শিশুদের জন্য রান্না ভাত-ডাল খেয়ে দেখলেন বাঁকুড়ার জেলাশাসক

0
dm and sdo testing food
বাঁ দিকে বাঁকুড়ার ডিএম। ফাইল চিত্র।

ইন্দ্রানী সেন, বাঁকুড়া: সাতসকালেই মোটরবাইকে সওয়ার হয়ে খাতড়া মহকুমার বিভিন্ন সরকারি স্কুল, হাসপাতাল, অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্র পরিদর্শন করলেন বাঁকুড়ার জেলাশাসক ড. উমাশঙ্কর এস। সঙ্গী ছিলেন খাতড়ার মহকুমাশাসক রাজু মিশ্র-সহ অন্য সরকারি আধিকারিকরা।

শনিবার এ হানা ছিল নিতান্তই আচমকাই। দলবল নিয়ে জেলাশাসক পৌঁছে গেলেন  অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রগুলিতে। রান্নাঘর-সহ রান্নার সরঞ্জাম ও রান্নার সামগ্রী পরীক্ষা করলেন নিজের হাতে। এর ফাঁকেই অনিয়মিত অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীকে অনুপস্থিত থাকার জন্য তোপ দাগলেন। অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে শিশুদের জন্য রান্না ভাত-ডাল খেয়ে দেখলেন জেলাশাসক ও মহকুমাশাসক।

আরও পড়ুন: বাটানগরে বিধ্বংসী আগুন, এলাকা জুড়ে চাঞ্চল্য

এরই মাঝে সরকারি কর্তাব্যক্তিরা পৌঁছে গেলেন কোনো স্কুলে। সেখানে গিয়ে জেলাশাসক ছাত্রছাত্রীদের উৎসাহ দিলেন পড়াশোনায়। পাশাপাশি সরকারি চিকিৎসাকেন্দ্রগুলিতে সংখ্যায় বেশি করে ডাক্তার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেন জেলার সর্বোচ্চ সরকারি আধিকারিক।

উল্লেখ্য, ড. উমাশঙ্কর এস বাঁকুড়ার জেলাশাসকের দায়িত্বভার নেওয়ার পর থেকেই জেলা ঘিরে একাধিক পরিকল্পনা বাস্তবায়নের রূপ দিয়েছেন। সাধারণ মানুষের অভাব অভিযোগ শোনার জন্য শুরু হয়েছে সহকর্মী প্রকল্প। সেই সঙ্গে জেলা জুড়ে এক জানলা প্রকল্পের সুফল আজ সর্বজন বিদিত।

বেশ কিছু দিন আগে বর্তমান জেলাশাসকের হাত ধরেই দেশসেরার শিরোপা পায় বাঁকুড়া। বিশ্ব শৌচাগার দিবস উপলক্ষ্যে পানীয় জল এবং নিকাশি মন্ত্রক আয়োজিত এক প্রতিযোগিতায় ৪১২টি জেলাকে পিছনে ফেলে দেশে প্রথম স্থান অর্জন করে বাঁকুড়া।


সাঙ্গোপাঙ্গ নিয়ে হঠাৎ পরিদর্শনে জেলাশাসক।

সংশ্লিষ্ট মন্ত্রক ওই প্রতিযোগিতায় প্রথম দশে ১২টি জেলা বেছে নেয়। তার মধ্যে সবাইকে পিছনে ফেলে প্রথম স্থান অধিকার করে বাঁকুড়া। এর স্বীকৃতিস্বরূপ মুম্বইয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বাঁকুড়ার জেলাশাসকের হাতে পুরস্কার তুলে দেন বলিউড অভিনেতা তথা স্বচ্ছ ভারত মিশনের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর অক্ষয় কুমার।

জেলাশাসকের এ দিনের সফরে শৌচাগার সমস্যা, পানীয় ও সেচের জলের সমস্যা, রাস্তাঘাটের হাল, বার্ধক্য ও প্রতিবন্ধী ভাতা না-পাওয়া ইত্যাদি নানা বিষয় উঠে আসে। সাধারণ মানুষের কাছ থেকে এ সব বিষয়ে নানা অভিযোগ শোনেন জেলাশাসক। এ সব সমস্যা মেটানোর যথাসাধ্য আশ্বাস দেন জেলাশাসক।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.