ববিতা সরকার, অঙ্কিতা অধিকারী। প্রতীকী ছবি

জলপাইগুড়ি: আগেই তাঁর ন্যায্য চাকরি ফেরত পেয়েছেন। শুক্রবার ফেরত পেলেন সেই চাকরি থেকে বঞ্চিত হওয়া সময় কালের সমস্ত টাকাও। সবটাই আদালতের নির্দেশে। যাঁর জন্য বঞ্চিত হয়েছিলেন সেই মন্ত্রীকন্যা অঙ্কিতা অধিকারীর থেকে বেতনের টাকার দ্বিতীয় ও শেষ কিস্তি ফেরত পেয়ে সেই ববিতাই জানালেন, অঙ্কিতার জন্য তাঁর খারাপ লাগার কথা।

রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর মেয়ে অঙ্কিতার জন্য প্রায় পাঁচ বছর ন্যায্য চাকরি থেকে বঞ্চিত হয়েছিলেন ববিতা। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে অঙ্কিতার ফেরত দেওয়া সমস্ত টাকা হাতে পেয়ে একটি সংবাদমাধ্যমকে ববিতা বললেন, ‘‘অঙ্কিতার জন্য খারাপ লাগছে।’’

অঙ্কিতার নাম নিয়ম ভেঙে এসএসসির মেধাতালিকায় ওঠায় ছিটকে গিয়েছিলেন তালিকায় স্থান পাওয়া শিলিগুড়ির মেয়ে ববিতা। তাঁর প্রতিবাদের জেরেই একে একে প্রকাশ্যে আসতে থাকে এসএসসি সংক্রান্ত একাধিক ‘অনিয়মের ঘটনা’। আদালত জানিয়েছে, চাকরি পাওয়ার যোগ্য হয়েও প্রায় পাঁচ বছর শিক্ষকতার চাকরি করতে পারেননি ববিতা। সেই সময়ে তাঁর জায়গায় শিক্ষকতার করেন অঙ্কিতা। ববিতা বলেন, ‘‘খারাপ লাগছে তো ঠিকই। তবে ও অবৈধ ভাবে চাকরি পেয়েছিল। তার আইনি বিচার পেয়ে খারাপ লাগাটা পূরণ হয়ে গিয়েছে।”

যদিও ববিতার আইনজীবী ফিরদৌস শামিম বলেন, ‘‘উনি অন্যায় ভাবে চাকরি পেয়েছিলেন। ববিতা এত দিন বঞ্চিত ছিলেন। অসৎ উপায়ের শিকার তিনি। ববিতার জীবন থেকে অনেকটা সময় নষ্ট হয়ে গিয়েছে। অনেক মুহূর্ত হারিয়ে গিয়েছে। চাকরিটা পেলে হয়তো সেই সমস্যার সম্মুখীন হতেন না ববিতা।

আরও পড়তে পারেন: 

কুড়ি সেকেন্ডে ১০-১৫ বার কোপানো হয়েছে, বর্তমানে ভেন্টিলেটরে সলমন রুশদি

মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি, ৭ সেপ্টেম্বর নবান্ন অভিযান বিজেপি-র

কমান্ড হাসপাতাল থেকে ফের নিজাম প্যালেস, মুখে কুলুপ অনুব্রতর

তাইওয়ান-চিন সংকট নিয়ে প্রথম প্রতিক্রিয়া ভারতের

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন