Connect with us

রাজ্য

করোনা-আক্রান্তের সংখ্যায় কলকাতাকে পেছনে ফেলে দিল হায়দরাবাদ, বেঙ্গালুরু

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: কলকাতাবাসী কিছুটা স্বস্তি পেতে পারেন। কারণ করোনা-আক্রান্তের সংখ্যায় ইতিমধ্যেই শহরকে পেছনে ফেলে দিয়েছে এমন দু’টি শহর, যেখানে প্রথম দিকে করোনা-আক্রান্তের কার্যত খোঁজই পাওয়া যাচ্ছিল না। এদের মধ্যে একটি শহর তো আবার গোটা দেশের কাছে মডেলও হয়ে উঠেছিল।

এই দুই শহর হল বেঙ্গালুরু (Bengaluru) আর হায়দরাবাদ (Hyderabad)। গত কয়েক দিন ধরেই আক্রান্তের সংখ্যা বিপুল ভাবে বাড়ছে এই দুই শহরে। কিছু দিন আগেই কলকাতাকে পেছনে ফেলে দিয়েছিল হায়দরাবাদ। এ বার বেঙ্গালুরুরও পেছনে চলে গেল কলকাতা।

শনিবার সকালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী কলকাতায় মোট করোনা-আক্রান্ত রয়েছেন ৬,৬২২ জন। এদের মধ্যে অবশ্য সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪১৪২ জন। অর্থাৎ কলকাতায় এখন সুস্থতার হার ৬২.৫৪ শতাংশ।

Loading videos...

বেঙ্গালুরুর পরিস্থিতি

গত ২৪ ঘণ্টায় বেঙ্গালুরুতে নতুন করে ৯৯৪ জনের শরীরে করোনার হদিশ মিলেছে। ফলে এই শহরে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭,১৭৩-এ উঠে এসেছে। এখনও পর্যন্ত বেঙ্গালুরুতে করোনামুক্ত হয়েছেন ৭০০ জন।

উল্লেখ্য, প্রথম দিকে বেঙ্গালুরুতে করোনা-আক্রান্তের খোঁজই পাওয়া যায়নি কার্যত। গোটা দেশের কাছে বেঙ্গালুরু একটা মডেল হয়ে ওঠে। কিছু দিন আগেই শহরে মোট করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা এক হাজারের গণ্ডি অতিক্রম করে।

তার পর থেকে আর কার্যত কোনো লাগামই নেই। প্রায় রোজ ৮০০ থেকে ৯০০ জন করে মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন বেঙ্গালুরুতে। অন্য দিকে এখনও পর্যন্ত কলকাতায় দৈনিক করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা দু’শোর আশাপাশেই ঘোরাফেরা করছে।

উদ্বেগজনক হায়দরাবাদ

এ বার আসা যাক হায়দরাবাদের কথায়। বেঙ্গালুরুর ভাগ্যই হয়েছে হায়দরবাদের। গত কয়েক দিন ধরে দিনে হায়দরাবাদে গড়ে এক হাজার জন করে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছিলেন। কিন্তু গত ২৪ ঘণ্টায় সেই রেকর্ড ভেঙে খানখান হয়ে যায়। এক দিনে হায়দরাবাদে ১,৬৫৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ফলে এই শহরে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছে গিয়েছে ১৬,১৫৪-এ।

তেলঙ্গানার ক্ষেত্রে চিন্তার বিষয়টি হল এই রাজ্যে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা মারাত্মক কম। শনিবারই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ২০,৪৬২-তে পৌঁছে গিয়েছে। অথচ নমুনা পরীক্ষা হয়েছে মাত্র ১ লক্ষের কিছু বেশি। সেই দিকে পশ্চিমবঙ্গে নমুনা পরীক্ষা ৫ লক্ষ ২০ হাজারের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে।

কোন শহরে, কত আক্রান্ত?

