বিষ্ণুপুর: বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরে একটি বেসরকারি হাসপাতালে আগুন-আতঙ্ক। আতঙ্কিত হয়ে তিনতলা থেকে ঝাঁপ দেন রাঁধুনি। তাঁর ঝাঁপ দেওয়ার ছবি ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কিছুক্ষণের মধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন দমকল কর্মীরা।

ঘটনায় প্রকাশ, বিষ্ণুপুর শহরের রবীন্দ্র স্ট্যাচু লাগোয়া ওই বেসরকারি হাসপাতালে সকালে রোগী ও কর্মীদের জন্য রান্নাবান্নার কাজ চলছিল। সকাল ১০টা নাগাদ আচমকাই গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়ে আগুন ধরে যায় ওই রান্নাঘরে। নার্সিংহোমে আগুন লেগেছে, এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই ভর্তি থাকা রোগী ও রোগীর পরিজনরা পড়িমড়ি করে নীচে নামতে শুরু করেন। প্রাণ বাঁচাতে এলোমেলো ছোটাছুটি শুরু করেন সকলে, চেষ্টা করেন নীচে নেমে আসার। রীতিমতো হুলুস্থুলু পরিস্থিতি তৈরি হয়।

সে সময় এক মহিলা রাঁধুনি তিন তলার শৌচালয়ে গিয়েছিলেন। শৌচালয় থেকে বেরোতেই তিনি দেখেন রান্নাঘরে দাউদাউ করে আগুন জ্বলছে। সিঁড়ি দিয়ে নামতে গেলে তাঁকে ওই রান্নাঘর পেরিয়েই যেতে হবে। সে ক্ষেত্রে অগ্নিদগ্ধ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এই আশঙ্কায় তিনি তিন তলার কার্নিশ ধরে ঝুলতে থাকেন। ঘটনা বেগতিক বুঝে তিনতলা থেকেই ঝাঁপ দেন রাঁধুনি। তবে ওই রাঁধুনি ঝাঁপ দিচ্ছেন বুঝেই তাঁকে ধরে ফেলেন নীচে দাঁড়িয়ে থাকা হাসপাতালে অন্য কর্মীরা। ফলে ওই মহিলার তেমন আঘাত লাগেনি।

রান্নাঘরে আগুন লাগার ঘটনা জানাজানি হতেই হাসপাতালের নিজস্ব অগ্নি নির্বাপণ ব্যবস্থাকে কাজে লাগিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা হয়। খবর দেওয়া হয় দমকলেও। হাসপাতাল সূত্রে খবর, সকলকেই নিরাপদে আছেন। ঘটনাস্থলে পৌঁছোয় বিষ্ণুপুর থানার পুলিশ। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে, সিলিন্ডার থেকেই এই আগুন।

আরও পড়তে পারেন:

সিবিএসই দ্বাদশ শ্রেণির ফল ঘোষণা, পাশের হার ৯২.৭১ শতাংশ

আচমকা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে ইডি, কী কারণে তল্লাশি অভিযান

দূরের জেলায় সংক্রমণ এখনও ঊর্ধ্বগামী হলেও কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী জেলাগুলিতে ক্রমশ কমছে করোনা

৮ হাজার কোটি টাকার বুন্দেলখন্দ এক্সপ্রেসওয়েতে ধস, গত সপ্তাহেই উদ্বোধন করেন মোদী

আচমকা থেকে আচমকা সরে গিয়েছিল তৃণমূলই, পাল্টা অভিযোগ কংগ্রেস-সহ বিরোধীদের

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন