Connect with us

বাঁকুড়া

বাঁকুড়ার প্রান্তিক পরিবারের বাক-শ্রবণশক্তিহীন মাধ্যমিক-উত্তীর্ণাকে সম্মাননা

Published

on

ইন্দ্রাণী সেন বোস

বাঁকুড়া: মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে বেশ কিছু দিন হল। বর্তমান সময়ে নম্বরের সহজলভ্যতা কোথাও যেন ম্লান করে দিয়েছে নিদারুণ লড়াই করে উঠে আসা তথাকথিত প্রান্তিক পরিবারের ছাত্রছাত্রীদের সাফল্যকে। তাদের কথা আস্তে আস্তে ভুলতে বসে প্রচারসর্বস্ব সমাজ। তবে কোনো কোনো স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সৌজন্যে তাদের কথা আবার মনে পড়ে যায়। এমনই এক ব্যতিক্রমী ছাত্রী বুল্টি বৈরাগ্য।

বাঁকুড়া জেলার আকুই ননীবালা উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়। স্বাধীনতা সংগ্রামী ননীবালা গুহর প্রতিষ্ঠিত এই বিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যই ছিল এলাকায় নারীশিক্ষার বিস্তার ঘটানোর। অক্ষরজ্ঞানহীন এই মহিলা চাননি তাঁর এলাকার মেয়েরা পিছিয়ে থাকুক। এ বছর ননীবালার মুকুটে আর একটি পালক যোগ করল বুল্টি।

ননীবালা স্কুলের বাক ও শ্রবণশক্তিহীন ছাত্রী বুল্টি বৈরাগ্য এ বার মাধ্যমিক উত্তীর্ণ হল। তার এই সাফল্যকে উদযাপন করতে এগিয়ে এল আকুই গ্রামেরই একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, মানবধর্ম অনুশীলন সমিতি। বৃহস্পতিবার তার বাড়িতে এক ঘরোয়া অনুষ্ঠানে বাক ও শ্রবণশক্তিহীন মাধ্যমিক-উত্তীর্ণাকে সন্মাননা জানাল এই সংগঠনের সদস্যরা।

উল্লেখ্য আকুই ননীবালা উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী বুল্টি বৈরাগ্য ছোটো থেকেই শুনতে ও কথা বলতে পারে না। প্রান্তিক পরিবারে নুন আনতে পান্তা ফুরোনো বাবা-মায়ের অদম্য উৎসাহে আর পাঁচ জন সাধারণ ছাত্রীর সঙ্গেই সে পড়াশোনা চালিয়ে গিয়ে এ বছর মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হল। সংসারে নিদারুণ অভাব। সেই কারণে শারীরিক ভাবে প্রতিবন্ধী এই ছাত্রী বিশেষ স্কুলে ভর্তি হতে না পারেনি। আর পাঁচজন স্বাভাবিক মেয়ের সঙ্গে সে-ও যে মাধ্যমিক পরীক্ষা দেওয়া ও উত্তীর্ণ হাওয়ার যে সাহস দেখিয়েছে, তার জন্য এলাকাবাসী তাকে কুর্নিশ জানায়।

বুল্টির বাবা মহানন্দ বৈরাগ্য বলেন, “এত দিন পর্যন্ত ও মেয়েদের স্কুলে পড়ত। এ বার ছেলেদের সঙ্গে পড়তে হবে শুনে বুল্টির খুব ভয় করছে। আমরা সবাই চাই ও ভয় কাটিয়ে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হোক।”

বিশেষ উল্লেখ্য, মাধ্যমিকে কোনো টিউশন ছাড়াই বুল্টি পাশ করেছে। উচ্চ মাধ্যমিকের পড়ার খরচ অত্যন্ত বেশি। কী ভাবে তা জোগাড় করা হবে, সেই চিন্তায় কপালে ভাঁজ এই প্রান্তিক পরিবারের সদস্যদের।

বাঁকুড়া

গেরুয়া শিবির ছেড়ে তৃণমূলে ফিরলেন বিষ্ণুপুরের বিধায়ক তুষারকান্তি ভট্টাচার্য

রাজ্যের মন্ত্রী তথা তৃণমূলের বাঁকুড়া জেলা সভাপতি শ্যামল সাঁতরার হাত ধরে তৃণমূলে ফিরলেন তুষারকান্তি ভট্টাচার্য।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিজেপির সঙ্গে সম্পর্কে ইতি টেনে ফের তৃণমূলে যোগ দিলেন বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের বিধায়ক তুষারকান্তি ভট্টাচার্য।

