খবর অনলাইন ডেস্ক: জীবনে প্রথম বার বিধায়ক হিসেবে শপথ নিয়েছেন পোড়খাওয়া বিজেপি নেতা মুকুল রায়। তবে শুক্রবার বিধানসভায় শপথ নেওয়ার পরে ‘মৌন’ থাকার তিনি তাৎপর্যপূর্ণ সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন, যা বলার পরে ডেকে সবাইকে বলব। তার পর থেকেই তাঁকে ঘিরে তৃণমূলে ফেরার জল্পনা ছড়ায়। এ দিন অবশ্য নিজের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ আরও এক বার স্পষ্ট করে দিলেন মুকুল।

শুক্রবার বিধানসভায় অধিবেশন কক্ষে তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সীর সঙ্গে বেশ কিছু ক্ষণ কথা বলেন মুকুল। এর পরই বিজেপির পরিষদীয় দলের বৈঠকে তাঁর অনুপস্থিতি জল্পনা আরও জোরালো হয়েছিল। রাজ্য-রাজনীতিতে ঘুরে বেড়িয়েছে একটাই প্রশ্ন- মুকুল কি তবে তৃণমূলে ফিরে যেতে পারেন?

Loading videos...

মুকুল এ দিন স্পষ্টতই জানিয়ে দেন, রাজ্য-রাজনীতিতে তাঁকে নিয়ে যে জল্পনা চলছে, তা মোটেই সঠিক নয়। তিনি থাকছেন বিজেপিতেই। শনিবার তিনি টুইটারে লেখেন, “রাজ্যে গণতন্ত্র ফেরাতে বিজেপির সৈনিক হিসেবে আমার লড়াই চলবে। আমি সকলকে কল্পনা আর অনুমান বন্ধ করার অনুরোধ করছি। আমার রাজনৈতিক পথ নিয়ে সংকল্পে অবিচল আমি”।

তবে এই প্রথম নয়, তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর একাধিক বার তাঁর প্রত্যাবর্তনের খবর চাউর হয়েছে। যদিও এখনও পর্যন্ত তা বাস্তবায়িত হয়নি।

প্রসঙ্গত, ২০০১ সালে শেষ বার বিধানসভা ভোটে প্রার্থী হয়েছিলেন তৃণমূলের প্রতীকে। মাঝে রাজ্যসভার সাংসদ এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করলেও বিধায়ক হননি কখনোই। এ বারই প্রথম নদিয়ার কৃষ্ণনগর উত্তর কেন্দ্রে পদ্মপ্রতীকে জয়ী হয়ে বিধানসভায় প্রবেশ। তবে অনেক প্রত্যাশা জাগিয়েও বিজেপি নবান্নের ক্ষমতা দখল থেকে দূরে রয়ে যাওয়ায় নানা রকমের জল্পনা চলছেই!

আরও পড়তে পারেন: ডবল ইঞ্জিনের সরকার হয়নি, তৃণমূল ডবল সেঞ্চুরি করেছে, বিধানসভায় বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.