babul

ওয়েবডেস্ক:  রামনবমীকে কেন্দ্র করে সৃষ্টি হওয়া আসানসোলের ঘটনা নিয়ে বার বার বিতর্কে জড়িয়েছেন বিজেপি নেতা তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তাঁর বিরুদ্ধে গত বৃহস্পতিবার নিয়মভঙ্গের অভিযোগ দায়ের হয়েছে আসানসোল উত্তর থানায়। তবে এ সবে তিনি যে সহজে দমছেন না তা  বেঙ্গালুরুতে বুঝিয়ে দিলেন শনিবার।

গত শুক্রবারই দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের ডাকে বাংলা ছেড়েছেন বাবুল। বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ এখন রয়েছেন কর্নাটকে। সে রাজ্যের বিধানসভা ভোট না মেটা পর্যন্ত তিনি বেশির ভাগ সময় সেখানেই কাটাবেন বলে স্থির করেছেন। বাবুলকেও শনিবার দেখা গেল বেঙ্গালুরুতে।

সাংবাদিক সম্মুখীন হয়ে বাবুল জানান, আসানসোলের গোষ্ঠী সংঘর্ষের জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই দায়ী। তাঁর তোষণের রাজনীতির জন্যই আজ এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। এর আগেই ধর্মীয় উৎসবকে কেন্দ্র করে শোভাযাত্রা বের হতো। তখন কোনো সমস্যা-সংঘাত দেখা যেত না। কিন্তু ২০১১ সালের পর থেকে সব কিছু বদলাতে শুরু করেছে। অর্থাৎ পরোক্ষ ভাবে তিনি, বাম জমানায় সম্প্রীতির কথাই বোঝাতে চেয়েছেন।

বাবুল বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই এই সব ঘটনা বেড়েছে। আমি আপনাদের কাছে জানতে চাই, ২০১১ সালের আগে কী ভাবে সম্প্রীতি অটুট রেখে সমস্ত উৎসব পালিত হতো, তার পর থেকে কেন সেই পরিস্থিতি বদলে গেল?’

আসানসোল-কাণ্ড নিয়ে ইতিমধ্যেই কেন্দ্র-রাজ্য চিঠি চালাচালি হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক রাজ্যের কাছে বিশদ রিপোর্ট পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছিল। রাজ্য তা পাঠিয়েও দিয়েছে। পরিস্থিতি আদৌ কতটা স্বাভাবিক হয়েছে, তা বিভিন্ন মাধ্যম মারফত জানার চেষ্টা করছে কেন্দ্র। এমন অবস্থায় বাবুলের মুখনিসৃত মন্তব্য নিয়ে রাজ্য বিজেপির এক নেতা বলেন, ‘বাবুল হয়তো আগে-পিছে না ভেবেই নিজের মনের কথাটাই বলতে চেয়েছেন। তবে এ ব্যাপারে সতর্ক হওয়া ভালো।’