ম্যানমেড বন্যা! হাঁটুজলে দাঁড়িয়ে দুর্গতদের পাশে থাকার আশ্বাস মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

0

খবর অনলাইন ডেস্ক: কয়েক দিনের লাগাতার বৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে দক্ষিণবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলায়। এর মধ্যে হাওড়া, হুগলি এবং পশ্চিম মেদিনীপুরের কিছু জায়গার পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। বুধবার হাওড়া, হুগলির পরিস্থিতি খতিয়ে দেখার কথা ছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee)।

এ দিন খানাকুল এবং উদয়নারায়ণপুরে যাওয়ার কথা ছিল। তবে সেখানে জল বেশি থাকায় আমতাতেই থেমে যায় মুখ্যমন্ত্রীর কনভয়। সেখানে হাঁটুজলে দাঁড়িয়ে দুর্গতদের সঙ্গে কথা বলছেন মমতা। তিনি বলেন, “নিজেদেরই সাবধানে থাকতে হবে। প্রাণহানি যাতে না হয়, তা দেখতে হবে। মানুষকে সাহায্য করার জন্য বাকি যে সাহায্য দরকার, তা সরকার করবে”।

ডিভিসির জল ছাড়ার ঘটনার সমালোচনা করে মমতা বলেন, “ডিভিসির কারণেই ম্যানমেড বন্যা। ডিভিসি ৫৪ হাজার কিউসেক জল ছাড়া হবে জানিয়ে দু’লক্ষ কিউসেক জল ছেড়়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার ডিভিসির সংস্কার করছে না বলেই এই সমস্যা। পলি জমে নাব্যতা নষ্ট হয়েছে ডিভিসির।”

আমতায় দাঁড়িয়ে মমতা জানান, জল কমলে তিনি খানাকুলে যাবেন। এখন জল বেশি থাকায় তিনি যেতে পারছেন না। দুর্গতদের আশ্বস্ত করে তিনি বলেন, আমতায় মুখ্যমন্ত্রী বললেন, “প্রশাসনকে বলব, বন্যার্তদের খাওয়া-দাওয়া, থাকার যেন কোনো সমস্যা না হয়”।

Shyamsundar

প্রসঙ্গত, এ দিনই হাওড়ার উদয়নারায়ণপুর এবং হুগলির খানাকুলে যাওয়ার কথা ছিল মুখ্যমন্ত্রীর। খানাকুলে তৈরি হয়েছিল হেলিপ্যাড-ও। কিন্তু বৃষ্টির কারণে তা হেলকপ্টার সফর বাতিল হয়। সড়কপথে হাওড়ার আমতায় পৌঁছান তিনি। আমতা থেকেই নবান্নে ফিরে আসেন। তবে জল কমলে তিনি ফের যাবেন বলে জানিয়েছেন।

আরও পড়তে পারেন: বন্যা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে বুধবার হাওড়া ও হুগলি যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন