অব্যাহত এটিএম ভোগান্তি, ব্যাঙ্ক পরিদর্শন করলেন মুখ্যমন্ত্রী

0

এটিএম খোলার দ্বিতীয় দিনেও ভোগান্তি অব্যাহত থাকল কলকাতার মানুষের। কারণ এখনও পর্যন্ত শহরের অধিকাংশ এটিএমেই টাকা নেই। যে সব এটিএমে টাকা আছে সেখানেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে টাকা ফুরিয়ে গিয়েছে। মানুষের এই ভোগান্তির মধ্যেই এ দিন এটিএম আর বিভিন্ন ব্যাঙ্ক পরিদর্শনে নামলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

শনিবারও শহরের বিভিন্ন ব্যাঙ্ক আর এটিএমে মানুষের দীর্ঘ লাইন চোখে পড়েছে। তবে ভোগান্তি কমানোর জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা গ্রাহকদের সঙ্গে কথা বলেছেন বিভিন্ন বেসরকারি ব্যাঙ্কের কর্মীরা। গ্রাহকদের অভিযোগ, কাজকর্ম ফেলে শুধুমাত্র টাকা তোলার জন্য দীর্ঘ লাইনে দাঁড়াতে হচ্ছে, আবার অনেক সময়ই সেই পরিশ্রম বিফলে যাচ্ছে।

atmlineআবার যাঁরা টাকা পেয়েছেন সমস্যা তাঁদেরও। কারণ ব্যাঙ্কগুলি গ্রাহকদের নতুন দু’হাজার টাকার নোট দিচ্ছে। এই নোটকে খুচরো করতে গিয়ে বিস্তর সমস্যার মুখে পড়তে হচ্ছে মানুষকে। ক্রেতা আর বিক্রেতা, দুজনের কাছেই প্রধান সমস্যা খুচরোর অভাব। এই খুচরোর অভাবের জন্য মার খাচ্ছে ব্যবসা। পেনশনের ক্ষেত্রেও সমস্যায় মানুষ। এর কারণ পোস্ট অফিসগুলি জানিয়েছে, শুধুমাত্র দু’হাজার নোট থাকায় আপাতত পেনশন দেওয়া সম্ভব হবে না। ব্যাঙ্কে ২০০০ টাকার নোট এসে পৌঁছলেও এটিএমগুলিতে এখনও তা আসেনি। শুধুমাত্র একশোর নোটেই এটিএমগুলি চলছে। এর ফলে খুব তাড়াতাড়িই এটিএম থেকে টাকা ফুরিয়ে যাচ্ছে। বিভিন্ন ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, আগামী অন্তত এক সপ্তাহ গ্রাহকদের এই ভোগান্তি পোহাতে হবে। তবে বয়স্ক নাগরিকদের যাতে দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে হয়রানির শিকার না হতে হয়, সেই জন্য বিশেষ ব্যবস্থা করেছে ব্যাঙ্কগুলি।

এ দিকে সাধারণ মানুষের ভোগান্তির জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের দিকে সরাসরি আঙুল তুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ব্যাঙ্ক আর এটিএম পরিদর্শনে গিয়ে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা গ্রাহকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। এর পাশাপাশি হাওয়ালা অপেরাটরদের খুঁজে বার করার দাবি জানান তিনি।      

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন