kolkata temperature falls
প্রতীকী ছবি

কলকাতা: তামিলনাড়ু উপকূলে আছড়ে পড়ে আরও দক্ষিণ হয়ে কেরলের দিক দিয়ে আরব সাগরে সরে যাচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘গজ’। অন্য দিকে উত্তর ভারত থেকে বিদায় নিচ্ছে একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝাও। তা হলে কি এ বার পশ্চিমবঙ্গে শীত পড়বে?

না, শীত এখনও দূরেই রয়েছে রাজ্য থেকে, এমনই মনে করে কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর এবং বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা।

গত সপ্তাহের শুক্রবার থেকে পারদ নামা শুরু হয়েছিল দক্ষিণবঙ্গে। সে দিনই প্রথম কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমে গিয়েছিল ১৯ ডিগ্রিতে। প্রায় দিন পাঁচেক ১৯-এর আশেপাশে ঘোরাঘুরির পরে আবার পারদ বেড়েছে। শুক্রবার সকালে কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা উঠে গিয়েছে ২১.২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। শুধু কলকাতাই নয়, পশ্চিমাঞ্চলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রাও বাড়তে শুরু করেছে।

আরও পড়ুন বাপরে এত! গভীর নিম্নচাপের নিরিখে রেকর্ড করার পথে ২০১৮

শুক্রবার বাঁকুড়া এবং আসানসোলে পারদ উঠেছে ১৮ ডিগ্রিতে। গত কয়েক দিনে সেখানে ১৬-১৭ ডিগ্রি ছিল তাপমাত্রা। তবুও মন্দের ভালো পানাগড়, বোলপুর এবং পুরুলিয়ায় পারদ ১৫ ডিগ্রির আশেপাশে ঘোরাঘুরি করেছে। ফলে সেই অঞ্চলে শীত শীত অনুভূতি ভালোই টের পাওয়া যাচ্ছে।

গত কয়েক দিন ধরে উত্তর ভারতে হানা দিয়েছিল একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝা। এর প্রভাবে উত্তুরে হাওয়া বন্ধ হয়েছিল দক্ষিণবঙ্গের ওপরে। আবার অন্য দিকে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘গজ’ কিছুটা মেঘ ঢুকিয়েছিল দক্ষিণবঙ্গের বায়ুমণ্ডলে। এই দুইয়ের প্রভাবেই তাপমাত্রা ফের বাড়তে শুরু করে দক্ষিণবঙ্গে।

এখন তো ‘গজ’ সরে যাচ্ছে আর পশ্চিমী ঝঞ্ঝাও বিদায় নিয়েছে। তা হলে কেন তাপমাত্রা কমবে না রাজ্যে?

আরও পড়ুন উল্লেখযোগ্য ক্ষয়ক্ষতি সঙ্গে নিয়ে উপকূল তামিলনাড়ুতে আছড়ে পড়ল ঘূর্ণিঝড় গজ

ওয়েদার আল্টিমার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝা বিদায় নিলেও লাইনে আরও কয়েকটি ঝঞ্ঝা রয়েছে। তারা প্রত্যেকেই উত্তর ভারতে বৃষ্টি এবং তুষারপাত ঘটানোর ক্ষমতা রাখে। পশ্চিমী ঝঞ্ঝার আগমন মানে উত্তুরে হাওয়া বন্ধ হয়ে যাওয়া। অন্য দিকে উত্তর বঙ্গোপসাগরে একটি বিপরীত ঘূর্ণাবর্ত এবং উত্তরপূর্ব ভারতে একটি ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবে দক্ষিণবঙ্গের বায়ুমণ্ডলে জলীয় বাষ্প থাকবে। এর ফলে দিনের বেলায় কিছুটা গুমোট ভাবও থাকতে পারে। এই সব কারণের জন্যই আগামী এক সপ্তাহ দক্ষিণবঙ্গের তাপমাত্রার বিশেষ পতন দেখছেন না ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা। এই সময়ে কলকাতার পারদ বড়োজোর ১৮ ডিগ্রিতে নামতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

তবে ২৫-এ নভেম্বরের পরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রাও বড়োসড়ো পতনের আশা করছেন তিনি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here