যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বেরিয়ে গেল রাজ্যপালের গাড়ি

0
ছবি: রাজীব বসু

ওয়েবডেস্ক: কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র হেনস্থাকাণ্ডে উত্তাল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে উদ্ধারে রাজ্যপাল জগদীপ ধানকর ঘটনাস্থলে গেলে তাঁকেও আটকে রাখেন বিক্ষোভকারীরা। অন্য দিকে রাস্তায় হাতে বাঁশ-লাঠি নিয়ে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান তুলতে থাকেন এবিভিপি সমর্থকেরা। তাঁরা এসএফআই ইউনিয়ন রুমে ব্যাপক ভাঙচুরও চালান।

তিন নম্বর গেট দিয়ে বেরিয়ে গেল রাজ্যপালের গাড়ি। গাড়িতে রয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়। এইটবি বাসস্ট্যান্ডের দিকে সুলেখা, বাঘাযতীন হয়ে বাইপাসের দিকে এগিয়ে গেল রাজ্যপালের কনভয়।

রাজ্যপালের গাড়ি বেরনোর কথা ছিল চার নম্বর গেট দিয়ে। কিন্তু সেখানে শুয়ে ছিলেন বিক্ষোভকারীরা। স্বভাবতই অবরুদ্ধ হয়ে গিয়েছিল পথ। এর পরই আচমকা গাড়িটিকে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরিয়ে তিন নম্বর গেট দিয়ে বেরিয়ে যায় গাড়িটি। বিক্ষোভকারীরা গাড়ির সামনের দিকে থাকলেও পিছনে ছিলেন পুলিশকর্মীরা। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়েই দ্রুত গাড়িটিকে ঘুরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

ঢাকুরিয়া আমরিতে ভরতি উপাচার্য সুরঞ্জন দাস। রক্তচাপ জনিত সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভরতি হয়েছেন তিনি। হাসাপাতালে ভরতি সহ-উপাচার্য প্রদীপকুমার ঘোষ।

চার নম্বর গেটের দিকে ব্যাপক ভাঙচুর চালালেন এবিভিপি সমর্থকরা।

কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল এবং রাজ্যপাল জগদীপ ধানকরকে ভিতরে আটকে রেখেছেন বিক্ষোভকারীরা।

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়তে হল রাজ্যপাল জগদীপ ধানকরকেও। এ দিন তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢুকে গাড়ি থেকে নামতেই পড়ুয়াদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন। ফলে ফের নিজের গাড়িতে গিয়ে বসেন। এর পরই তিনি ভিতরে ঢুকে বাবুল সুপ্রিয়কে নিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

আরও আসছে…

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here