ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: সকাল থেকেই টানটান উত্তেজনার পর দিনের শেষে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে জয়ী হলেন বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিং। তৃণমূল প্রার্থী তথা ওই কেন্দ্রের বিদায়ী সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদীকে ১১ হাজারেরও বেশি ভোটে হারিয়ে ব্যারাকপুর থেকে সংসদে যাচ্ছেন প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক অর্জুন।

এ দিন ভোটগণনার শুরু থেকেই চরম হাড্ডাহাড্ডি চলেছে দীনেশ বনাম অর্জুনের। সাপ-লুডোর খেলার মতোই কখনও এগিয়েছেন দীনেশ, আবার কখনও উঠেছে অর্জুন। কিন্তু লক্ষ্যভেদ করে সাফল্যের শেষ হাসিটা হাসলেন অর্জুনই।

ভাটপাড়া তৎসংলগ্ন এলাকায় দোর্দণ্ডপ্রতাপ তৃণমূল নেতা হিসাবে পরিচিত অর্জুন ভোটের কয়েক সপ্তাহ আগেই যোগ দিয়েছিলেন বিজেপিতে। এর পরই ব্যারাকপুর থেকে লোকসভার টিকিট পাওয়া এবং সংসদে যাওয়ার ছাড়পত্র হাসিল করে নেওয়া। একই সঙ্গে ছেলে পবনকেও তিনি বিজেপির টিকিটে জিতিয়ে নিয়ে এসেছেন ভাটপাড়া বিধানসভার উপনির্বাচন থেকেও।

বিজেপির প্রার্থী হতেই অর্জুনকে উদ্দেশ্য করে কটাক্ষ করেছিলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ দিন জয় হাসিল করে নিয়ে নিজের যোগ্যতা প্রমাণের পাশাপাশি পুরনো দলকে বার্তাও দিয়ে রাখলেন অর্জুন। তাঁকে সাংসদ নির্বাচিত করার জন্য ব্যারাকপুরবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, “আমাকে পুলিশ আর গুন্ডা দিয়ে হেনস্থা করে ভয় দেখানো হয়েছে। নিজেরা হাঙ্গামা বাঁধিয়ে আমার বদনাম করা হয়েছে”।

একই সঙ্গে মমতার উদ্দেশে নাম ধরেই তিনি বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বড়ো নেত্রী, সে বিষয়ে সন্দেহ নেই। তবে অন্যের চোখ দিয়ে পশ্চিমবঙ্গকে দেখছেন বলেই যা হওয়ার, সেটাই হচ্ছে”।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here