Kolkata High Court

কলকাতা: “বিজেপির রাজ্য সভাপতি যে ধরনের মন্তব্য করেছেন, তাতে স্পষ্ট মিছিলে কী হতে চলেছে। পাশাপাশি গোয়েন্দা রিপোর্টকেও উপেক্ষা করতে পারি না”। কলকাতা হাইকোর্টে বিজেপির রথযাত্রা মামলায় এই ভাষাতেই সওয়াল করলেন রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত।

তিনি বলেন, গোয়েন্দা রিপোর্টে উঠে এসেছে আশঙ্কাজনক তথ্য। গোয়েন্দারা জানিয়েছেন, ওই মিছিলের অনুমতি দেওয়া হলে অশান্তির সৃষ্টি হতে পারে। যা থেকে বিপর্যস্ত হতে পারে সাধারণ জনজীবন। ফলে সাধারণ মানুষ বিপাকে পড়েন, এমন কোনো অনুমতি রাজ্য প্রশাসন দিতে পারে না। ওই গোয়েন্দা রিপোর্টও আদালতের কাছে জমা দেওয়া হয়।

একই সঙ্গে এজি বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বক্তব্য তুলে ধরেন। উল্লেখ্য, দিলীপবাবু বলেছেন, বিজেপি রা্জ্য সভাপতি দাবি করেছেন, “কোনও কর্মসূচি করা প্রতিটি রাজনৈতিক দলেরই গণতান্ত্রিক অধিকার। গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে সেই অধিকার সব রাজনৈতিক দল পায়। সরকার বলতে পারে না যে অনুমতি দেবে না। তৃণমূল চাইছে যাতে আমরা বাধ্য হই। টেনশন হোক। ওরা যদি চায় সমস্যা হোক, সমস্যা হবে। অনুমতি দিক বা না দিক, রথযাত্রা হবেই।”

আরও পড়ুন: কোচবিহারে রথযাত্রার অনুমতি দেননি পুলিশ সুপার, হাইকোর্টে বলল রাজ্য

ফলে যদি কোনো অনুমতি নেওয়ার তাঁদের প্রয়োজন নেই, তা হলে তাঁরা কেন অনুমতির জন্য আবেদন করতে গেলেন। তাঁর বক্তব্য থেকেই স্পষ্ট ওই মিছিল থেকে কী হতে চলেছে।

এ দিন হাইকোর্ট জানতে চায়, মিছিল কি পিছিয়ে দেওয়া সম্ভব? যদি কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা যদি ঘটে তা হলে কি বিজেপির কোনো নেতা দায় নেবেন?

উত্তরে বিজেপির আইনজীবী বলেন, দায় নিতে হবে পুলিশকে।

তবে বিজেপি অতিরিক্ত হলফনামা দাখিল করলেও রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল সেই হলফনামা বাতিলের পক্ষেই সওয়াল করেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here