উল্লেখ্য, শহর হিসেবে করোনা-আক্রান্তের নিরিখে এই মুহূর্তে সবার ওপরে রয়েছে দিল্লি (Delhi)। এর পর রয়েছে মুম্বই (Mumbai) আর চেন্নাই (Chennai)। এর পরেই এ বার হায়দরাবাদ আর বেঙ্গালুরু ঢুকে গিয়েছে। ষষ্ঠ স্থানে এখন রয়েছে ঠানে। ফলে বেঙ্গালুরু আর হায়দরাবাদের দৌলতে কলকাতা এখন সপ্তমে নেমে এসেছে।

তবে হরিয়ানার গুরুগ্রাম (Gurugram) আর ফরিদাবাদে (Faridabad) যে ভাবে দিন দিন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, তাতে কলকাতা আরও নীচে চলে এলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। আসলে করোনার এই দৌড়টা বড়োই অদ্ভুত। এই প্রতিযোগিতায় কেউ শীর্ষে থাকতে চায় না। যে যত নীচে থাকবে, তার তত বেশি স্বস্তি।

রাজ্য

শীত চলে যায়নি, ফিরবে বৃহস্পতিবার

ফের ১২-১৩ ডিগ্রিতে নামতে পারে কলকাতার তাপমাত্রা।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এক ধাক্কায় পাঁচ ডিগ্রির ‘লাফ’ দিল কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। শুধু কলকাতাই নয়, দক্ষিণবঙ্গের বাকি জায়গা, বিশেষত পশ্চিমাঞ্চলেও একই পরিস্থিতি। ফলে, বুধবার সকালের অবস্থা দেখে অনেকেই ভাবতে পারেন শীত এ বার বিদায় নিতে চলেছে।

কিন্তু না, শীত বিদায় এখনই নিচ্ছে না। বৃহস্পতিবারই সে ফিরবে। দাপট একটু কম থাকলেও, আপাতত ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত শীত বজায় থাকবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

বুধবার কোথায় কেমন পারদ

কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বুধবার ছিল ১৯.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শহরের উপকণ্ঠের ব্যারাকপুরে তাপমাত্রা ছিল ১৬ ডিগ্রি এবং দমদমে ১৭.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। উপকূলবর্তী দিঘায় তাপমাত্রা বেড়ে হয়েছে ২০.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ক্যানিং এবং ডায়মন্ড হারবারে তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে ১৯.৪ এবং ১৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

Loading videos...

পশ্চিমাঞ্চলেও তাপমাত্রা বেড়েছে। পানাগড়ে এ দিন তাপমাত্রা ছিল ১৩.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, আসানসোলে ১৪.৬, বাঁকুড়ায় তাপমাত্রা ছিল ১৬ ডিগ্রি, বর্ধমানে ১৬.৮ ডিগ্রি। তবে কিছুটা চমক দিয়েছে মধ্যবঙ্গের তাপমাত্রা। বহরমপুরে এ দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৯.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এ দিকে, উত্তরবঙ্গে তাপমাত্রা স্থিতিশীল রয়েছে। দার্জিলিংয়ে তাপমাত্রা এ দিন ৩.২ ডিগ্রি ছিল। শিলিগুড়ি, জলপাইগুড়ি, কোচবিহারে তাপমাত্রা ১১-১২ ডিগ্রির মধ্যে ঘোরাফেরা করেছে।

দক্ষিণবঙ্গে কেন বাড়ল পারদ

বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা জানাচ্ছে, বুধবার দক্ষিণবঙ্গের ওপরে একটি ঘূর্ণাবর্ত অবস্থান করছে। এই ঘূর্ণাবর্তের কারণে হাওয়ার গতিমুখ এক্কেবারেই উলটোপালটা হয়ে গিয়েছে দক্ষিণবঙ্গে। বর্তমানে এখানে তিন ধরনের হাওয়ার সংমিশ্রণ ঘটছে।

উত্তর ভারত থেকে আসা শীতল বাতাস, মধ্য ভারত থেকে আসা তুলনামূলক উষ্ণ বাতাস এবং সমুদ্র থেকে আসা জলীয় বাষ্পের সংমিশ্রণের ফলে পারদ এ ভাবে বেড়ে গিয়েছে দক্ষিণবঙ্গে। এর ফলেই এ দিন ভোরের দিকে কুয়াশাও পড়েছে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের কিছু জায়গায়।

তবে দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির কোনো সম্ভাবনা নেই। উত্তরবঙ্গে আগামী ২৪ ঘণ্টায় অল্পস্বল্প বৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়ার পরিবর্তন বৃহস্পতিবার

তবে বৃহস্পতিবার থেকেই আবহাওয়া ফের বদলে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। এই ব্যাপারে আশাবাদী ওয়েদার আল্টিমাও। তারা জানাচ্ছে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় এই ঘূর্ণাবর্তটি দক্ষিণপূর্ব সরে গিয়ে বাংলাদেশের দিকে চলে যাবে। ফলে ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবমুক্ত হবে দক্ষিণবঙ্গ।

সেই সঙ্গে, এই ঘূর্ণাবর্তটি উত্তর ভারতের শীতল বাতাসকে টেনে নিয়ে আসবে দক্ষিণবঙ্গের দিকে। এর ফলে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ফের শীতের অনুভূতি ফিরে আসতে পারে দক্ষিণবঙ্গে। আশা করা যায়, শুক্রবার সকালে কলকাতার তাপমাত্রা ফের ১২-১৩ ডিগ্রিতে নেমে যাবে।

তাপমাত্রায় ফেরফের চলতে থাকলেও ফেব্রুয়ারির অন্তত প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত শীত দক্ষিণবঙ্গে ভালো মতোই থাকবে, সে আশা করাই যাচ্ছে। মাঝে ফের একবার পারদ ১৬-১৭ ডিগ্রিতে উঠলেও, ফেব্রুয়ারির ১-২ তারিখে কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩ ডিগ্রি হলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

রবিবার পর্যন্ত করোনাহীন ছিল লাক্ষাদ্বীপ, পরের দু’ দিনে পজিটিভ ১৫

Continue Reading

জলপাইগুড়ি

পাথর বোঝাই ডাম্পারের তলায় চাপা পড়ল কনেযাত্রীদের গাড়ি, ধূপগুড়িতে নিহত ১৪

কনেযাত্রীদের গাড়িগুলো উল্টো লেন ধরে যাওয়ার ফলেই দুর্ঘটনার মুখে পড়ে

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: মর্মান্তিক ঘটনা ঘটল ধূপগুড়িতে। বৌভাতের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে পাথরবোঝাই ডাম্পারের নীচে চাপা পড়ে মৃত্যু হল ১৪ জনের। মৃতদের মধ্যে পুরুষ ও মহিলা ছাড়াও তিনটি শিশুও রয়েছে।

মৃতদের সকলের পরিচয় এখনও না জানা গেলেও যাঁদের পরিচয় জানা গিয়েছে তাঁরা ময়নাগুড়ির চূড়াভাণ্ডার, রানিরহাট মোড় এবং মালবাজারের ডামডিম এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাত ৯টা নাগাদ তিনটি ছোটো গাড়ি করে ধূপগুড়ির ময়নাতলি এলাকায় বৌভাতের অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলেন কনেপক্ষের আত্মীয়রা। রাস্তা ফাঁকা থাকায় উল্টো দিকের লেন ধরেই গাড়িগুলো যাচ্ছিল। সে সময় সঠিক লেন ধরেই উল্টো দিক থেকে ১০ চাকার একটি পাথরবোঝাই ডাম্পার ময়নাগুড়ির দিকে যাচ্ছিল।

Loading videos...

জলঢাকা সেতুর কাছে কনেযাত্রীদের একটি গাড়ির সঙ্গে মুখোমুখি ধাক্কা লাগে ডাম্পারটির। ফলে সেটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডিভাইডারে উঠে কাত হয়ে যায়। সে সময় পাশ কাটিয়ে কনেযাত্রীদের বাকি দুটো গাড়ি যাওয়ার চেষ্টা করতেই ডাম্পারটি গাড়ি দুটোর উপর উল্টে যায়। যাত্রীসমেত ডাম্পারের তলায় চাপা পড়ে যায় গাড়ি দু’টো। ঘটনাস্থলেই তিন শিশু-সহ ১২ জনের মৃত্যু হয়। হাসপাতালের পথে আরও ২ জনের মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে চলে আসেন ধূপগুড়ি থানার আইসি। উদ্ধারকাজের জন্য নিয়ে আসা হয় বেশ কয়েকটি ক্রেন। আরও পুলিশবাহিনী আসে। স্থানীয়রাও উদ্ধারকাজে হাত লাগান। ক্রেনে দিয়ে ডাম্পারটিকে তোলার পর পাথর সরিয়ে আহতদের উদ্ধারের চেষ্টা করা হয়। আহতদের প্রথমে ধূপগুড়ি হাসপাতালে এবং পরে জলপাইগুড়ি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, ডাম্পারের সামনে একটি লরি ছিল। যেটা খুব আস্তে যাচ্ছিল। লরিটিকে ওভারটেক করার চেষ্টা করেন ডাম্পারের চালক। সে সময়েই উল্টো লেন ধরে আসা কনেযাত্রীর একটি গাড়ির সঙ্গে মুখোমুখি ধাক্কা লাগে ডাম্পারটির।  

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে জলপাইগুড়ি পুলিশ সুপার প্রদীপ কুমার যাদব, এস ডি ও এবং ধূপগুড়ির বিধায়ক মিতালি রায় হাসপাতালে যান। আহতদের শারীরিক অবস্থার খোঁজ নেন পুলিশ সুপার। দুর্ঘটনায় আহত এবং নিহতদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। 

পুলিশ সুপার বলেন, “দুর্ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে সকলের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। পুলিশ খোঁজখবর নিচ্ছে। ডাম্পারের চালককে গ্রেফতার করা হয়েছে।” তিনি আরও বলেন, “আহতদের মধ্যে ৫ জন ধূপগুড়ি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এবং ১১ জন জলপাইগুড়ি জেলার সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। ময়নাতদন্তের জন্য বুধবার মৃতদেহগুলি জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতালে পাঠানো হবে।”

প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানতে পেরেছে, কনেযাত্রীদের গাড়িগুলো উল্টো লেন ধরে যাওয়ার ফলেই দুর্ঘটনার মুখে পড়ে। দুর্ঘটনার জেরে এশিয়ান হাইওয়ে ৪৮-এ দীর্ঘক্ষণ গাড়ি চলাচল বন্ধ ছিল। রাত ৯টা থেকে রাত ১টা পর্যন্ত উদ্ধার কাজ চলে। রাত ২টোর পর রাস্তা স্বাভাবিক হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

৩০ হাজার টেস্টে আক্রান্ত চারশোর কিছু বেশি, রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার নামল দেড় শতাংশেরও নীচে

Continue Reading

দঃ ২৪ পরগনা

বিজেপির সভায় ভাঙচুর, সরগরম জয়নগর

বিজেপির অভিযোগ, পালটা অভিযোগ তৃণমূলের। দুই দলই প্রতিবাদ জানাতে করল মিছিল!

Published

on

দৃশ্যটা এক বার দেখুন। ছবি: প্রতিবেদক

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, জয়নগর: আর কিছু দিন পর বিধানসভার ভোট। আর এখন থেকেই বিভিন্ন জায়গায় শুরু হয়ে গেছে রাজনৈতিক সংঘর্ষ। মঙ্গলবার বিকালে জয়নগর থানার দক্ষিণ বারাশত মগরাহাট মোড়ে বিজেপির এক পথসভায় দুষ্কৃতীদের হামলা চালায় বলে অভিযোগ উঠল।

মঞ্চ, চেয়ার, মাইক ভাঙচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ বিজেপির। আর এই ঘটনার পরে দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে জয়নগর দক্ষিণ বারাশত রোড অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখালেন বিজেপি কর্মীরা। এই অবরোধ তুলতে গেলে বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ল জয়নগর থানার পুলিশ।

বিজেপির অভিযোগ

বিজেপির বারুইপুর পূর্ব জেলার প্রাক্তন সভাপতি দেবতোষ আচার্য ও বর্তমান সভাপতি সুনীপ দাস বলেন, “পুলিশের অনুমতি নিয়ে আমাদের কর্মীরা এ দিন মঙ্গলবার দক্ষিণ বারাশতে একটি পথসভার আয়োজন করে। সভা শুরুর কিছু আগে তৃণমূল আশ্রিত একদল দুষ্কৃতীরা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে আমাদের সভা বানচাল করার জন্য ভাঙচুর চালাল। মঞ্চ ভাঙা, চেয়ার, মাইক ভাঙা থেকে শুরু করে মোবাইল কেড়ে নেয়”।

Loading videos...

