Connect with us

রাজ্য

৩-০, সংখ্যার ফারাক না হলেও মুকুল রায়ের ভবিষ্যদ্বাণীতে জল ঢালল তৃণমূল!

mukul roy

ওয়েবডেস্ক: রাজ্যের তিন বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে দখলে থাকা খড়গপুর সদর আসনটিও ধরে রাখতে পারল না বিজেপি। গত লোকসভা নির্বাচনের নিরিখে কালিয়াগঞ্জ এবং খড়গপুর সদরে এগিয়ে ছিল গেরুয়া শিবির। কিন্তু বৃহস্পতিবার প্রকাশিত ফলাফলে তার কোনো চিহ্নই ধরা পড়ল না। এ ব্যাপারে বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের মন্তব্য, উপনির্বাচনের ফলাফল দিয়ে সাধারণ নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নেওয়া যায় না।

তিনটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শেষ হতেই মুকুল দাবি করেছিলেন, “আমরা এ বারও ক্লিন সুইপ করব। তিন কেন্দ্রেই জিতব আমরা। বিজেপি ৩, তৃণমূল ০”। একই সঙ্গে তিনি বিজেপি প্রার্থীদের জয়ের ব্যবধান নিয়েও পরিসংখ্যান পেশ করেন। তিনি বলেন, খড়গপুর সদরে বিজেপি জিতবে ২০ হাজার ভোটে। কালিয়াগঞ্জে ৩০ হাজার ভোটের জিতবেন তাঁরা। একই ভাবে করিমপুরে ৮-১০ হাজার ভোটে জিতবেন বিজেপি প্রার্থী জয়প্রকাশ মজুমদার।

মুকুল এ দিন বলেন, “কোনো উপনির্বাচনের ফলাফল দিয়ে সাধারণ নির্বাচন নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া যায় না। উত্তরপ্রদেশে উপনির্বাচনে সমাজবাদী পার্টি জিতেছিল। কিন্তু সাধারণ নির্বাচনে বিজেপি-ই জয়লাভ করে। এটা আমি নিশ্চিত করে বলতে পারি, ২০২১ রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের পর বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে সরকার গড়বে”।

মুকুলের এহেন মন্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “মুকুল রায় কী বলছেন, তা শুনে প্রতিক্রিয়া দেওয়ার কিছু নেই। উনি নিজের রাজনৈতিক জীবনে মাত্র একবার ভোটে লড়েছিলেন। আমরা সবাই জিতে গেলেও উনি ৩০-৪০ হাজার ভোটে হেরে যান”।

৩টি কেন্দ্রের কোথায়, কে কত ভোটে জিতলেন? পড়ুন এখানে ক্লিক করে

কটাক্ষের সুরে পার্থ বলেন, “নানা রকমের ড্রেস পরে প্রচার করেছিলেন। সবই নজরে রেখেছি। উনি কী বললেন, তাতে কিছু এসে-যায় না। সারা দেশ জুড়ে বিজেপির মুখোশ খসে পড়েছে। বেকারত্ব, কর্মহীনতার সঙ্গে মানুষকে এনআরসি দিয়ে ভয় দেখানো হচ্ছে”।

রাজ্য

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে, তিন জেলায় নেই কোনো কনটেনমেন্ট জোন

লকডাউন হচ্ছে না দুর্গাপুর, আসানসোলে।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটা থেকে রাজ্যের কনটেনমেন্ট জোনগুলিতে কড়া লকডাউন (Lockdown) শুরু হয়ে গিয়েছে। সেই লকডাউন বিধি ওই সব এলাকার মানুষ কতটা মানছেন, সেটা শুক্রবার সকাল থেকেই বোঝা যাবে। তবে এরই মধ্যে স্বস্তির খবর হল যে রাজ্যের তিন জেলায় কোনো কনটেনমেন্ট জোন নেই। অর্থাৎ সেখানে কোনো লকডাউন হচ্ছে না।

লকডাউন নেই রাজ্যের অন্যতম দুই বড়ো শহরে

পশ্চিমবঙ্গের অন্যতম দুই বড়ো শহর, দুর্গাপুর (Durgapur) আর আসানসোল (Asansol) যে জেলায় সেই পশ্চিম বর্ধমানে (Paschim Bardhaman) কোনো কনটেনমেন্ট জোন নেই। ফলে গোটা জেলায় কোনো লকডাউন হচ্ছে না। নিঃসন্দেহে পশ্চিম বর্ধমানের কাছে এটা স্বস্তির খবর।

একই ভাবে ঝাড়গ্রাম (Jhargram) আর কোচবিহারেও (Cooch Behar) কোনো কনটেনমেন্ট জোন নেই। উল্লেখ্য, পশ্চিম বর্ধমানে এমনিতেও মোট রোগীর সংখ্যা মাত্র ১৭৩ হলেও এখন সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৩৪। অন্য দিকে কোচবিহারে ৩১২ জন আক্রান্ত হলেও ইতিমধ্যে সুস্থ হয়ে গিয়েছেন ৩০৫ জন। সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৭ জন। আর ঝাড়গ্রামে এখন সক্রিয় রোগী ৬।

প্রশাসনিক কর্তাদের মতে, এই তিন জেলাতে এখন যে অ্যাকটিভ রোগীরা রয়েছেন, তাঁরা বিভিন্ন এলাকার। এক পাড়া বা একটি নির্দিষ্ট লেনে অনেকে সংক্রমিত রয়েছেন এমন ঘটনা নেই। ফলে ওই নির্দিষ্ট বাড়িগুলিকে ঘিরে দেওয়া হলেও অনেকটা এলাকা জুড়ে কনটেনমেন্ট জোন করার কোনো দরকার পড়েনি।

তবে এমন যদি ঘটনা ঘটে, অর্থাৎ একটি নির্দিষ্ট এলাকায় অনেক সংক্রমণের হদিশ মেলে তা হলে সেখানে কনটেনমেন্ট জোন তৈরি করে লকডাউন শুরু করে দেওয়া হবে।

উত্তর ২৪ পরগণায় সব থেকে বেশি কনটেনমেন্ট জোন

গত কয়েক দিনের প্রবণতা জানান দিচ্ছে, কলকাতার পাশাপাশি উত্তর ২৪ পরগণাতেও সংক্রমণ বাড়ছে দ্রুত গতিতে। আবার এই জেলায় একাধিক পুরসভার পাশাপাশি গ্রামাঞ্চলেও ছড়াচ্ছে করোনা। সে কারণে এই জেলাতেই কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা সব থেকে বেশি (৯৫)।

এ ছাড়া দক্ষিণ ২৪ পরগণায় ৫৪ আর হাওড়ায় ৫৬টি কনটেনমেন্ট জোন রয়েছে। কলকাতায় ২৫টি কনটেনমেন্ট জোন ছাড়াও শহর-লাগোয়া রাজপুর-সোনারপুর পুরসভায় চারটে, বিধাননগর পুরনিগমে ছ’টা, দক্ষিণ দমদম পুরসভায় ১০টা, দমদম পুরসভায় তিনটে আর বরাহনগর পুরসভায় ৭টি কনটেনমেন্ট জোন রয়েছে।

শিলিগুড়িতে একাধিক ওয়ার্ডে লকডাউন

কলকাতা বা সংলগ্ন অঞ্চলের মতো না হলেও গত কয়েক দিনে শিলিগুড়িতে করোনার সংক্রমণ উদ্বেগ বাড়িয়েছে স্থানীয় প্রশাসনের। ইতিমধ্যেই গোটা শহরকে লকডাউন করে দেওয়ার দাবি তুলেছিলেন বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্তা। কিন্তু পুরো লকডাউন করলে খেটে খাওয়া মানুষদের ওপর আবার বিপদ নেমে আসতে পারে।

সে কারণে পুরো শহরে লকডাউন না করে বেশ কিছু ওয়ার্ড পুরোপুরি সিল করে দিয়েছে প্রশাসন। সেগুলি হল ওয়ার্ড নম্বর ২, ৪, ৫, ২৮, ৩৭, ৩৮, ৩৯, ৪৩ আর ৪৬। পড়শি জলপাইগুড়ি শহরেও তিনটে ওয়ার্ডে লকডাউন শুরু হয়েছে।

Continue Reading

দঃ ২৪ পরগনা

‘গরিবের প্রাপ্য টাকা হজম করে দিচ্ছেন তৃণমূল নেতৃত্ব’, অভিযোগ শমীক লাহিড়ির

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, জয়নগর: করোনাভাইরাস লকডাউনের মধ্যেও উম্পুন ত্রাণ দুর্নীতি নিয়ে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে বামফ্রন্ট, বিজেপি এবং কংগ্রেসের মতো বিরোধী দলগুলি। বৃহস্পতিবার তেমনই একটি বিক্ষোভ সমাবেশ এবং প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত হল দক্ষিণ ২৪ পরগনার জয়নগরে।

এ দিন দুপুরে জয়নগর-১ বিডিও অফিস বহড়ুতে সিপিএমের উদ্যোগে একগুচ্ছ দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ এবং প্রতিবাদসভা হয়। সভার মূল বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন দলের জেলা সম্পাদক শমীক লাহিড়ি।

দাবি-দাওয়া

ঘূর্ণিঝড় উম্পুনকে জাতীয় বিপর্যয় হিসাবে ঘোষণা, উম্পুনে ক্ষতিগ্রস্ত সমস্ত মানুষকে সরকারি সাহায্য, একশো দিনের কাজ, পরিযায়ী শ্রমিকদের একশো দিনের কাজ এবং স্বচ্ছ্ব পদ্ধতিতে ক্ষতিপূরণের দাবি তোলা হয়ে এ দিনের অনুষ্ঠানে।

সিপিএমের অভিযোগ

শমীক লাহিড়ি বলেন, “প্রশাসনকে কাজে লাগিয়ে গরিব মানুষের প্রাপ্য টাকা হজম করে দিচ্ছেন তৃণমূল নেতৃত্ব । আমরা চাই উম্পুনে ক্ষতিগ্রস্তরা সবাই ক্ষতিপূরণ পাক”।

সিপিএম সদস্য অপূর্ব প্রামানিকের নেতৃত্বে পাঁচ জনের একটি প্রতিনিধি দল জয়নগর-১ ব্লকের যুগ্ম বিডিও বিপ্লব পালের কাছে ডেপুটেশন পেশ করেন। ব্লকের যুগ্ম বিডিও বিপ্লব পাল দাবি গুলি বিবেচনা করার আশ্বাস দিয়েছেন বলে জানান সিপিএম নেতৃত্ব।

দুর্নীতিরোধে মুখ্যমন্ত্রী

প্রসঙ্গত, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একাধিক বার বলেছেন, দলমত নির্বিশেষে ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে ত্রাণ পৌঁছে দিতে হবে। এ নিয়ে কোনো দুর্নীতি বরদাস্ত করা হবে না। ত্রাণ নিয়ে কোনো নেতা দুর্নীতি করলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পর গ্রাম পঞ্চায়েত, পঞ্চায়েত সমিতি স্তরের অসংখ্য তৃণমূল নেতাকে শোকজ করা হয়। এ বিষয়ে দলীয় পর্যায়েও তদন্ত চলছে বলে জানা গিয়েছে।

বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি অবশ্য শাসক দলের এহেন পদক্ষেপে ‘ড্যামেজ কন্ট্রোল’-এর ইঙ্গিত দেখছেন। তাদের বক্তব্য, দুর্নীতি যে হচ্ছেই, সেটা স্বীকার করে নিচ্ছে শাসক দল।

Continue Reading

রাজ্য

কলকাতায় কমলেও এই প্রথম রাজ্যে নতুন করে আক্রান্ত হাজারের ওপর

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এই প্রথম রাজ্যে এক দিনে করোনায় আক্রান্ত হলেন এক হাজারেরও বেশি মানুষ। তবে কলকাতায় আগের দিনের তুলনায় নতুন সংক্রমণ কিছুটা কমেছে। তবে সুস্থতার হারও কিছুটা কমেছে।

রাজ্যের করোনা-তথ্য

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের তথ্য অনুযায়ী বর্তমানে রাজ্যে মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৫,৯১১। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১০৮৮ জন। এই সময়ে ২৭ জনের মৃত্যু হওয়ায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৮৫৪। তবে এক দিনে সুস্থ হয়েছেন ৫৩৫ জন। ফলে এখনও পর্যন্ত মোট ১৬,৮২৬ জন করোনামুক্ত হলেন।

রাজ্যে সুস্থতার হার একটু কমে ৬৪.৯৩ শতাংশ রয়েছে। সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৮,২৩১ জন। তবে মৃত্যুহার আরও কিছুটা কমে এসেছে রাজ্যে। সেটি এখন রয়েছে ৩.২৯ শতাংশ।

কলকাতার সুস্থ ৫০০০, উত্তর ২৪ পরগণায় রেকর্ড সংক্রমণ

কলকাতায় নতুন করে ৩২২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ফলে কলকাতায় এখন রোগীর সঙ্গে বেড়ে ৮,৩৬৮ হয়েছে। তবে শহরে ইতিমধ্যেই পাঁচ হাজার জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। বর্তমানে শহরে করোনামুক্তির সংখ্যা ৫,০০১ জন।

কলকাতায় মৃতের সংখ্যা ৪৫৭। সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২,৯১০ জন।

উত্তর ২৪ পরগণায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৬৪ জন। এই জেলায় নতুন করে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। দক্ষিণ ২৪ পরগণা আর হাওড়ায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন যথাক্রমে ১৬৭ আর ৮৮ জন। অন্য দিকে হুগলিতে আক্রান্তের হয়েছেন ৫৩ জন।

দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলা আশা জাগাচ্ছে

গত ২৪ ঘণ্টায় দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলায় নতুন করোনা-সংক্রমণ অনেকটাই কম। পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর আর বাঁকুড়া ছাড়া কোনো জেলাতেই দশের বেশি আক্রান্ত নেই। নতুন রোগীর খোঁজ মেলেনি ঝাড়গ্রামে।

এ ছাড়া, নতুন আক্রান্তের থেকে সুস্থতার সংখ্যা বেশি হওয়ায় সক্রিয় রোগী কমেছে নদিয়া, বীরভূম আর পুরুলিয়ায়।

উত্তরবঙ্গে কোথাও স্বস্তি, কোথাও উদ্বেগ

উত্তরবঙ্গে এখন মূল চিন্তার কারণ প্রধানত দু’টি অঞ্চল, মালদা জেলা আর শিলিগুড়ি শহর। শিলিগুড়ি শহরের জন্য দার্জিলিং (২০)-এর পাশাপাশি জলপাইগুড়িতেও (৩৪) নতুন আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে।

অন্য দিকে নতুন করে ৪৮ জন আক্রান্ত হওয়ায় মালদায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১০০০ পেরোল। এর মধ্যে জেলায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬৬১ জন। মৃত্যু হয়েছে ছ’ জনের। এর পাশাপাশি দক্ষিণ দিনাজপুরে নতুন করে ৩১ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ মিলেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় স্বস্তি দিয়েছে উত্তরের চার জেলা। এই চার জেলা, অর্থাৎ আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, কালিম্পং আর উত্তর দিনাজপুরে কোনো আক্রান্তের সন্ধান মেলেনি।

নমুনা-পরীক্ষার তথ্য

গ্যত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ১০,৮০৫টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর ফলে এখনও পর্যন্ত মোট ৫ লক্ষ ৮৩ হাজার ৩২৮টি নমুনা পরীক্ষা হল। রাজ্যে প্রতি দশ লক্ষে, নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে ৬,৪৮১ জনের।

Continue Reading
Advertisement
Harsh Vardhan
দেশ28 mins ago

করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় আমরা উদ্বিগ্ন নই: কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী

শিল্প-বাণিজ্য1 hour ago

এইচডিএফসির অংশীদারিত্ব বিক্রি করছে চিনের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক

শিক্ষা ও কেরিয়ার2 hours ago

প্রকাশিত হল আইসিএসই এবং আইএসসি ফলাফল, মিলল না মেধা তালিকা!

দেশ2 hours ago

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা বাতিল করুক ইউজিসি, দাবি রাহুল গান্ধীর

দেশ3 hours ago

কোভিড-১৯ রোগীর নাম কেন প্রকাশ করা হবে? সরকারের কাছে জবাব চাইল হাইকোর্ট

দেশ4 hours ago

পশ্চিম চম্পারণে বাহিনীর সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে হত ৪ মাওবাদী

দেশ6 hours ago

বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টে আবেদন, পরের দিনই এনকাউন্টার!

atm
প্রযুক্তি7 hours ago

এটিএম ব্যবহারের সময় কার্ড ক্লোনিং ডিভাইসগুলি থেকে সতর্ক থাকুন

দেশ8 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৬৫০৬, সুস্থ ১৯১৩৪

কলকাতা2 days ago

কলকাতায় লকডাউনের আওতায় পড়া এলাকাগুলির পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশিত

দেশ3 days ago

দ্রুত গতিতে বাড়ছে সুস্থতা, ভারতে এক সপ্তাহেই করোনামুক্ত লক্ষাধিক

ক্রিকেট2 days ago

১১৬ দিন পর শুরু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, হাঁটু গেড়ে বসে জর্জ ফ্লয়েডকে স্মরণ ক্রিকেটারদের

কেনাকাটা3 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

রাজ্য3 days ago

বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটা থেকে রাজ্যের কনটেনমেন্ট জোনগুলিতে কড়া লকডাউন

দেশ1 day ago

সক্রিয় করোনা রোগীর ৯০ শতাংশই আটটি রাজ্যে!

রাজ্য1 day ago

ঘুমের মধ্যেই চলে গেলেন মহীনের অন্যতম ‘ঘোড়া’ রঞ্জন ঘোষাল

কেনাকাটা

কেনাকাটা20 hours ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা3 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা4 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা5 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

নজরে