খবর অনলাইন ডেস্ক: দলের তারকা প্রার্থীদের ‘নগরীর নটী’ আখ্যা দিয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন বিজেপি নেতা তথাগত রায়। তবে সেখানেই না থেমে তিনি একের পর বিস্ফোরক মন্তব্য করে চলেছেন। বৃহস্পতিবার তিনি নিজেই জানালেন, দলের শীর্ষ নেতৃত্ব তাঁকে দিল্লিতে তলব করেছেন।

গত রবিবার পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা ভোটের ফলাফল ঘোষণা হয়। দেখা যায়, বিজেপির অভিনেতা প্রার্থীরা পরাজিত হয়েছেন। মঙ্গলবার একটি টুইটে তথাগত লেখেন, “পায়েল শ্রাবন্তী পার্নো ইত্যাদি ‘নগরীর নটীরা’ নির্বাচনের টাকা নিয়ে কেলি করে বেড়িয়েছেন আর মদন মিত্রর সঙ্গে নৌকাবিলাসে গিয়ে সেলফি তুলেছেন (এবং হেরে ভূত হয়েছেন) তাঁদেরকে টিকিট দিয়েছিল কে ? কেনই বা দিয়েছিল? দিলীপ-কৈলাশ-শিবপ্রকাশ-অরবিন্দ প্রভুরা একটু আলোকপাত করবেন কি”?

তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েও না থেমে তিনি বলেন, “বিজেপির হয়ে যাঁরা প্রাণপাত করেছেন তাঁদের অপমান। তৃণমূল থেকে বেনোজল এনে টাকা খরচ করা হয়েছে। এতেই কবর খোঁড়া হয়েছে বিজেপির”।

এ দিন তথাগত টুইটারে লিখেছেন, “যত দ্রুত সম্ভব আমাকে দলের শীর্ষনেতৃত্বের তরফে দিল্লি আসতে বলা হয়েছে। সাধারণ তথ্য হিসেবে জানানো হল”।

তার আগেই তিনি লেখেন, “আমি কি করে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে দোষ দেব? ১৩০ কোটি দেশের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে অবহিত করা উচিত রাজ্য নেতৃত্বের। এখন আমি রাজ্য বিজেপির দু’টি খুঁত দেখতে পাচ্ছি। প্রথমটি হল তৃণমূল থেকে আবর্জনা, যাদের এ বার ফিরতে হবে। এবং দ্বিতীয়টি হল বিজেপির পুরনো নেতৃত্ব। পার্টির মধ্যে সংস্কারের লক্ষণ না দেখলে তাঁরাও চলে যাবেন। আর এই কারণগুলির জন্যেই পশ্চিমবঙ্গে দলের সমাপ্তি ঘটবে”।

এর আগেই একাধিক বার বিতর্কিত মন্তব্য এবং টুইট নিয়ে বহুসমালোচিত হয়েছেন তথাগত। তবে সে সবই ছিল ‘বিরোধী’দের নিশানা করে। কিন্তু খোদ দলীয় নেতৃত্ব এবং সদ্য শেষ হওয়া নির্বাচনে দলের প্রার্থীদের নিয়ে এহেন মন্তব্য সেই বিতর্কে অন্য মাত্রা যোগ করেছে। পাশাপাশি দলের রাজ্যে সংগঠনের দায়িত্বে থাকা নেতৃত্বকে খুল্লামখুল্লা নিশানা করায় ঘোর অস্বস্তিতে পড়েছে গেরুয়া শিবির।

আরও পড়তে পারেন: নগরীর নটী: পায়েল, শ্রাবন্তী, তনুশ্রীরা ‘টাকা নিয়ে কেলি’ করেছেন, বিজেপির ‘প্রভু’দের এক হাত নিলেন তথাগত রায়

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন