Connect with us

বীরভূম

কমছে সংক্রমণের হার, তারাপীঠ মন্দির ফের খোলার সিদ্ধান্ত

তবে করোনার প্রভাব যে হেতু রয়েছে তাই প্রচুর নিয়মবিধি পালন করতে হবে, যাদের মধ্যে অন্যতম শারীরিক দূরত্ববিধি বজায় রাখা।

Published

on

tarapith temple
ব্যবসা মার খাচ্ছে, প্রভাব পড়ছে তারাপীঠের অর্থনীতিতে, এটা কোভিডের থেকেও ভয়াবহ।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রাজ্যে দিন দিন বাড়ছে কোভিড (Covid 19) আক্রান্তের সংখ্যা। কিন্তু দৈনিক সংক্রমণের হার কমার একটা প্রবণতা দেখা যাচ্ছে গত কয়েক দিন ধরে। এই পরিস্থিতিতেই এ বার তারাপীঠ মন্দির (Tarapith Temple) ভক্তদের জন্য পুনরায় খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল।  

শনিবার বৈঠকে বসেন সেবায়েত সংঘের সদস্যরা। এই বৈঠকের পর সাংবাদিক সম্মেলনে জানানো হয়, ২৪ আগস্ট সোমবার থেকে ভক্তদের জন্য খুলে দেওয়া হবে তারাপীঠ মন্দিরের দরজা।

Loading videos...

করোনাভাইরাসের (Coronavirus) জেরে দু’ দফায় প্রায় পাঁচ মাস বন্ধ ছিল তারাপীঠ মন্দির। জুলাই মাসের মাঝামাঝি কয়েক দিনের জন্য মন্দির খুললেও, সংক্রমণ বাড়তে থাকায় ফের তা বন্ধ করে দেওয়া হয়। কিন্তু দীর্ঘদিন মন্দির বন্ধ থাকার ফলে ব্যাবসা মার খাচ্ছিল। মাথায় হাত উঠে গিয়েছিল স্থানীয় বাসিন্দাদের।

তারাপীঠে বর্তমানে পাঁচশোর বেশি হোটেল, লজ, গেস্টহাউস রয়েছে। মন্দির সংলগ্ন পূজা-সামগ্রীর দোকান প্রায় দু’শটি এবং পাণ্ডা, সেবায়েত মিলে প্রায় তিনশো পরিবার মন্দিরের সঙ্গে সরাসরি যুক্ত। এ ছাড়া রেস্তোরাঁ, অটো, টোটো, ছোটো গাড়ি-সহ অন্যান্য গণপরিবহন তো রয়েছেই। মন্দিরে ভক্তসমাগমের ওপরেই এই সমস্ত মানুষজনের রুজিরুটি নির্ভর করে।

মানুষের চেনা ভিড় উধাও হয়ে যাওয়ায় তারাপীঠের অর্থনৈতিক শিরদাঁড়াটাই কার্যত বেঁকে গিয়েছিল। সেবায়েত ও মন্দিরের সঙ্গে যুক্ত মানুষজনের জীবনেও আর্থিক অনটনের ছায়া বড়ো হচ্ছিল। এই পরিস্থিতি তো কোভিডের থেকেও ভয়ংকর। কেউ অসুস্থ হলে চিকিৎসায় কয়েক দিনের মধ্যেই সেরে উঠবে, কিন্তু অর্থনীতি এক্কেবারে ভেঙে পড়লে তাকে সঠিক লাইনে নিয়ে আসতে যে কত বছর সময়ে লাগবে, তার কোনো হিসেবই নেই।

এই অবস্থার মধ্যেই তারাপীঠের স্থানীয় মানুষের জন্য সুখবর। সোমবার থেকে আগের মতোই পুরোনো নিয়ম মেনে পুজো দিতে পারবেন ভক্তরা। তবে করোনার প্রভাব যে হেতু রয়েছে তাই প্রচুর নিয়মবিধি পালন করতে হবে, যাদের মধ্যে অন্যতম শারীরিক দূরত্ববিধি বজায় রাখা।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

পুজোর আগে পাহাড়ে পর্যটন চালু করতে চাইছে জিটিএ

বীরভূম

জেল হেফাজতে টোটোচালকের রহস্য মৃত্যুর তদন্ত এবং পরিবারকে আর্থিক ক্ষতিপূরণের দাবি জোরালো হচ্ছে বীরভূমে

বৃদ্ধ বাবা-মা, স্ত্রী এবং দুই শিশুকন্যাকে নিয়ে টোটো চালিয়ে কোনো রকমের সংসার চলত মৃত যুবকের!

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: রামপুরহাটে জেল হেফাজতে মৃত প্রভাত মণ্ডলের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ এবং মৃত্যুরহস্যের তদন্তের দাবিতে জেলা শাসকের দফতরে স্মারকলিপি জমা দিল বিধায়ক মিল্টন রশিদের নেতৃত্বে এক প্রতিনিধি দল।

ঘটনায় প্রকাশ, বীরভূমের তারাপীঠ থানার কড়কড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা প্রভাত। গত বছরের ডিসেম্বর মাসের শেষের দিকে মল্লারপুর পুলিশ তাঁকে মাদক সংক্রান্ত মামলায় গ্রেফতার করেছিল। এর পর রামপুরহাট মহকুমা আদালত তাঁর জেল হেফাজতের নির্দেশ দেয়।

Loading videos...

মৃত প্রভাসের পরিবারের দাবি, ১৪ ফেব্রুয়ারি রাতে ফোন করে জানানো হয়, জেলে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। কিন্তু কী ভাবে মৃত্যু হল, সে ব্যাপারে কিছু জানানো হয়নি।

জানা গিয়েছে, বৃদ্ধ বাবা-মা, স্ত্রী এবং দুই শিশুকন্যাকে নিয়ে টোটো চালিয়ে কোনো রকমের সংসার চলত প্রভাতের।

বিধায়ক মিল্টন রশিদ বলেন, “তাঁর বাড়িতে এখন খাওয়ার মতো এক কেজি চালও নেই। পশ্চিমবঙ্গ সরকার এবং বীরভূম জেলা প্রশাসনের কাজকর্ম অবাক করার মতোই। এত দিন হয়ে গেল, অথচ কেন্দ্র, রাজ্য সরকারের কোনো প্রতিনিধি মৃতের বাড়িতে গিয়ে তাঁর পরিবারকে সমবেদনা জানালেন না। রামপুরহাট জেলা প্রশাসন মারফত আমি মুখ্যমন্ত্রীর কাছেও আবেদন জানিয়েছিলাম, এই রহস্যজনক মৃত্যুর অবিলম্বে তদন্ত করা হোক। পাশাপাশি মৃতের পরিবারকে যেন আর্থিক ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়। সরকারের কাছ থেকে কোনো সদুত্তর না পেয়ে আজ বীরভূম জেলাশাসকের কাছে আমরা স্মারকলিপি জমা দিলাম”।

তিনি আরও বলেন, “অন্য মৃত্যুর ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসন অথবা রাজনৈতিক নেতারা ক্ষতিপূরণ অথবা টাকাপয়সা নিয়ে পৌঁছে যান। কিন্তু তারাপীঠের এই যুবকের ক্ষেত্রে দেখা গেল না”।

আরও পড়তে পারেন: ‘ভূমিপুত্র’ প্রার্থী চাই, প্রকাশ্যে বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব

Continue Reading

বীরভূম

বীরভূমে কড়িধ্যা গ্রামের নন্দীবাড়ির সরস্বতী পদ্মাসনা, পাশে জয়া ও বিজয়া

আনুমানিক অষ্টাদশ শতাব্দীর শেষের দিকে সীতানাথ নন্দী বীরভূমের দুবরাজপুর থেকে চলে আসেন কুড়িধ্যা গ্রামে এবং সেই সময় থেকে তিনি শুরু করেন মা সরস্বতীর পুজো।

Published

on

শুভদীপ রায় চৌধুরী

আগামী কাল সরস্বতীপুজো, বাঙালির ঘরে ঘরে মা সরস্বতীর আরাধনা। আপামর ভক্তসমাজ মেতে উঠবেন বাগদেবীর আরাধনায়। ব্যতিক্রম নয় বীরভূম জেলার কড়িধ্যা গ্রামও।

Loading videos...

কড়িধ্যা গ্রামের একটু পরিচয় দেওয়া যাক। তিনশো বছরের প্রাচীন এই গ্রাম। গ্রামে রয়েছে প্রচুর মন্দির, তার মধ্যে সংখ্যায় সব চেয়ে বেশি শিবমন্দির। এই সব মন্দিরের বেশির ভাগ অবশ্য ভগ্নপ্রায় অবস্থায় রয়েছে। সামান্য কিছু মন্দির রয়েছে অক্ষত।

কিন্তু কেন এত শিবমন্দির কড়িধ্যায়? তিনশো বছর আগে মারাঠা বর্গীরা যখন রাজনগর আক্রমণ করে তখন তাদের যাওয়ার পথ ছিল এই কড়িধ্যা দিয়ে। বর্গীরা যে পথ দিয়ে যেত, সেই পথের আশেপাশের সমস্ত গ্রাম তারা আক্রমণ করত, লুটপাট চালাত। কড়িধ্যার গ্রামবাসীরা শুনেছিলেন, এই মারাঠারা শৈব সম্প্রদায়ভুক্ত। তাই তাদের হাত থেকে নিজেদের জিনিসপত্র রক্ষা করার জন্য তাঁরা বহুসংখ্যক শিবমন্দির নির্মাণ করেন। ওই সব মন্দিরের ভেতরে জিনিসপত্র লুকিয়ে রাখা হয়।

