Babul Supriyo and Dilip Ghosh

কলকাতা: রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচনের শুরু থেকেই ভাষা ব্যবহারের দিক থেকে ক্রমশ বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এ ব্যাপারে তাঁকে নিয়ে আইন-আদালত এবং নির্বাচন কমিশনে টানা হেঁচড়া চললেও বিন্দুমাত্র হেলদোল নেই রাজ্যের এই আইনসভা সদস্যের। স্বাভাবিক ভাবেই একটি মহল থেকে প্রশ্ন উঠছে, তিনি কি তৃণমূলের বাগ্যবাগীশ নেতা হিসাবে পরিচিত অনুব্রত মণ্ডল (কেষ্ট)-কে অনুকরণ করছেন? এই ঘটনাই ব্যথিত করছে বাবুল সুপ্রিয়কে।

তবে এ বিষয়েও বিতর্কের অবকাশ থেকে গিয়েছে। অনুব্রত যত তীব্র বাক্যবাণই নিক্ষেপ করুন, তার ভাষার বাঁধুনি বেশ ‘আশ্চর্যজনক’। তিনি ‘চর্যাপদীয়’ ভাষা ব্যবহার করে থাকেন। সেটা যত বড়ো হুমকি-ই বহন করুক না কেন। তাঁর হুমকি-বাক্যে হয় বহু-অর্থবাহী। আলো-আঁধারি মোড়কে তিনি যে সব ভাষা-বোমা ছুড়ে থাকেন, তা নিয়ে সে কারণেই হয়তো আইনি গেরো টপকানো সহজ হয়। কিন্তু দিলীপের ক্ষেত্রে তেমনটা নয়।

সরাসরি এনকাউন্টারের হুমকি, থানা জ্বালিয়ে দেওয়ার হুমকি, বিধবা করে দেওয়ার হুমকি, ‘শোলে’-এর গব্বর সিংয়ের যুক্তিতে কোনো ধোঁয়াশা নেই। তবুও অনুব্রতর সঙ্গে দিলীপের তুলনা চলেই আসছে। যা শুনে মুখ খুলতে বাধ্য হয়েছেন দলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়।

বাবুল বলেছেন, “দলের নেতার এনকাউন্টার মন্তব্য নিয়ে আমি কোনো মন্তব্য করব না বলে এড়িয়ে যেতে পারি না। এ ব্যাপারে তাঁর সঙ্গে আমাদের আলোচনা করা দরকার”। অনুব্রতর সঙ্গে দিলীপের তুলনা টানতে দেখে তিনি যে যথেষ্ট হতাশ, সে কথাও জানাতে ভোলেননি আসানসোলের সাংসদ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here