BJP-TMC

ওয়েবডেস্ক: পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশিয়াড়ির কলাবনিতে তৃণমূল কংগ্রেসের পার্টি অফিস দখলের অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। যদিও স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব স্পষ্ট ভাবেই জানিয়েছেন, গ্রামবাসীরা উন্নয়নের তাগিদে ওই পার্টি অফিসটি তাঁদের হাতে তুলে দিয়েছেন।

গত কয়েক বছর আগেও দেখা যেত বিগত শাসক দল সিপিএমের একের পর এক পার্টি অফিসের রং বদল হতে। সে সময় সিপিএম নেতৃত্ব অভিযোগ করেও সুরাহা পাননি। গত পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর থেকেই রাজ্যে বিজেপির প্রভাব বাড়তে শুরু করতেই উলটপূরাণের নমুনা মিলছে।

এ বিষয়ে কেশিয়াড়ির স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব থানায় অভিযোগ জানিয়েছেন। পুলিশ ঘটনাটির উপর নজর রাখছে বলে জানা গিয়েছে। তবে ওই পার্টি অফিস যে তৃণমূলেরই, সে বিষয়ে কোনো দ্বিমত নেই। কারণ, স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বও স্বীকার করেছেন, ওই পার্টি অফিস শাসক দলেরই। কিন্তু বর্তমানে এলাকার উন্নয়নে গ্রামবাসীরা বিজেপির উপর ভরসা করছেন। যে কারণে তাঁরা স্বেচ্ছায় ওই পার্টি অফিসটি তাঁদের হাতে তুলে দিয়েছেন।

পার্টি অফিসটি বিজেপির দখলে যাওয়ার পর ভোল পাল্টে ফেলা হয়েছে সংলগ্ন এলাকার। গোটা এলাকা মুড়ে ফেলা হয়েছে বিজেপির পতাকা ও ব্যানারে। সেখানে বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের ছবি-সম্বলিত একটি দীর্ঘাকার ব্যানারও টাঙানো হয়েছে।


আরও পড়ুন: শ্যামবাজারে ম্যানহোল থেকে উদ্ধার মৃত শিশুকন্যার দেহ


অবশ্য, তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি, “রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহিষ্ণুতার রাজনীতি করেন বলেই বিজেপি এ কাজ করতে পারছে। নইলে তৃণমূল ইচ্ছা করলে বিজেপির পাঁচটা পার্টি অফিস দখল করে নিতে পারে”।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন