প্রায় নয় মাস পর অবশেষে দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে ঢুকতে পারবে গাড়ি। মন্দিরের পাশে তাদের নিজস্ব রাস্তাটি গাড়ি চলাচলের জন্য খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেনাবাহিনী।   

দক্ষিণেশ্বরে স্কাইওয়াক তৈরির জন্য গত জানুয়ারি থেকে বন্ধ রয়েছে দক্ষিণেশ্বর বাসস্ট্যান্ড থেকে মন্দির সংযোগকারী প্রধান সড়ক, রানি রাসমণি রোড। এর ফলে অসুবিধায় পড়ছেন দর্শনার্থীরা। বাসস্ট্যান্ডের কাছে গাড়ি পার্ক করে ঘুরপথে হেঁটে তাঁদের মন্দিরে প্রবেশ করতে হচ্ছে। সেনাবাহিনীর এই সিদ্ধান্তের ফলে সেই সমস্যার সমাধান হল।

এই প্রসঙ্গে মঙ্গলবার মন্দির এলাকায় একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হয়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনার তন্ময় রায়চৌধুরী, কামারহাটি পুরসভার চেয়ারম্যান গোপাল সাহা, মন্দিরের কর্তৃপক্ষের আধিকারিকরা। বৈঠকে ভারতীয় সেনাবাহিনীর তরফ থেকে উপস্থিত ছিলেন কর্নেল বীরেন্দ্র সিংহ। বৈঠকে সেনাবাহিনীর সঙ্গে মন্দির কর্তৃপক্ষের মৌ স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তির ফলে যত দিন রাস্তা বন্ধ থাকবে ততদিন সাধারণ মানুষের  জন্য বিকল্প এই রাস্তাটি খোলা থাকবে।

বৈঠকের পরে ফিরহাদ হাকিম বলেন, “দীর্ঘদিন ধরে স্কাইওয়াকের কাজের জন্য মন্দিরের প্রধান সড়ক বন্ধ থাকায় সাধারণ মানুষ ও দর্শনার্থীদের খুব অসুবিধা হচ্ছিল। তাই পাশেই সেনাবাহিনীর নিজস্ব যে রাস্তা রয়েছে, সেটি খুলে দেওয়ার জন্য দফতরের পক্ষ থেকে বার বার চিঠি লিখেছিলাম। এ বিষয়ে সর্বসম্মতিতে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে সেটা খুবই ভালো বিষয়”।    

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here