ভারতী ঘোষ। ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: একাধিক নতুন মুখকে দলের কেন্দ্রীয় কমিটিতে ঠাঁই দিল বিজেপি। বিজেপির জাতীয় মুখপাত্র করা হয়েছে ভারতী ঘোষকে। রবিবার বিজেপি সাধারণ সম্পাদক অরুণ সিংহের জারি করা বিবৃতিতে তেমনটাই জানানো হয়েছে।

বিবৃতি অনুযায়ী, মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মন্ত্রী এবং সিনিয়র নেতা বিনোদ তাওড়েকে দলের সাধারণ সম্পাদক নিযুক্ত করেছেন বিজেপি সভাপতি জেপি নড্ডা। এ ছাড়া বিহারের ঋতুরাজ সিনহা এবং ঝাড়খণ্ডের আশা লাকড়াকে জাতীয় সম্পাদক করা হয়েছে। একই সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের ভারতী ঘোষ এবং প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা শাহজাদ পুনাওয়ালাকে করা হয়েছে জাতীয় মুখপাত্র।

গত ২০১৮ সালের বিজেপিতে যোগ দেন প্রাক্তন আইপিএস ভারতী ঘোষ। ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটে তিনি পদ্মপ্রতীকে প্রার্থী হন। সে বার তাঁকে ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রে প্রার্থী করে বিজেপি। ২০২১ সালে বিধানসভা ভোটে তিনি ডেবরা কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হন। এই কেন্দ্র থেকে তিনি হুমায়ুন কবীরের কাছে হেরে যান।

দু’টো ভোটে টিকিট পেয়ে পরাজিত হলেও ভারতীকে এ বার বড়ো পদ দিল বিজেপি। স্বাভাবিক ভাবেই ভারতীয় এই পদপ্রাপ্তির ঘটনা রাজ্য বিজেপি-র অন্দরে রীতিমতো সাড়া ফেলেছে। দলের নতুন দায়িত্ব পেয়ে ভারতী জানিয়েছেন, শীর্ষ নেতৃত্বের পরামর্শ নিয়ে যথাযথ ভাবে নতুন কাজে ঝাঁপিয়ে পড়বেন।

রাজনৈতিক মহলের মতে, সামনে পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোট। পাখির চোখ করে এখন থেকেই রণকৌশল সাজাচ্ছে বিজেপি। ফলে শুধু পশ্চিমবঙ্গই নয়, এ রাজ্যের পাশাপাশি ভোট হতে যাওয়া রাজ্যগুলোতেও সংগঠনের হয়ে কর্মসূচিতে অংশ নিতে দেখা যেতে পারে ভারতীকে।

আরও পড়তে পারেন:

শেষমেশ সায়নী ঘোষকে গ্রেফতার করল ত্রিপুরা পুলিশ

ক্যানিংয়ের তৃণমূল যুব নেতা খুনে ধৃত ৯

তৃণমূলে যোগ দিলেন বিষপানকারী সেই ৫ শিক্ষিকা

সায়নী ঘোষ থানায় ঢুকতেই ইটবৃষ্টি, গাড়ি ভাঙচুর, বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ

ত্রিপুরায় তৃণমূল নেতাদের হোটেলে হানা, বিনা নোটিশে সায়নী ঘোষকে থানায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা পুলিশের

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন