Connect with us

বীরভূম

বেহাল রাস্তার কথা জানিয়ে প্রশাসনকে লাগাতার চিঠি দিয়ে চলেছেন বীরভূমের বিধায়ক মিল্টন রশিদ

মানুষের সমস্যার কথা তুলে ধরেই প্রশাসনের কাছে লাগাতার চিঠি দিয়ে চলেছেন হাসনের কংগ্রেস বিধায়ক মিল্টন রসিদ।

Published

on

Miltan rasid

বীরভূম: রাস্তার বেহাল অবস্থা। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, বড়ো বড়ো গর্তে বৃষ্টির জল জমে যানবাহন থেকে শুরু সাধারণ মানুষ চলাচলে সমস্যা। এমন পরিস্থিতিতে এই দুর্দশার কথা তুলে ধরেই প্রশাসনের কাছে লাগাতার চিঠি দিয়ে চলেছেন হাসনের কংগ্রেস বিধায়ক মিল্টন রশিদ।

সপ্তাহ দুয়েক আগে মোড়গ্রামে জাতীয় সড়কের দুরবস্থার কথা জানিয়ে জেলাশাসককে চিঠি লিখেছিলেন বিধায়ক এবং আইনজীবী মিল্টনসাহেব। তিনি জানিয়েছিলেন, ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কের বীরভূমের উত্তরপ্রান্ত নলহাটি থেকে মোডগ্রাম পর্যন্ত জাতীয় সড়কের অবস্থা করুণ। পূর্ব বর্ধমানের পানাগড় থেকে বীরভূমের প্রবেশপথ ইলামবাজার হয়ে দুবরাজপুর, সিউড়ি, মহম্মদবাজার, রামপুরহাট হয়ে মুর্শিদাবাদ জেলার দিকে চলে গিয়েছে এই জাতীয় সড়ক।

বৃহস্পতিবার ফের নলহাটি-২ ব্লকের বিডিও-কে চিঠি দিলেন মিল্টনসাহেব। লিখেছেন, “দীর্ঘদিন ধরে লক্ষ্য করে আসছি, লোহাপুর নিচুবাজার থেকে কুমারসান্ডা, শালিসান্ডা হয়ে মোড়গ্রাম সাঁখো বাজার পর্যন্ত রাস্তার অবস্থা প্রচণ্ড খারাপ। রাস্তা দিয়ে চলাচল করা যাচ্ছে না”।

Loading videos...

এ ব্যাপারে যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন বিধায়ক। তবে এর আগে জেলাশাসকের কাছে রাস্তার বেহার অবস্থার কথা তুলে ধরলেও কোনো রকমের পদক্ষেপের ইঙ্গিত নেই বলেই তিনি জানান।

তাঁর কথায়, “মানুষ নিজেদের সমস্যার কথা বিধায়কের কাছে জানাচ্ছেন। সেই সমস্যার কথা আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। কিন্তু তাদের কোনো হেলদোল নেই। সদিচ্ছা আছে বলেও মনে হচ্ছে না”।

তবে শুধু বীরভূম নয়, বর্ষায় রাস্তার বেহাল দশা নিয়ে জেলায় জেলায় প্রতিবাদে নেমেছেন সাধারণ মানুষ। সেই প্রসঙ্গেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জরুরি চিঠি দিয়েছেন বিধানসভায় বাম পরিষদীয় দলের নেতা সুজন চক্রবর্তী। বিস্তারিত দেখুন এখানে: রাস্তার বেহাল দশা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে জরুরি চিঠি সুজন চক্রবর্তীর

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দীপাবলি-কালীপুজো

মুর্শিদাবাদ ও বীরভুমে রাজা রামজীবন রায়ের উত্তরপুরুষদের এখন ১৯টি কালীপুজো

যে গাছের নীচে যে ঠাকুরের প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল, সেই গাছের নামানুসারে সেই কালীর নাম রাখা হয়েছে।

Published

on

ষষ্ঠী কালী।

শুভদীপ রায় চৌধুরী

বীরভূম জেলার ঢেকার মহারাজ রামজীবন রায়ের রায় ও রায়চৌধুরী বাড়ির পূজোর বিশেষত্ব হল একই রাজপরিবারে ১৯টি কালীপুজো। সেই কালীপুজো অবশ্য ছড়িয়ে আছে দুটি জেলায়। আর সেই কালীপুজোকে কেন্দ্র করে মেতে ওঠে প্রাক্তন রাজবংশ এবং পার্শ্ববর্তী সব গ্রাম।

জানা যায়, এই কালীপুজোর সূচনা করেন রাজা রামজীবন রায় (১৬৪০-১৭০৮ খ্রিস্টাব্দ) আজ থেকে প্রায় সাড়ে তিনশো বছর আগে। এই মহারাজ রামজীবনই তারাপীঠের মা তারা ও কলেশ্বরের শিবমন্দিরের প্রতিষ্ঠাতা। তাঁর রাজত্বকালে একটা রাজবাড়িতে একটিই কালীপুজো হত। সারা রাজবাড়ি আলোয় ঝলমল করত।

Loading videos...
কুল কালী।

কালীপুজো উপলক্ষ্যে সমস্ত ধর্মের মানুষ নিমন্ত্রিত হত রাজবাড়িতে। পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন জায়গার প্রজারা গান শুনিয়ে, নাচ দেখিয়ে রাজাদের খুশি করে উপহার নিয়ে বাড়ি ফিরত। রাজা রামজীবনও ছিলেন প্রজাবৎসল। প্রজাদের মঙ্গল কামনায় তিনি ছাগ, মেষ ও মহিষ বলি দিতেন।

কিন্তু কালের নিয়মে ভাগ হয়েছে রাজবংশ, বেড়েছে কালীর সংখ্যা। প্রথমে এই রাজপরিবার ‘রায় রাজপরিবার’ নামে পরিচিত ছিল। পরে রাজা রামজীবন রায়ের বংশধরেরা প্রজাহিতৈষী কাজ করে ও জমিদারি বৃদ্ধি করে বাংলার তৎকালীন নবাব আলিবর্দি খাঁয়ের কাছ থেকে ‘চৌধুরী’ উপাধি লাভ করেন। সেই থেকেই এই রাজপরিবার ‘রায়চৌধুরী রাজপরিবার’ নামে পরিচিত হয়।

মহারাজ রামজীবনের জ্যেষ্ঠ পুত্র রাজা ভগবতীচরণ রায়ের বংশ বর্তমানে মুর্শিদাবাদের এড়োয়ালি গ্রামে ১৩টি কালী, দ্বিতীয় পুত্র রাজা রামভদ্র রায়ের এক বংশ বীরভূমের ন’পাড়াতে ১টি কালী এবং আরও একটি বংশ মুর্শিদাবাদের মাজিয়ারাতে ১টি কালী এবং তৃতীয় ও কনিষ্ঠ পুত্র যথাক্রমে রাজা কেশব ও রাজা রামচন্দ্র রায়ের বংশ বীরভূমের হাতিয়া গ্রামে ৪টি কালীপুজোর সূচনা করেন। এগুলি রায়/রায়চৌধুরী রাজবাড়ির পুজো নামেই খ্যাত। তবে কালীপূজো ও দুর্গাপুজোর সময় রাজা ভগবতীচরণ রায়ের বংশের বাড়িতেই অর্থাৎ মুর্শিদাবাদের এড়োয়ালি গ্রামেই বেশি ধুমধাম হয়।

চাতর কালী।

রাজা রামজীবনের জ্যেষ্ঠ পুত্রের পুত্র রাজা জয়সিংহ ও রাজা রঘুনাথ রায়। রাজা জয়সিংহের দুই পুত্র রাজা দেবদত্ত রায়চৌধুরী, রাজা ইন্দ্রমণি রায়চৌধুরী এবং রাজা রঘুনাথের এক পুত্র রাজা শ্যামসুন্দর রায়চৌধুরী। এঁদের বংশ যথাক্রমে বড়োপাঁচানি, ছোটোপাঁচানি, ছয়ানি রাজপরিবার নামে পরিচিত।

বড়োপাঁচানিতে পাঁচটি কালী – ধর্ম/ষষ্ঠী, বেল, কুল, টুংগী এবং শ্যামরুপী। ছয়ানি রাজপরিবারের চারটি কালী – বড়মা, মঠ, নিম ও চাতরবুড়ি। ছোটোপাঁচানি রাজপরিবারে চারটি কালী – ধর্ম/ষষ্ঠী, মোল, আমড়া এবং বেল (এই বেল কালীটিতে শুধু ঘটপুজো করা হয়)। ধর্মকালী তথা ষষ্ঠীকালীকে বড়োপাঁচানি ও  ছোটোপাঁচানি রাজপরিবার পালা করে চালায়।

জানা যায্‌ দশানির ষষ্ঠী ও ছয়ানির চাতরকালী প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল নায়েব ও গোমস্তাদের মঙ্গলকামনার জন্য। পুজোর খরচ দুই রাজবাড়ির রাজকোষ থেকেই দেওয়া হত। বেশির ভাগ কালীকেই ‘বুড়ি’ বলেই ডাকা হয়।

টুংগী কালী।

জানা যায়, যে গাছের নীচে যে ঠাকুরের প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল, সেই গাছের নামানুসারে সেই কালীর নাম রাখা হয়েছে। বড়োপাঁচানির বেল, ছোটোপাঁচানির মোল এবং ছয়ানির মঠকালীতে পঞ্চমুণ্ডীর আসন বিদ্যমান। বড়োপাঁচানির বেলকালীতে ব্যাঘ্রচর্মের আসনে বসে পুরোহিত পুজো করেন। এই বেলকালী এবং মঠকালীতে কারণ অর্থাৎ মদ দিয়ে ঘট ভরা হয়।

জানা যায়, বড়োপাঁচানির রাজা চন্দ্রকান্ত রায়চৌধুরী বেলকালীকে পুজো করার জন্য সাধক বামাখ্যাপাকে অনুরোধ করে আনতেন। এবং ছয়ানির রাজা কার্তিক রায়চৌধুরীও তাঁকে এনে একবার মঠকালীতে পুজো করিয়েছিলেন।

কালের নিয়মে রাজারা গিয়েছেন, গিয়েছে তাঁদের রাজ্যপাট। শুধু ফেলে গিয়েছেন তাঁদের শুরু করা পুজো ও তা চালানোর জন্য প্রাক্তন রাজবংশ। রাজা রামজীবন রায়ের প্রতিষ্ঠিত কালীপুজোর জৌলুস আজও একই ভাবে বজায় রেখেছেন ‘রায়/রায়চৌধুরী রাজপরিবারের’ সদস্যরা। এই পুজো দেখতে আজও ভিড় জমান বিভিন্ন জেলার মানুষ।

খবরঅনলাইনে আরও পড়ুন

গোপীনাথ মুখোপাধ্যায়ের পুথি দেখে মা কালীর পুজো হয় শান্তিপুরের চাঁদুনিবাড়িতে

Continue Reading

বীরভূম

মল্লারপুরে নাবালকের মৃত্যুতে রাজনৈতিক উত্তাপ, বন্‌ধের ডাক

মৃতকে দলীয় কর্মী হিসেবে দাবি করে আগামী শনিবার ১২ ঘণ্টার মল্লারপুর বন্‌ধের ডাক দিল বিজেপি।

Published

on

বীরভূম: চুরির অভিযোগে ধৃত এক নাবালকের পুলিশ হেফাজতে মৃত্যুকে ঘিরে উত্তেজনা ছড়িয়েছে বীরভূমের মল্লারপুরে। মৃতকে দলীয় কর্মী হিসেবে দাবি করে আগামী শনিবার ১২ ঘণ্টার মল্লারপুর বন্‌ধের ডাক দিল বিজেপি।

পরিবারের দাবি:

মল্লারপুরের রেলপাড়ে বাড়ি থানায় মৃত শুভ মেহনার। পরিবারের দাবি, সপ্তমীর রাতে মোবাইল চুরির মিথ্যে অভিযোগে তাঁকে পুলিশ ধরে নিয়ে যায়। শুক্রবার জানা যায়, পুলিশ হেফাজতে মৃত্যু হয়েছে শুভর। পরিবারের অভিযোগ, লকআপে থাকা শুভকে পিটিয়ে মেরেছে পুলিশ। দোষীদের শাস্তি চায় পরিবার।

পুলিশের দাবি:

লকআপে পিটিয়ে মারার অভিযোগ অস্বীকার করেছে পুলিশ। তাদের দাবি, পুলিশকর্মীরা কোনো ভাবেই শুভকে নিগ্রহ করেননি। লকআপে থাকাকালীন গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন শুভ। থানার শৌচাগার থেকে মৃতদেহ উদ্ধার হয়। মৃতদেহের ময়নাতদন্ত হচ্ছে। বিভাগীয় তদন্ত করা হবে।

Loading videos...

বিজেপির দাবি:

মৃত শুভ বিজেপি কর্মী। পুলিশ তাঁকে থানায় নিয়ে গিয়ে পিটিয়ে মেরেছে। আগামী শনিবার ১২ ঘণ্টার মল্লারপুর বন্‌ধের ডাক দেওয়া হয়েছে। সন্ধ্যায় মল্লারপুর যাচ্ছেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। তাঁর অভিযোগ, পুলিশ এবং তৃণমূলকর্মীরা মৃতের বাবা-মাকে অপহরণ করেছেন।

তৃণমূলের দাবি:

থানার লকআপে মৃত্যু নিন্দনীয়। এর সঙ্গে কোনো রাজনৈতিক যোগ নেই। এই ঘটনায় তদন্ত চাই। বীরভূমের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “মা-বাবা বলেছেন, আমরা কোনো দিন বিজেপি করিনি। মৃত বিজেপি কর্মী অথবা তাঁকে পুলিশ পিটিয়ে মেরেছে, এগুলো বিজেপির কথা। পুলিশকে নিজেদের বক্তব্য জানিয়েছেন মৃতের বাবা-মা। বিজেপি এখানে দালালি করতে আসছে”?

বর্তমান পরিস্থিতি

আজ সকালে শুভর বাড়িতে মৃত্যু সংবাদ পাঠায় পুলিশ। তদন্তের দাবিতে মল্লারপুর থানায় বিক্ষোভ দেখায় স্থানীয় বাসিন্দাদের। রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়েও চলে বিক্ষোভ। বিক্ষোভকারীদের দাবি, নাবালক হওয়া সত্ত্বেও নিজেদের হেফাজতে কেন নিল পুলিশ?

পুলিশ এসে ঘটনার তদন্তের আশ্বাস দিলে তারা বিক্ষোভ তুলে নেন। আরও পড়ুন এখানে: বীরভূমের মল্লারপুরে পুলিশ হেফাজতে নাবালকের মৃত্যু, জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

Continue Reading

বীরভূম

বীরভূমের মল্লারপুরে পুলিশ হেফাজতে নাবালকের মৃত্যু, জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

Published

on

মল্লারপুরে বিক্ষোভ
বিক্ষোভ চলছে। ছবি সৌজন্যে এবিপি আনন্দ

বীরভূম : চুরির অভিযোগে ধৃত এক নাবালকের পুলিশ হেফাজতে মৃত্যুকে ঘিরে উত্তেজনা ছড়ালো বীরভূমের মল্লারপুরে। পুলিশ মারেই মৃত্যু হয়েছে নাবালকের এই অভিযোগে, থানা ঘিরে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয় বাসিন্দারা। পরে ৬০ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করেন তারা।

জানা গিয়েছে, ২০ অক্টোবর একটি বাড়িতে চুরির অভিযোগ বৃহস্পতিবার মল্লারপুর থানার পুলিশ ১৫ বছরের ওই কিশোরকে জুভেনাইল ধারায় গ্রেফতার করে।

পুলিশের দাবি, ওই রাতে সে শৌচাগারে যায়। বেশ কিছুক্ষণ পর শৌচাগার থেকে তার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করা হয়।

Loading videos...

এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই এলাকা জুড়ে উত্তেজনা তৈরি হয়। ধৃতকে পিটিয়ে মারা হয়েছে বলে তার প্রতিবেশীরা থানা ঘেরাও করে। এর পর তারা ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। পুলিশ এসে ঘটনার তদন্তের আশ্বাস দিলে তারা বিক্ষোভ তুলে নেন।

বীরভূমের পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, এই ঘটনায় ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্ত চেয়ে রামপুরহাট মহকুমা আদালতে আবেদন জানান হয়েছে।

খবর অনলাইনে আরও পড়ুন

কোভিডরোগীদের জন্য মারণ হতে পারে বাজির ধোঁয়া, ঠেকাতে ফের আদালতে যাওয়ার প্রস্তুতি

দরিদ্র দেশগুলির জন্য কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন বিমা প্রকল্পের পরিকল্পনা ‘হু’-র

Continue Reading
Advertisement
ফুটবল4 hours ago

এ বারের আইএসএল-এ দ্রুততম গোল, জামশেদপুরকে হারিয়ে ৩ পয়েন্ট ঘরে তুলল চেন্নাই

কেনাকাটা4 hours ago

ঘর সাজানোর জন্য সস্তার নজরকাড়া আইটেম

অনুষ্ঠান4 hours ago

জগদ্ধাত্রী পুজোয় করোনা যোদ্ধাদের সম্মান জানাল খড়গপুরের গ্রিনস্টার

রাজ্য9 hours ago

একদিনে দু’ হাজার টেস্ট বাড়লেও রাজ্যে আরও কমল নতুন সংক্রমণ, মৃত্যুও ৫০-এর কম

দেশ9 hours ago

করোনা ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে সতর্কতা নরেন্দ্র মোদীর

দেশ10 hours ago

‘লভ জিহাদ’ রুখতে অধ্যাদেশ অনুমোদন করল উত্তরপ্রদেশ

দঃ ২৪ পরগনা10 hours ago

কৈলাস বিজয়বর্গীয়র ‘হরি বোল’, এক গুচ্ছ প্রতিশ্রুতি

virat kohli
ক্রিকেট11 hours ago

দশকের সেরা ক্রিকেটার হওয়ার দৌড়ে বিরাট কোহলি ও আরও এক ভারতীয়

কেনাকাটা

কেনাকাটা4 hours ago

ঘর সাজানোর জন্য সস্তার নজরকাড়া আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরকে একঘেয়ে দেখতে অনেকেরই ভালো লাগে না। তাই আসবারপত্র ঘুরিয়ে ফিরে রেখে ঘরের ভোলবদলের চেষ্টা অনেকেই করেন।...

কেনাকাটা4 days ago

লিভিংরুমকে নতুন করে দেবে এই দ্রব্যগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরের একঘেয়েমি কাটাতে ও সৌন্দর্য বাড়াতে ডিজাইনার আলোর জুড়ি মেলা ভার। অ্যামাজন থেকে তেমনই কয়েকটি হাল ফ্যাশনের...

কেনাকাটা6 days ago

কয়েকটি প্রয়োজনীয় জিনিস, দাম একদম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: কাজের সময় হাতের কাছে এই জিনিসগুলি থাকলে অনেক খাটুনি কমে যায়। কাজও অনেক কম সময়ের মধ্যে করে...

কেনাকাটা3 weeks ago

দীপাবলি-ভাইফোঁটাতে উপহার কী দেবেন? দেখতে পারেন এই নতুন আইটেমগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই কালীপুজো, ভাইফোঁটা। প্রিয় জন বা ভাইবোনকে উপহার দিতে হবে। কিন্তু কী দেবেন তা ভেবে পাচ্ছেন...

কেনাকাটা4 weeks ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসছে আলোর উৎসব। কালীপুজো। প্রত্যেকেই নিজের বাড়িকে সুন্দর করে সাজায় নানান রকমের আলো দিয়ে। চাহিদার কথা মাথায় রেখে...

কেনাকাটা2 months ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা2 months ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

নজরে