কড়িধ্যায় প্রাচীন কাল থেকেই নানা পুজোপার্বণ অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। তার মধ্যে অন্যতম সরস্বতীপুজো। অতীতে কড়িধ্যা গ্রামে সেন বংশের জমিদারি ছিল। আর সেন পরিবারের পাশাপাশি এই গ্রামে বসবাস করেন নন্দী বংশের সদস্যরাও। আনুমানিক অষ্টাদশ শতাব্দীর শেষের দিকে সীতানাথ নন্দী বীরভূমের দুবরাজপুর থেকে চলে আসেন কড়িধ্যা গ্রামে এবং সেই সময় থেকে তিনি শুরু করেন মা সরস্বতীর পুজো। তখনকার দিনে সীতানাথ নন্দী ছিলেন বীরভূম জেলার অন্যতম উচ্চশিক্ষিত মানুষ। তাঁর কাছে বহু পড়ুয়া আসত শিক্ষা গ্রহণের জন্য। সেই থেকে নন্দীবাড়ির কুলদেবী হন মা সরস্বতী।

নন্দীবাড়ির প্রতিমায় কিছু বিশেষত্ব রয়েছে। এখানে দেবী পদ্মাসনা এবং তাঁর পাশে রয়েছেন জয়া এবং বিজয়া। একচালার সাবেকি প্রতিমা নানা পারিবারিক গহনায় সাজানো হয়।

পুজোর দিন সকালে বাড়ি সংলগ্ন পুকুর থেকে দেবীর ঘটের জল আনা হয় এবং তার পর শুরু হয় পুজো। পুকুরের জল আনার সঙ্গে সঙ্গে লাটাইয়ের সুতো ছাড়তে ছাড়তে মন্দির পর্যন্ত সুতো নিয়ে আসা হয় – এ এক বিশেষ প্রথা নন্দীবাড়ির। দেবীকে নানা রকমের ফল, মিষ্টি ইত্যাদি ভোগ দেওয়া হয়। সরস্বতীপুজোয় ঢাকিরা  বংশপরম্পরায় ঢাক বাজিয়ে আসছেন নন্দীবাড়িতে।

সরস্বতীপুজোর দিন দুপুরে সাধারণত নিরামিষ খাবার খাওয়া হয়, কিন্তু নন্দীবাড়িতে পুজোর পর দুপুরবেলায় ভাত-মাছ খাওয়ার রীতি রয়েছে। পুজোর দিন সন্ধ্যাবেলায় আরতির সময় রুপোর থালায় লুচিভোগ ও মিষ্টি নিবেদন করা হয় এবং ১০৮টি প্রদীপ জ্বালানো হয়।

মুকুরী সপ্তমীর দিন চণ্ডীপাঠ হয় এবং বারি-ঘট বিসর্জনের মাধ্যমে পুজোর সমাপ্তি ঘটে। সেই দিন দই-চিঁড়ে নিবেদন করা হয়, সিঁদুরখেলা হয় এবং বিকালে গোটা গ্রাম প্রদক্ষিণ করে প্রতিমা বিসর্জন হয়।

এ বছর করোনা ভাইরাসের কারণে প্রসাদ বিতরণ বন্ধ থাকবে এবং বিসর্জনে গ্রাম প্রদক্ষিণের যে প্রথা রয়েছে সেটাও বন্ধ থাকছে বলে জানিয়েছেন পরিবারের সদস্য সৌরভ নন্দী। প্রশাসনের সমস্ত রকম নিয়ম মেনেই পুজো হবে। বাইরের দর্শনার্থীদের প্রবেশ এ বছর বন্ধ রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন: বাহন ছাড়াই বীণাপাণির আরাধনা হয় উত্তর কলকাতার বটকৃষ্ণ পালের বাড়িতে

Continue Reading

বীরভূম

কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে বীরভূমে ‘চাক্কা জ্যাম’ বাম-কংগ্রেসের

বীরভূমের রামপুরহাটে ‘চাক্কা জ্যাম’ কর্মসূচি পালন করল বাম-কংগ্রেস।

Published

on

বীরভূম: কৃষি আইনের (Agriculture laws) বিরুদ্ধে বিক্ষোভরত কৃষকরা শনিবার দেশ জুড়ে তিন ঘণ্টার ‘চাক্কা জ্যাম’ (Chakka Jam) কর্মসূচি পালন করলেন। বীরভূমের রামপুরহাটে একই ধরনের কর্মসূচি পালন করল বাম-কংগ্রেস।

বেলা ১২টা থেকে ৩টে পর্যন্ত দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ড বাদে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পথ অবরোধ করেন বিক্ষোভরত কৃষকরা। বীরভূমেও জেলা কংগ্রেস সভাপতি মিল্টন রশিদ এবং সিপিএম-সহ বামফ্রন্টের অন্যান্য দলের নেতৃত্বের উপস্থিতি বিশাল মিছিল করে পথ অবরোধ করা হয়।

Loading videos...

