে হাজির হয়েছে তারা।

সাধারণ মানুষের মধ্যে অ্যাডভেঞ্চার সংক্রান্ত উৎসাহ আরও বাড়িয়ে তোলাই যে এই মেলার অন্যতম মূল উদ্দেশ্য, সে কথাই বলেন ট্যুরিজম ফেয়ার আয়োজনকারী সংস্থা ‘ব্লু আই ইন্ডিয়া’-এর কর্ণধার সুব্রত ভৌমিক।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন