purulia-3

শুভদীপ চৌধুরী, পুরুলিয়া: রাজ্যের পঞ্চায়েত ভোটে এ বছর পুরুলিয়া বিজেপির উত্থান আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছে রাজ্য জুড়ে। ফলাফল ঘোষণার পর তিন পরেও চলছে গেরুয়া আবির উড়িয়ে বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের বিজয় উদযাপন। কিন্তু জেলার রাশ রয়েছে তৃণমূলের হাতেই। তবে বলরামপুরের তৃণমূল সভাধিপতির হারের কারণ খুঁজতে চলছে ময়না তদন্ত। কারণ রাজনীতিতে আনকোরা এক প্রতিদ্বন্দ্বীর কাছেই হারতে হয়েছে তৃণমূলকে।

এ বার ভোটে হেরেছেন জেলার শীর্ষস্থানীয় তৃণমূল নেতা সৃষ্টিধর মাহাতো। তিনি জেলা পরিষদ আসনে পরাজিত হয়েছেন ৯ হাজার ১৪৫ ভোটে। জয়ী হন বিজেপির গোপীনাথ গোস্বামী। এ বছর প্রথমবার নির্বাচনী রাজনীতিতে অংশ নিয়েছিলেন গোপীনাথবাবু। তিনি রাজ্য সরকারের অবসরপ্রাপ্ত তথ্য ও সংস্কৃতি।

তবে রাজনীতির পরিবর্তে আবসর জীবনে কীর্তনীয়া শিল্পী হিসেবেই তিনি পরিচিত এলাকার মানুষের কাছে। স্থানীয় মানুষ কেউ তাঁকে ডাকেন গুরুঠাকুর, কেউ কেউ গোঁসাইসাহেব বলে । স্থানীয় সূত্রে খবর, সাম্প্রতিক অতীতে সরাসরি রাজনীতি না করলেও শুধুমাত্র পুজো-অর্চনা ছাড়াও মানুষের সুখ-দুঃখেও তিনি পাশে দাঁড়ান।

জেলা প্রশাসন সূত্রে, ২০১৭ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে অবসর নেন গোপীনাথবাবু। গোপীনাথবাবু জানান, তিনি কোনোদিনও রাজনীতিতে আসবেন বলে ভাবেননি, কিন্তু উন্নয়নের নামে ঘটে যাওয়া কিছু অনৈতিক কাজের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য তাঁকে এলাকার মানুষ উৎসাহিত করায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নেন।

অন্যদিকে তৃণমূলের বিদায়ী সভাধিপতি সৃষ্টিধর মাহাতো জানান, এলাকায় তিনি অনেক উন্নয়ন করেছেন, মানুষ হয়তো আরও বেশি প্রত্যাশা করে, তাই ওনাকে নির্বাচন করেছেন ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here