এ দিনের ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, “আমরা এই ঘটনার প্রতিবাদ জানাই, ধিক্কার জানাই। ওদের পায়ের তলায় মাটি হারিয়ে যাচ্ছে বলে ওরা এই ভাবে হামলা চালাল। তাই দোষীদের শাস্তির দাবিতে আমরা পথ অবরোধ করেছি”।

তৃণমূলের পাল্টা অভিযোগ

বিজেপির তোলা এই সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন জয়নগর-১ নম্বর ব্লক তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি তুহিন বিশ্বাস। তিনি বলেন, “এই এলাকার বিজেপির ৮-৯ টা গোষ্ঠী আছে। নিজেদের গোষ্ঠী কোন্দলে এই ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এর সঙ্গে তৃণমূলের কেউ জড়িত নেই। সরকারি প্রকল্পের কাজ নিয়ে আমরা এখন মানুষের পাশে থেকে পরিষেবা দিচ্ছি”।

তবে বিজেপির তোলা মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে তৃণমূলও সন্ধ্যায় দক্ষিণ বারাশতে একটি পথ মিছিল বার করে। অভিযোগ ও পালটা অভিযোগে এখন সরগরম তাই দক্ষিণ বারাশত এলাকা। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

আরও পড়তে পারেন: বাংলাকে ধমকালে মুখে লিউকোপ্লাস্ট দিয়ে আটকে দেব: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
election commission of india
রাজ্য1 day ago

বুধবার রাজ্যে আসছে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ

দেশ2 days ago

মহারাষ্ট্র-কেরলে সংক্রমিত ৮০৮৬ বাকি দেশে মাত্র ৫০৭২, ২৩ মে’র পর সব থেকে কম দৈনিক মৃত্যু ভারতে

রাজ্য2 days ago

দক্ষিণবঙ্গে দু’ দিনের জন্য তাপমাত্রা বাড়লেও ফের ফিরবে শীত, উত্তরের পাহাড়ে তুষারপাতের সম্ভাবনা

ফুটবল2 days ago

এগিয়ে থেকেও ড্র করে পয়েন্ট খোয়াল এটিকে মোহনবাগান

দেশ2 days ago

মাত্র ১৮ শতাংশ ভারতীয় হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার চালিয়ে যেতে পারেন, ৩৬ শতাংশ কমিয়ে দেবেন ব্যবহার: সমীক্ষা

ঘরদোর3 days ago

এই ৭টি মিথ্যে বাঁচিয়ে দিতে পারে আপনার সম্পর্কটি

শরীরস্বাস্থ্য2 days ago

হার্ট অ্যাটাকের পূর্ব লক্ষণগুলি জেনে নিন

দেশ2 days ago

শনিবার নিয়েছিলেন টিকা, রবিবার উত্তরপ্রদেশে মৃত্যু স্বাস্থ্যকর্মীর

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 hours ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা2 days ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

কেনাকাটা1 week ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

কেনাকাটা2 weeks ago

কয়েকটি ফোল্ডিং আইটেম খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি সঙ্গে থাকলে অনেক সুবিধে হত বলে মনে হয়, কিন্তু সব সময় তা পাওয়া...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের কাজ এগুলি সহজ করে দেবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের কাজ অনেক বেশি সহজ করে দিতে পারে যে সমস্ত জিনিস, তারই কয়েকটির খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 weeks ago

ম্যাক্সিড্রেসের নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সুন্দর ম্যাক্সিড্রেসের চাহিদা এখন তুঙ্গে। সামনেই কোনো আনন্দ অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ থাকলে ম্যাক্সি পরতে পারেন। বাছাই করা কয়েকটি ড্রেসের...

কেনাকাটা2 weeks ago

রকমারি ডিজাইনের ৯টি পুঁটলি ব্যাগের কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুমে নিমন্ত্রণে যেতে সাজের সঙ্গে মিলিয়ে ব্যাগ নেওয়ার চল রয়েছে। অনেকেই ডিজাইনার ব্যাগ পছন্দ করেন। তেমনই কয়েকটি...

কেনাকাটা2 weeks ago

কস্টিউম জুয়েলারির দারুণ কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুম আসছে। নিমন্ত্রণবাড়ি তো লেগেই থাকে। সেখানে আজকাল সোনার গয়নার থেকে কস্টিউম বা জাঙ্ক জুয়েলারি পরে যাওয়ার...

কেনাকাটা3 weeks ago

রুম হিটারের কালেকশন, ৬৫০ থেকে শুরু

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভালোই শীত চলছে। এই সময় রুম হিটারের প্রয়োজনীয়তা খুবই। তা সে ঘরের জন্যই হোক বা অফিস, বা কোথাও...

কেনাকাটা3 weeks ago

চোখের যত্ন নিতে কিনুন এগুলি, খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অনেকেই আছেন সারা দিনের ব্যস্ততার মাঝে যদিও বা পা, হাত বা মুখের টুকটাক যত্ন নেন, কিন্তু চোখের বিশেষ...

নজরে