kailash vijayvargiya
শান্তিপুরে ঢুকতে গিয়ে বাধা পান মুকুল রায় ও কৈলাশ বিজয়বর্গীয়

ওয়েবডেস্ক: শান্তিপুর বিষমদ কাণ্ডের তরজা পুরোমাত্রায় অব্যাহত। বিষমদ খেয়ে ১২ জনের মৃত্যুর ঘটনার পর বিরোধীদের নিশানায় রাজ্য প্রশাসন। তবে এ বার দোষারোপ আর পাল্টা-দোষারোপের পালায় জুড়ে গেল ব্যক্তিগত আক্রমণও।

শুক্রবার শান্তিপুরে গিয়ে মৃতদের পরিবার পিছু দু’লক্ষ টাকার আর্থিক অনুদানের চেক তুলে দেন রাজ্যের মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তাঁর সঙ্গে ছিলেন জেলার তৃণমূল নেতা তথা রাজ্যের কারামন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস। এ দিন তাঁরা শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে অসুস্থদের সঙ্গে দেখা করে হাসপাতাল সুপারের সঙ্গেও কথা বলেন। তবে বিজেপির প্রতিনিধি দলকে আটকে দেওয়া হয় শহরে ঢোকার মুখেই।

Shantipur
কালো পতাকার বিক্ষোভ

বিজেপি নেতা মুকুল রায় এবং কৈলাশ বিজয়বর্গীয়-সহ উচ্চনেতৃত্ব যখন শহরে ঢুকতে যান, তখন এক দল মানুষ তাঁদের উদ্দেশে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। এমনকী তাঁদের কারো কারো হাতে ছিল কালো পতাকা। এ ব্যাপারে বিজেপি নেতৃত্ব দাবি করেন, তাঁদের এলাকায় ঢুকতে না-দেওয়ার জন্যই তৃণমূল কংগ্রেস পরিকল্পনা মাফিক এই কর্মসূচি নিয়েছে।

আরও পড়ুন: বিষমদ কাণ্ড: শান্তিপুরে বিক্ষোভের মুখে মুকুল রায়-কৈলাশ বিজয়বর্গীয়, কালো পতাকা

এ দিন ঘটনাস্থলে  গো ব্যাক স্লোগান ওঠার পর সেখানে দাঁড়িয়েই তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন কৈলাশ। তিনি সংবাদ মাধ্যমের কাছে বলেন, “সরকারি মদ বিক্রির টাকা যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে। আর বেআইনি মদ বিক্রির টাকা যায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘরে। এই মৃত্যুর সম্পূর্ণ দায় নিতে হবে তাঁদেরই”।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here