‘কবজিটা ভেঙে যেতে পারে মারার আগেই’, বিজেপি রাজ্য সভাপতিকে পাল্টা অনুব্রত মণ্ডল

0
অনুব্রত মণ্ডল। ফাইল ছবি

কলকাতা: বিজেপির রাজ্য নেতাদের বীরভূম জেলা সফর ঘিরে হুমকি, কটাক্ষে ফের চড়েছে রাজনীতির পারদ। সমান তালে দৌড়োচ্ছে তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের বিতর্কিত মন্তব্যও।

শুক্রবার কাটোয়ায় বিজেপির কর্মিসভা ঘিরে বিশৃঙ্খলার ছবি সামনে এসেছে। সেই প্রসঙ্গের রেশ ধরে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার বলেন, “মার খেয়ে নয়, মার দিয়ে কেস খান, দল কর্মীদের পাশে থাকবে”।

বিজেপি নেতাদের বরাবরের অভিযোগ, তাঁদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে তৃণমূল নেতৃত্বের কথা শুনে পুলিশ ‘মিথ্যে’ মামলা করছে। এমন অভিযোগ থেকেই বিজেপি রাজ্য সভাপতি সাংবাদিকদের সামনে এ কথা বলেন। নাম না করেই সেই মন্তব্যেরই পালটা জবাব দিয়েছেন অনুব্রত মণ্ডলও।

তৃণমূলকে হুমকির পালটা বিজেপিকে একহাত নিয়ে অনুব্রতর হুঁশিয়ারি, “বিজেপি হাত কিংবা লাঠি দিয়ে মারবে। কিন্তু মারার আগেই যদি হাতের কবজিটা ভেঙে যায় তখন কীভাবে মারবে? কবজিটা ভেঙে যেতে পারে মারার আগেই। তৃণমূলকে ভয় দেখিয়ে কোনো লাভ নেই”।

শুক্রবার লাভপুরের ফুল্লরা সিনেমাহলে লাভপুর ব্লক তৃণমূলের বিজয়া সম্মেলনী ছিল। সেখানে উপস্থিত ছিলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল, লাভপুরের বিধায়ক অভিজিৎ সিংহ, বোলপুরের সাংসদ অসিত মাল, তরুণ চক্রবর্তী, মান্নান হোসেন-সহ ব্লকের বিভিন্ন পঞ্চায়েতর নেতা এবং সদস্যরা। ওই অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েই অনুব্রত বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারকে ‘ছাগল’ বলে কটাক্ষ করেন।

সুকান্তকে বিঁধে অনুব্রত আরও বলেন, “এর কথা যে বিশ্বাস করবে তার অকালে মৃত্যু হবে”।

আরও পড়তে পারেন: 

এক সপ্তাহের মধ্যে রাজ্যে সংক্রমণ বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ, কাঠগড়ায় পুজোর সময় কোভিডবিধি লঙ্ঘন

বাড়ল টেস্ট, রাজ্যে স্বস্তি দিয়ে কমল সংক্রমণের হার

‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’ প্রকল্প নিয়ে বড়ো ঘোষণা, ফর্ম ফিল আপের নিয়ম আরও সহজ করল রাজ্য সরকার

৬ বছর ধরে নিখোঁজ বৃদ্ধাকে ঘরে ফেরাল জয়নগর

হোয়াটসঅ্যাপ চ্য়াট যদি সত্যিই ‘এন্ড টু এন্ড এনক্রিপ্ট’ করা হয় তা হলে বলিউডের চ্যাট কী ভাবে ফাঁস হয়ে যায়

অতিরিক্ত চিন্তা ফেলতে পারে বড়ো বিপদে, জানুন কী ভাবে মুক্তি পাবেন

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন