শিলিগুড়ি: বিজেপি শিবিরে নাম লেখানোর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই দল ছাড়লেন শিলিগুড়ির দাপুটে সিপিএম নেতা তথা শহরের মেয়র অশোক ভট্টাচার্যের ভাইপো অর্কদীপ।

রবিবার সকালে দার্জিলিংয়ের সাংসদ সুরেন্দ্র সিংহ আহলুওয়ালিয়ার হাত থেকে পতাকা নিয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। কিন্তু কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ‘ভুল স্বীকার’ করলেন অর্কদীপ। এমনকী, গেরুয়া শিবিরে যোগ দেওয়ার কথাও অস্বীকার করেছেন তিনি।

রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বামেদের শক্তি কমে গেলেও অশোকবাবুর জন্যই শিলিগুড়িতে বামেরা এখনও যথেষ্ট শক্তিশালী। ২০১৫-তে তাঁর নেতৃত্বেই শিলিগুড়ি পুরসভা দখল করে সিপিএম। মেয়রের পাশাপাশি শিলিগুড়ির বিধায়কও তিনি। তাঁর ভাইপোর এ ভাবে বিজেপিতে যোগ দেওয়া নিয়ে হৈচৈ পড়ে যায় রাজ্য রাজনীতিতে।

আরও পড়ুন পুলওয়ামা কাণ্ডের অন্যতম চক্রি সংঘর্ষে নিহত?

দিন কয়েক আগেই আহলুওয়ালিয়া ও বিজেপির জেলা সভাপতি অভিজিৎ রায়চৌধুরীর সঙ্গে দেখা করেন অর্কদীপ। বেশ কয়েকবার বিজেপির পার্টি অফিসে গিয়েছেন তিনি। রবিবার শিলিগুড়ির বর্ধমানে রোডে একটি ভবনে বৈঠক ছিল পদ্মশিবিরের। সেই বৈঠকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগ দেন অর্কদীপ। তাঁর হাতে পতাকা তুলে দেন আহলুওয়ালিয়া। সাংবাদিক সম্মেলনে অর্কদীপ বলেন, একসময়ে তিনি বামপন্থী মনোভাবাপন্ন ছিলেন। কিন্তু, কেন্দ্রীয় সরকারের কাজকর্ম দেখে বিজেপির প্রতি আকৃষ্ট হয়েছেন।

এই চিঠি লিখেই ভুল স্বীকার করেছেন অর্কদীপ।

কিন্তু পরিস্থিতির নাটকীয় বদল ঘটে রবিবার রাতে। বিবৃতি দিয়ে ‘ভুল স্বীকার’ করে নেন অর্কদীপ। বলেন, চাকরি না পেয়ে হতাশ হয়ে পড়েছিলেন। তাই শিলিগুড়ির স্থানীয় বিজেপি নেতাদের কাছে তাঁকে নিয়ে গিয়েছিলেন বন্ধুরা। কিন্তু, গেরুয়াশিবিরে যোগ দেননি। এই ঘটনায় অশোকবাবুর দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছে গেরুয়া শিবির। জেঠুর চাপেই ভাইপোকে বিজেপি ছাড়তে হল, এমনই অভিযোগ বিজেপির।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here