শুক্রবার বাঁকুড়ার তৃণমূল ভবনে রাজ্যের মন্ত্রী তথা তৃণমূলের বাঁকুড়া জেলা সভাপতি শ্যামল সাঁতরার হাত ধরে তিনি তৃণমূলে ফিরলেন।

১৯৬৫ সাল থেকে টানা ২৫ বছর বিষ্ণুপুর পুরসভার কাউন্সিলর ছিলেন তুষারকান্তিবাবু। ১৯৮৯ থেকে ১৯৯০ পর্যন্ত বিষ্ণুপুর পুরসভার পুরপ্রধান ছিলেন। ১৯৯৮ সাল থেকে তিনি বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব সামনে ছিলেন দীর্ঘদিন। মাঝে বেশ কয়েক বছর রাজনীতি থেকে দূরের থাকার পর ২০১৬ সালে বাম-কংগ্রেস জোটের প্রার্থী হয়ে বিধায়ক হন তিনি।

তবে ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর আবার তিনি দিল্লিতে গিয়ে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের হাত ধরে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখান।


এ দিনে তৃণমূলে ফিরে তিনি বলেন, এক দিন অভিমানে ঘর ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন। ফের তৃণমূলে ফিরে ভালো লাগছে।

তাঁর সঙ্গেই এ দিন তৃণমূলে ফিরে আসেন বেশ কয়েকজন অনুগামী। আগামী ২০২১ সালের রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের আগে এই দলবদল, এলাকায় তৃণমূলের সংগঠনকে অনেকটাই মজবুত করল বলে মত রাজনৈতিক মহলের।

আরও পড়তে পারেন: ‘ছাত্র-ছাত্রীদের স্বার্থই সর্বোচ্চ’ বলেছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধানখড়, সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর তিনি কী বললেন?

Continue Reading

বাঁকুড়া

বাঁকুড়ার যুবতীকে পুঁতে দেওয়ায় দোষী সাব্যস্ত ‘প্রেমিক’ উদয়ন দাসের যাবজ্জীবন

এ দিন বাঁকুড়ার ফাস্ট ট্র্যাক কোর্টের বিচারক সুরেশ বিশ্বকর্মার এজলাসে ওই খুন ও দেহ লোপাটের মামলার শাস্তি ঘোষণা হয়।

Published

on

ফাইল ছবি

খবরঅনলাইন ডেস্ক: মধ্যপ্রদেশের ভোপালে আকাঙ্ক্ষা শর্মা (২৮) খুনের ঘটনায় বুধবার তাঁর ‘প্রেমিক’ উদয়ন দাসকে যাবজ্জীবন সাজা দিল বাঁকুড়ার ফাস্ট ট্র্যাক আদালত।

গত মঙ্গলবার উদয়নকে দোষী সাব্যস্ত করে আদালত। এ দিন বাঁকুড়ার ফাস্ট ট্র্যাক কোর্টের বিচারক সুরেশ বিশ্বকর্মার এজলাসে ওই খুন ও দেহ লোপাটের মামলার শাস্তি ঘোষণা হয়। বিচারক দোষীকে যাবজ্জীবন কারাবাসের নির্দেশ দেন।

ঘটনায় প্রকাশ, আমেরিকায় ইউনিসেফের কাজে যোগ দিতে যাচ্ছেন বলে ২০১৬-র ২৩ জুন বাঁকুড়ার রবীন্দ্রসরণির বাড়ি থেকে বেরোন ব্যাঙ্ক আধিকারিকের মেয়ে আকাঙ্ক্ষা। সঙ্গে ছিল সোশ্যাল মিডিয়ায় আলাপ হওয়া ‘প্রেমিক’ উদয়নের দেওয়া চাকরির ভুয়ো নিয়োগপত্র।

এর পর ২০১৭ সালের ২ ফেব্রুয়ারি ভোপালের গোবিন্দপুরা থানার সাকেতনগরে উদয়নের বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় আকাঙ্ক্ষা শর্মার দেহাবশেষ।

অভিযোগ, বচসার মধ্যে ১৫ জুলাই তাঁকে শ্বাসরোধ করে খুন করে উদয়ন। তার পরে বাড়ির মধ্যে তাঁর দেহটি টিনের বাক্সে ভরে সিমেন্টের বেদি গেঁথে দেয়। আকাঙ্ক্ষার ফোন থেকে তাঁর বাড়ির লোকজনকে হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজে উদয়ন জানায়, সে আমেরিকায় পৌঁছেছে। সেখানকার সিম-কার্ড পায়নি বলে ফোন করতে পারছে না। শুধু মেসেজেই যোগাযোগ ছিল পরিবারের সঙ্গে।

