শিক্ষামন্ত্রীর ইন্ধনে হেনস্তার অভিযোগ তুলে ইস্তফা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের

ওয়েবডেস্ক: রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ইন্ধনে তাঁকে হেনস্তার সম্মুখীন হতে হয়েছে অভিযোগ তুলে ইস্তফা দিলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার সাংবাদিক বৈঠক ডেকে তিনি দাবি করেন, মিথ্যা অভিযোগ তুলে তাঁকে হেনস্তা করছেন ওই কলেজেরই প্রাক্তন টিচার-ইন-চার্জ সাবিনা নিশাত ওমার। যে কারণে তিনি মিলি আল আমিন কলেজের টিচার-ইন-চার্জের পদ থেকে ইস্তফা দিচ্ছেন।

কয়েক দিন আগেই রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী এবং কলকাতা পুরসভার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে গিয়ে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গোপন বৈঠক নিয়ে হইচই সৃষ্টি হয়। শোনা যায়, ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন শোভনের ‘অসময়ের বান্ধবী’ অধ্যাপিকা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ দিনের সাংবাদিক বৈঠকে বৈশাখী বলেন, সিপিএমের জমানায় তাঁর বিরুদ্ধে আঙুল উঠত তিনি তৃণমূল করেন বলে। তৃণমূলের জমানায় অনেকেই বলতেন তিনি সিপিএম করেন। এখন আবার কেউ কেউ বলছেন, তিনি বিজেপি-আরএসএস ঘেঁষা।

পার্থবাবুর ইন্ধনেই যে তাঁকে হেনস্তা এবং অপদস্ত করা হয়েছে, তেমন অভিযোগে অনড় বৈশাখী বলেন, “যে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে আমি এত শ্রদ্ধা করতাম, তাঁর ইন্ধনেই এমনটা হচ্ছে। এমন কাণ্ড দেখে আমি হতবাক। পার্থদা ২৩ জুলাই শোভনদার সঙ্গে দেখা করতে তাঁর বাড়িতে এসেছিলেন। সে দিনই আমি তাঁর কাছে পদত্যাগের ইচ্ছাপ্রকাশ করি। উনি আমাকে আশ্বস্ত করে বলেছিলেন, ‘আমি থাকতে কোনো অপমান হবে না, কেন তুমি পদত্যাগ করতে চাইছ”? অথচ তাঁর নির্দেশেই এসব হচ্ছে! আমি হিন্দু হয়েও এতদি ন এই কলেজে রয়েছি, কোনো দিন সাম্প্রদয়িকতার অভিযোগ ওঠেনি। এখন হঠাৎ কেন উঠবে? কালই আমি ভিসির কাছে পদত্যাগপত্র পাঠাচ্ছি”।

এ দিনের সাংবাদিক বৈঠক চলাকালীন কেঁদে ফেলেন বৈশাখী। তাঁর পাশে বসা শোভন বলেন, গত দু’দিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়ায় বৈশাখীর বিরুদ্ধে কুরুচিকর প্রচার চলছে। পার্থবাবুর পরামর্শ মতো শোভন তৃণমূলে না ফেরাতেই তাঁর উপর এমন হেনস্তার ঘটনা ঘটছে বলে দাবি করতে শোনা যায় বৈশাখীকে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.