এ দিনের কর্মসূচি নিয়ে হাসনের কংগ্রেস বিধায়ক মিল্টন রশিদ (Miltan Rashid) বলেন, “আমরা আজ রামপুরহাটের বিভিন্ন রাস্তা অবরোধ করি। কৃষকদের উপর যে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস নেমে এসেছে, তার প্রতিবাদে এবং কেন্দ্রের বিতর্কিত তিনটি কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে আমাদের লড়াই চলবে”।

তাঁর দাবি, অন্নদাতাদের স্বার্থে এই আন্দোলন চলছে। তাঁদের উপর কেন গুলি চলল, তার জবাব দিতে হবে বিজেপিকে।

এ দিনের মিছিল থেকে ‘কৃষি বিরোধী কালা কানুন জ্বালিয়ে দাও, পুড়িয়ে দাও’, ‘কৃষক আন্দোলনের উপর অত্যাচার হচ্ছে কেন বিজেপি সরকার জবাব দাও’ ইত্যাদি স্লোগান ওঠে। তবে এ দিনের কর্মসূচি ঘিরে সংলগ্ন এলাকায় কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি বলেই জানা গিয়েছে।

আরও পড়তে পারেন: ‘আইন বাতিল না হওয়া পর্যন্ত বাড়ি ফিরব না’, সময়সীমা বেঁধে দিলেন কৃষকরা

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
রাজ্য2 hours ago

‘ময়দানে মিটিং চলছে আর আমি গৃহবন্দি’, তীব্র আক্ষেপ বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের

Covid situation kolkata
রাজ্য4 hours ago

কলকাতা-সহ গোটা রাজ্যেই কমল সংক্রমণ, চার জেলা নতুন সংক্রমণহীন

রাজ্য5 hours ago

ভোটের দিন ঘোষণা হতেই এডিজি আইনশৃঙ্খলাপদ থেকে অপসারিত জাভেদ শামিম

রাজ্য5 hours ago

বিজেপি ক্ষমতায় এলে রাজ্যে এক দফায় ভোট: দিলীপ ঘোষ

রাজ্য5 hours ago

দক্ষিণবঙ্গে ক্রমশ বাড়ছে গরম, কলকাতায় তাপমাত্রা ছুঁল ৩৬ ডিগ্রি

দেশ6 hours ago

বেসরকারি হাসপাতালে কোভিড ভ্যাকসিনের দাম বেঁধে দিল কেন্দ্র

দঃ ২৪ পরগনা7 hours ago

পানীয় জলের দাবিতে পথ অবরোধ, ভোট বয়কটের ডাক

দেশ8 hours ago

নয়া প্রজাতি নয়, দেশে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য দায়ী ‘সুপার স্প্রেডাররা’, দাবি বিশেষজ্ঞদের

দেশ1 day ago

পশ্চিমবঙ্গে ৮ দফায় ভোট, কলকাতায় ভোট ২৬ ও ২৯ এপ্রিল

ম্যানহোলে শ্রমিকের মৃত্যু
কলকাতা2 days ago

শুধু দড়ি বেঁধে ম্যানহোলের কাজ করতে নেমে কুঁদঘাটে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, মৃত ৪ শ্রমিক

প্রযুক্তি2 days ago

সোশ্যাল, ডিজিটাল মিডিয়া নিয়ন্ত্রণে কড়া পদক্ষেপ কেন্দ্রের

প্রযুক্তি2 days ago

আরবিআই-এর নতুন নির্দেশিকা, ঝক্কি বাড়বে ডেবিট, ক্রেডিট কার্ড লেনদেনে!

election commission of india
দেশ2 days ago

শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গ-সহ ৫ রাজ্যের ভোটের দিনক্ষণ প্রকাশ করবে নির্বাচন কমিশন

দঃ ২৪ পরগনা2 days ago

‘ভূমিপুত্র’ প্রার্থী চাই, প্রকাশ্যে বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব

দেশ3 days ago

বাড়ছে উদ্বেগ! করোনায় নতুন করে আক্রান্ত ১৬ হাজারের বেশি

দেশ3 days ago

মহারাষ্ট্রে অব্যাহত করোনার দাপট, ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত প্রায় ৯ হাজার!

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 weeks ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা3 weeks ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা1 month ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা1 month ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা1 month ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা1 month ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা1 month ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা1 month ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা1 month ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

কেনাকাটা2 months ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

নজরে