এই সময়-এ প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, দীর্ঘ দিন আকাঙ্ক্ষা ফোন না ধরায় ধন্দে পড়ে তাঁর পরিবার। এর পর তাঁরা বাঁকুড়া সদর থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করে। পুলিশ আকাঙ্ক্ষার মোবাইল লোকেশন ট্র্যাক করে জানতে পারে, সেটি ভোপালের সাকেতনগরে রয়েছে।

আকাঙ্ক্ষার বাবা ও ভাই সেখানে গেলে, উদয়ন বা আকাঙ্ক্ষার দেখা পাননি। ২০১৭ সালের ৫ জানুয়ারি উদয়নের বিরুদ্ধে আকাঙ্ক্ষাকে অপহরণের মামলা করেন তাঁরা। এর পর ভোপালে গিয়ে বাঁকুড়া পুলিশ উদয়নকে গ্রেফতার করে। উদ্ধার হয় আকাঙ্ক্ষার দেহাবশেষ।

এর পর চলে জেরা। জেরায় পুলিশ জানতে পারে, উদয়নের বাবা বীরেন্দ্রকুমার দাস ও মা ইন্দ্রাণী দাসকেও ২০১০ সালে খুন করে ছত্তীসগঢ়ের রায়পুরের বাড়ির বাগানে পুঁতে দিয়েছে উদয়ন। তাঁদের কঙ্কালও উদ্ধার করে পুলিশ। সেই জোড়া খুনের মামলার তদন্ত করছে ছত্তীসগঢ়ের দীনদয়াল উপাধ্যায়নগর থানা।

Continue Reading

বাঁকুড়া

বিরল কৃতিত্ব বাঁকুড়ার সিমলাপাল মদন মোহন উচ্চ বিদ্যালয়ের, প্রথম দশের ছ’টি স্থানে দশ ছাত্রছাত্রী

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: মাধ্যমিক বা উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় একটি স্কুল থেকে একাধিক ছাত্রছাত্রীর প্রথম দশে থাকার ঘটনা আকছারই ঘটে। কিন্তু প্রথম দশটি স্থানে একই স্কুলের দশ জন ছাত্রছাত্রীর থাকার ঘটনা খুবই বিরল সন্দেহ নেই।

পশ্চিমবঙ্গের (West Bengal) উচ্চ মাধ্যমিক (Higher Secondary) পরীক্ষায় এই বিরল কৃতিত্ব অর্জন করেছে বাঁকুড়ার (Bankura) সিমলাপাল মদন মোহন উচ্চ বিদ্যালয়। এই স্কুলের দশ জন ছাত্রছাত্রী প্রথম দশের মধ্যে ছ’টি স্থান অধিকার করেছে।

এই স্কুল থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় ৪৯৭ পেয়ে তৃতীয় হয়েছে রূপ সিনহাবাবু ও মৌ দাসমহন্ত, ৪৯৬ পেয়ে চতুর্থ হয়েছে জয়দীপ মান্না, ৪৯৫ পেয়ে পঞ্চম হয়েছে অনুভব পন্ডা , ৪৯২ পেয়ে অষ্টম হয়েছে শীর্ষেন্দু পাঠক ও স্নিগ্ধা সৎপথী, ৪৯১ পেয়ে নবম হয়েছে দেবারতি পাত্র ও বরুণ মণ্ডল এবং ৪৯০ পেয়ে দশম হয়েছে সৌভিক পন্ডা ও শুভজিৎ কর্মকার।

ওরা কী বলে

তৃতীয় স্থানাধিকারী রূপ সিনহাবাবু তিনটি বিষয়ে পুরো ১০০ পেয়েছে। সেগুলি হল অঙ্ক, পদার্থবিদ্যা ও রসায়ন। বাবা দীপককান্তি সিনহাবাবু  কৃষিকাজে যুক্ত, মা দুলালী সিনহাবাবু গৃহবধূ। রূপ নিজেই জানিয়েছে সে দিনে গড়ে ১২ থেকে ১৪ ঘন্টা পড়াশোনা করত। রূপ দশ জনের কাছে টিউশন নিত। সে  বড়ো হয়ে ডাক্তার হতে চায়।

রূপের মতো মৌ-ও ডাক্তার হতে চায়। সেও অঙ্ক, পদার্থবিদ্যা ও রসায়নে পুরো ১০০ পেয়েছে। বাবা অনিলবরণ দাসমহন্ত পেশায় গ্রামীণ ডাক্তার, মা অনিমা দাসমহন্ত, অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী। মৌ জানিয়েছে, সে দিনে ৯ থেকে ১০ ঘণ্টা পড়াশোনা করত। আট জনের কাছে টিউশন নিত।      

আরও পড়ুন: অভাবকে হেলায় হারিয়ে মাধ্যমিকে ৯৩ শতাংশ নম্বর পেয়ে ডাক্তার হতে চায় সোনারপুরের অয়ন্তিকা

চতুর্থ স্থানাধিকারী জয়দীপের  বাবা মানসকান্তি মান্না এবং মা পূর্ণিমা মান্না দু’ জনেই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। জয়দীপও অঙ্ক, পদার্থবিদ্যা ও রসায়নে পুরো ১০০ পেয়েছে। সে-ও ডাক্তার হতে চায়। সাত জনের কাছে টিউশন নিত সে।    

কী হতে চাও? এই প্রশ্নে একটু অন্য রকম উত্তর দিল পঞ্চম স্থানাধিকারী অনুভব পন্ডা। অনুভবের বাবা তারাপদ পন্ডা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, মা শিখা পন্ডা গৃহবধূ । অনুভবও তিন বিষয়ে পুরো ১০০ পেয়েছে – অঙ্ক, পদার্থবিদ্যা ও রসায়ন। ১০ জনের কাছে টিউশন নেওয়া এবং দিনে ১০ থেকে ১২ ঘণ্টা পড়া অনুভব বলেছে, সে ডক্টরেট করে অধ্যাপক হতে চায় ।

Continue Reading
Advertisement
Uncategorized16 hours ago

সরষের তেল থেকে এলপিজি হয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স, কাল থেকে যে ১০টি নিয়ম বদলে যাচ্ছে

Coronavirus durga puja
দেশ17 hours ago

ওনামেই বিপদ বাড়ল কেরলের, পুজোর আগে শিক্ষা নিতে হবে পশ্চিমবঙ্গকে

Uttar Pradesh Police
দেশ17 hours ago

আটকে রাখা হল পরিবারকে, ঘেঁষতে দেওয়া হল না সংবাদমাধ্যমকে, হাতরাসের তরুণীর শেষকৃত্য করল পুলিশ

corona
দেশ17 hours ago

নতুন আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা বাড়লেও সুস্থ হলেন আরও বেশি মানুষ, সক্রিয় রোগী আরও কমল ভারতে

দেশ17 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৮০৪৭২, সুস্থ ৮৬৪২৮

mamata banerjee and sonia gandhi
রাজ্য18 hours ago

নয়া কৃষি আইন রুখতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি কংগ্রেসের

suresh raina
ক্রিকেট18 hours ago

সংঘাত চরমে, ওয়েবসাইট থেকে সুরেশ রায়নার নাম মুছে দিল চেন্নাই সুপারকিংস

Rapes in India
দেশ19 hours ago

দৈনিক ৮৭টি ধর্ষণের ঘটনা ভারতে, চাঞ্চল্যকর তথ্য এনসিআরবির

দেশ17 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৮০৪৭২, সুস্থ ৮৬৪২৮

north bengal rain
রাজ্য3 days ago

অতিবৃষ্টির হাত থেকে অবশেষে রেহাই পেল উত্তরবঙ্গ, আপাতত স্বস্তি

covid peak india
দেশ2 days ago

১৮ সেপ্টেম্বরের পর থেকে সক্রিয় রোগীর গ্রাফ নিম্নমুখী, কোভিডের চূড়া কি অবশেষে পেরোল ভারত?

coronavirus
দেশ2 days ago

দেশে নতুন কোভিড-আক্রান্তের সংখ্যা গত ২৮ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন, ব্যাপক পতন মৃত্যুর সংখ্যাতেও

ganges cruise
কলকাতা3 days ago

মাত্র ৩৯ টাকায় গঙ্গাবক্ষে উপভোগ করুন ‘হেরিটেজ ক্রুজ’

Ration Card and Aadhaar Number
প্রযুক্তি2 days ago

অনলাইনে সত্যিই কি রেশন কার্ডে আধার লিঙ্ক করা যায়?

low pressure west bengal rain
রাজ্য3 days ago

অক্টোবরের দ্বিতীয় সপ্তাহে আসতে পারে নিম্নচাপ, তত দিন বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিই ভরসা দক্ষিণবঙ্গের

দুর্গা পার্বণ2 days ago

করোনাকালে আড়ম্বর থাকবে না, তবুও থাকবে চমক তেলেঙ্গাবাগানের পুজোয়

কেনাকাটা

কেনাকাটা1 day ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা2 days ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা5 days ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা6 days ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা1 week ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা2 weeks ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা2 weeks ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা3 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা3 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা3 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

নজরে