ডেলো টুরিস্ট লজ।

কালিম্পং: দার্জিলিং, কালিম্পং জেলা এবং সিকিম, নো ফ্লাইং জোন। কিন্তু তা সত্ত্বেও দিনের পর দিন ডেলোতে প্যারাগ্লাইডিং চলছিল। এমনই অভিযোগ করলেন জিটিএ-এর প্রশাসনিক বোর্ডের চেয়ারম্যান বিনয় তামাং।

কালিম্পঙে স্থানীয় প্রশাসন এবং প্যারাগ্লাইডিং অ্যাসোসিয়েশনের বৈঠকের পরে বিনয় বলেন, “কালিম্পং, দার্জিলিং ও সিকিম নো-ফ্লাইং জোন। এই এলাকায় প্যারাগ্লাইডিংয়ের জন্য বাগডোগরা এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের অনুমতির প্রয়োজন।”

গত শনিবার কালিম্পংয়ে প্যারাগ্লাইডিং করার সময় দুর্ঘটনায় এক জনের মৃত্যু হয়। গুরুতর জখম হন এক পর্যটক। প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ ও পরিকাঠামো ছাড়াই অ্যাডভেঞ্চার টুরিজমের নামে কালিম্পঙে প্যারাগ্লাইডিং চলছিল বলে অভিযোগ। বিনয় বলেন, “এর আগে দার্জিলিং ও  কালিম্পং জেলা  প্রশাসন এবং প্যারাগ্লাইডিং অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে সেনা কর্তাদের বৈঠক হয়। সেই বৈঠকের পর জিটিএকে চিঠি দিয়ে সেনা জানায়, কালিম্পং, দার্জিলিং ও  সিকিমে  নো-ফ্লাইং জোনে রয়েছে। তাই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বিনা অনুমতিতে প্যারাগ্লাইডিং করা যাবে না।”

আরও পড়ুন পর্যটক নিয়ে গেলে ফিরতে হচ্ছে খালি হাতে, সিকিমের বিরুদ্ধে হেনস্থার অভিযোগ দার্জিলিংয়ের গাড়িচালকদের

তবে বিনয় জানান, অ্যাডভেঞ্চার টুরিজমের স্বার্থে নয়া নির্দেশিকা তৈরি  করে প্যারাগ্লাইডিংয়ের লাইসেন্স দেওয়া হবে। কিন্তু এত দিন কোনো নিয়মের তয়াক্কা না করে কী ভাবে প্রশাসনের চোখের সামনে এই প্যারাগ্লাইডিং হচ্ছিল, সেই প্রশ্ন থেকেই যায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here