দিলীপ এবং শুভেন্দু। প্রতীকী ছবি: ইন্ডিয়া টুডে/পিটিআই-এর সৌজন্যে

ডিসেম্বরেই সরকার ভাঙছে! দু’দিন আগে এমনই মন্তব্য করে জল্পনা উসকে দিয়েছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। শুক্রবার প্রায় একই ভবিষ্যদ্বাণী শোনা গেল রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)-র মন্তব্যে। ডিসেম্বরে এমন কী ঘটবে?

যা বলেছিলেন দিলীপ ঘোষ

গত বুধবার রামপুরহাটের সভা থেকে দিলীপ বলেন, “সিবিআইয়ের ভয়ে লুকিয়ে বেড়াচ্ছেন মন্ত্রীরা। এলাকা ছাড়া হচ্ছেন নেতারা। তা হলে সরকারটা চলাবে কে? ডিসেম্বর মাসের মধ্যে এই সরকারটা ভেঙে যাবে। শুধু মন্ত্রী, বিধায়কদের নয়, সেই সময় যে সমস্ত জেলা শাসক কিংবা পুলিশ সুপাররা ছিলেন তাদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা উচিত সিবিআইয়ের”।

সপ্তাহখানেক আগে, পশ্চিম মেদিনীপুরের দাঁতনের এক জনসভায় দিলীপ বলেছিলেন, “কোনো ভোটের জন্য নয়। ভোট চাইতে আসিনি। ভোট এখন নেই। হয়তো ডিসেম্বরের পরে বিধানসভা ভোটটা আবার হতেও পারে। দিদিমণির যদি বিসর্জন হয়ে যায় তখন ভোট চাইতে আসব”।

এখানেই শেষ নয়, বিতর্ক বাড়িয়ে তিনি আরও খোলসা করে বলেন, “ডিসেম্বর মাসে এই সরকার কার্যত আর থাকবে না। ২০২৪ সালে বিধানসভা ও লোকসভার নির্বাচন একসঙ্গে হবে। দেখতে থাকুন”।

যা বলছেন শুভেন্দু অধিকারী

এ দিন শিলিগুড়ির কাওয়াখালি পোড়াঝাড় ভূমি রক্ষা কমিটির আন্দোলনকারীদের সঙ্গে দেখা করেন বিরোধী দলনেতা। আন্দোলনকারীদের পাশে থাকার বার্তা দিয়ে তিনি বলেন, “আপনারা আন্দোলন চালিয়ে যান৷ চিন্তার কিছু নেই। এই সরকার ডিসেম্বরের মধ্যে পড়ে যাবে”।

জমি কেলেঙ্কারি কাণ্ডের প্রতিবাদে আন্দোলন চালাচ্ছে কাওয়াখালি পোড়াঝাড় ভূমি রক্ষা কমিটি। শিল্পপতি হর্ষ নেওটিয়ার সঙ্গে সরকারের যোগসাজশের কথা উল্লেখ করে শুভেন্দুর কাছে জমি কেলেঙ্কারি কাণ্ডে সিবিআই কিংবা ইডিকে দিয়ে ঘটনার তদন্ত করানোর দাবি জানান আন্দোলনকারীরা।

আরও পড়তে পারেন: 

২০২০ সাল থেকে উত্তরপ্রদেশের জেলে, সাংবাদিক এস কাপ্পানকে জামিন দিল সুপ্রিম কোর্ট

ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের জীবনাবসান, বয়স হয়েছিল ৯৬ বছর

শিখ পাগড়ির সঙ্গে হিজাবের তুলনা করবেন না, বলল সুপ্রিম কোর্ট

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন