উত্তরবঙ্গের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে কেন্দ্রের ওপরে চাপ বাড়াচ্ছে খোদ বিজেপিই

আলিপুরদুয়ার: চা-বাগানের উন্নয়নের দাবিকে কেন্দ্র করে উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ারে উত্থান হয়েছে বিজেপির। সেই লক্ষ্যে এ বার কেন্দ্রের ওপরেই চাপ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। সেই কারণে ইতিমধ্যে দিল্লি পৌঁছেছেন বিজেপির জেলা সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা-সহ দলের দুই নেতা। মঙ্গলবার আলিপুরদুয়ারের সাংসদ জন বার্লাকে সঙ্গে নিয়ে কেন্দ্রীয় বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করবেন তাঁরা। দেখা করবেন দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গেও। এই দলটির মূল দাবি, একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গড়ে চা বাগানের উন্নতির পরিকল্পনা করুক কেন্দ্রীয় সরকার।

উল্লেখ্য, বছর তিনেক হল আলিপুরদুয়ারে প্রভাব বাড়ছে গেরুয়া শিবিরের। ২০১৬-এর বিধানসভা নির্বাচনে মাদারিহাট কেন্দ্রটি জিতে তাক লাগিয়ে দেয় বিজেপি। চা-বাগানের দাবিদাওয়াকে কেন্দ্র করেই যে এই উত্থান সেটা স্বীকার করে নেন বিজেপি নেতারা। সেই দাবিকে রেখেই এ বার আলিপুরদুয়ারে ভোটের ঘুঁটি সাজায় বিজেপি এবং সুফলও পায়। প্রায় আড়াই লক্ষ ভোটে জিতে আলিপুরদুয়ার থেকে সাংসদ নির্বাচিত হন জন বার্লা। এমনকি এই অঞ্চলের বেশির ভাগ চা-বাগান অঞ্চলেই তৃণমূলকে পেছনে ফেলে দেয় বিজেপি।

আরও পড়ুন মোদীর বিরুদ্ধে বোমা ফাটালেন প্রবীণ বিজেপি নেতা, চিনে চলে যাওয়ার হুঁশিয়ারি

খোদ বিজেপির আলিপুরদুয়ার জেলার শীর্ষ নেতাদের একাংশের কথায়, চা-বলয়ের ভোট না পেলে এ বারে জয় সহজ হত না। এ বারে তাঁরা চা-বলয়ের সেই আস্থা কতটা পূরণ করতে পারবেন, সেটাও দেখতে চান সেখানকার বাসিন্দারা। ওই নেতাদের একাংশ মনে করেন, লোকসভা ভোটের আগে দেওয়া প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে না পারলে মানুষ তাঁদের থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে পারেন। দু’ বছর পরের বিধানসভা নির্বাচনে তার প্রভাবও দেখা যেতে পারে। তাই এখন থেকেই দলের জেলা শীর্ষ নেতাদের তৎপরতা তুঙ্গে।

চা-বাগানের পাশাপাশি জেলার আদিবাসী মানুষদের উন্নতির দাবিও কেন্দ্রের সামনে তুলে ধরা হবে বলে জানিয়েছেন গঙ্গাপ্রসাদ।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.