খবরঅনলাইন ডেস্ক: পর পর দু’দিন সংক্রমণের হারটা কিছুটা কমেছিল রাজ্যে। কিন্তু বৃহস্পতিবার ফের তা বেড়ে গেল। যদিও পর পর তিন দিন ধরেই তা ৩০ শতাংশের নীচেই থাকল। তবে রাজ্যে সংক্রমণের সঙ্গে দৈনিক সুস্থতার সংখ্যাটিও গত কয়েক দিন ধরে পাল্লা দিচ্ছে, এ দিনও সেটা অব্যাহত রয়েছে। কিছুটা স্বস্তি দিয়ে কলকাতা-সহ রাজ্যের দশ জেলায় সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও কমেছে।

রাজ্যের কোভিড পরিস্থিতি

এ দিন স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় গোটা রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছেন ২০ হাজার ৮৩৯ জন। এখনও পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লক্ষ ৭৩ হাজার ৯৫৬।

Loading videos...

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৯ হাজার ১৮১ জন। এর ফলে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট কোভিডজয়ীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৯ লক্ষ ৩০ হাজার ৮৮৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে রাজ্যে। ফলত রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুহার ছিল ০.৬১ শতাংশ। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত কোভিডে প্রাণ হারিয়েছেন মোট ১২ হাজার ৮৫৭ জন।

রাজ্যে বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ১ লক্ষ ৩০ হাজার ২১৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৫২৯ জন সক্রিয় রোগী বেড়েছে রাজ্যে। রাজ্যে সুস্থতার হার কিছুটা বেড়ে হয়েছে ৮৬.৬৮ শতাংশ। বুধবার এই হার ছিল ৮৬.৫৭ শতাংশ।

দৈনিক সংক্রমণের হার ২৯ শতাংশের ঘরে

দেশের অধিকাংশ রাজ্যেই দৈনিক সংক্রমণের হার এখন হুহু করে পড়ছে। পশ্চিমবঙ্গে এখনও সেই পরিস্থিতি আসেনি। কিন্তু গত তিন ধরেই সংক্রমণের হারটি ৩০ শতাংশের নীচে রয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে টেস্ট হয়েছে ৭০ হাজার ৪৭৩টি। এর বিপরীতে সংক্রমণের হার ছিল ২৯.৫৭ শতাংশ। রাজ্যের সামগ্রিক সংক্রমণের হার বর্তমানে রয়েছে ৯.৫৬ শতাংশ। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মোট ১ কোটি ১২ লক্ষ ৩৯ হাজার ৪১৬টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগণায় স্থিতাবস্থা

কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগণায় দৈনিক সংক্রমণ মোটের ওপরে এক জায়গায় থাকলেও উত্তর ২৪ পরগণার দৈনিক সংক্রমণে বৃদ্ধি কিছুটা চিন্তায় রাখছে। তবে কলকাতার দৈনিক সংক্রমণ কিছুটা কমেছে।

কলকাতায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৩,৯২৪ এবং উত্তর ২৪ পরগণায় ৪,১৩১ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এই দুই জেলায় সুস্থ হয়েছেন যথাক্রমে ৩,৯৮৩ এবং ৩,৭৪১ জন। কলকাতায় ৩৯ এবং উত্তর ২৪ পরগণায় ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

কলকাতায় এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২ লক্ষ ৪২ হাজার ৭১৭, উত্তর ২৪ পরগণায় মোট আক্রান্ত ২ লক্ষ ২৯ হাজার ৫২৬। কলকাতায় বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২৬ হাজার ২০২ জন এবং উত্তর ২৪ পরগণায় ২৫ হাজার ২০৭ জন। দুই জেলায় মৃত্যু হয়েছে যথাক্রমে ৩,৮৩২ এবং ৩,১৭৬ জনের।

রাজ্যের বাকি জেলার চিত্র

রাজ্যের বাকি জেলাগুলির পরিস্থিতি এখনও উদ্বেগজনকই রয়েছে। তবে এরই মধ্যে পুরুলিয়ার, মালদহর মতো কিছু জেলা রয়েছে যেখানে সংক্রমণের একটা নিম্নমুখী ধারা লক্ষ করা যাচ্ছে।

কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগণা বাদে গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যের অন্যান্য জেলায় নতুন সংক্রমণ এবং সুস্থতার সংখ্যা কেমন ছিল, দেখে নিন।

১) আলিপুরদুয়ার

নতুন করে আক্রান্ত – ১০০

সুস্থ হলেন – ৪৭

২) কোচবিহার

নতুন করে আক্রান্ত – ৩০০

সুস্থ হলেন – ২০৪

৩) দার্জিলিং

নতুন করে আক্রান্ত – ৫৭৫

সুস্থ হলেন – ৬২৯

৪) কালিম্পং

নতুন করে আক্রান্ত – ৪২

সুস্থ হলেন – ৪৩

৫) জলপাইগুড়ি

নতুন করে আক্রান্ত – ৪৯৪

সুস্থ হলেন – ২৯৮

৬) উত্তর দিনাজপুর

নতুন করে আক্রান্ত – ২৮৯

সুস্থ হলেন – ২৮৯

৭) দক্ষিণ দিনাজপুর

নতুন করে আক্রান্ত – ১৭৪

সুস্থ হলেন – ২১৬

৮) মালদহ

নতুন করে আক্রান্ত – ৪৪৬

সুস্থ হলেন – ৫৭১

৯) মুর্শিদাবাদ

নতুন করে আক্রান্ত –৩৯৫

সুস্থ হলেন – ৩৭৯

১০) নদিয়া

নতুন করে আক্রান্ত – ৯৫২

সুস্থ হলেন – ১,০৪৮

১১) বীরভূম

নতুন করে আক্রান্ত – ৯০৫

সুস্থ হলেন – ৭০৪

১২) পশ্চিম বর্ধমান

নতুন করে আক্রান্ত – ৯৬৯

সুস্থ হলেন – ৯৭৬

১৩) পূর্ব বর্ধমান

নতুন করে আক্রান্ত – ৬৯৭

সুস্থ হলেন – ৭৬২

১৪) বাঁকুড়া

নতুন করে আক্রান্ত – ৪৩৪

সুস্থ হলেন – ২৯২

১৫) পুরুলিয়া

নতুন করে আক্রান্ত – ২১২

সুস্থ হলেন – ৪৩৩

১৬) পূর্ব মেদিনীপুর

নতুন করে আক্রান্ত – ৮৩৩

সুস্থ হলেন – ৭৩৩

১৭) পশ্চিম মেদিনীপুর

নতুন করে আক্রান্ত – ৯৯৩

সুস্থ হলেন – ৭২৭

১৮) ঝাড়গ্রাম

নতুন করে আক্রান্ত – ১৬০

সুস্থ হলেন – ১০৩

১৯) দক্ষিণ ২৪ পরগণা

নতুন করে আক্রান্ত – ১,২৩২

সুস্থ হলেন – ১,১০৬

২০) হুগলি

নতুন করে আক্রান্ত – ১,২৩৬

সুস্থ হলেন – ৯৪৯

২১) হাওড়া

নতুন করে আক্রান্ত – ১২৭৬

সুস্থ হলেন – ১,০৯৩

স্বস্তির খবর হল দৈনিক সংক্রমণের থেকে সুস্থতার সংখ্যা বেশি হওয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় সক্রিয় রোগী কমেছে দার্জিলিং, কালিম্পং, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর, মালদহ, নদিয়া, পুরুলিয়া, পশ্চিম বর্ধমান এবং পূর্ব বর্ধমান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.