ওয়েবডেস্ক: ভাটপাড়ার উপনির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী করেছে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্রকে। মাঝে কিছুটা সময় রাজনৈতিক বিরতিতে থাকার পর মদনবাবু ফের চলে এসেছেন সক্রিয় রাজনীতিতে। আর এক তৃণমূল সাংসদ মুকুল রায় বিজেপিতে যাওয়ার পর মদনবাবুর নামও নিয়ে জল্পনা ছড়ায়। যদিও সেই জল্পনা বাস্তবের মুখ দেখেনি। বৃহস্পতিবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এ দিন লোকসভার পাশাপাশি বিধানসভা উপনির্বাচন নিয়েও তাঁকে প্রশ্ন করেন সাংবাদিকরা।

এক সাংবাদিক তাঁকে সহাস্য প্রশ্ন করেন, মদন মিত্র তো আপনার বন্ধু। ভাটপাড়ার উপনির্বাচনে প্রার্থী হলেন তিনি। কী বলবেন?

উত্তরে দিলীপবাবু বলেন, “বন্ধু কি না জানি না। তবে আমি যখন বিধানসভায় ঢুকি, তখন তিনি বেরিয়ে গিয়েছেন। ফলে তাঁর সঙ্গে দেখা হওয়ার সুযোগ আসেনি। কিন্তু এটুকু বলতে পারি তিনি খুব মজার মানুষ”।

যদিও তিনি মদনবাবুকে মজার মানুষ বললেও সদ্য তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া অর্জুন সিং তীব্র কটাক্ষ করেছেন। তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে, “মদন মিত্র মাতাল। সন্ধের পর কথা বলতে পারেন না”।

এক সাংবাদিক দিলীপবাবুকে পাল্টা প্রশ্ন করেন, ভাটপাড়ায় এ বারে ফলাফল কী হতে পারে?

দিলীপবাবু কালক্ষেপ না করেই জানান, ২০১৬ সালে কামারহাটিতে দাঁড়িয়ে হেরেছিলেন মদনবাবু। ভাটপাডাতেও একই ঘটনা ঘটবে।

যদিও তেমনটা মনে করেন তৃণমূল। মদনবাবুর মতো দলের একজন একনিষ্ঠ ‘সৈনিক’কে প্রার্থী হিসাবে পেয়ে যথেষ্ট উজ্জীবিত স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। অন্য দিকে ভাটপাড়ার উপনির্বাচনে বিজেপি অর্জুন সিংয়ের ছেলে পবনকে প্রার্থী করতে পারে বলে জানা গিয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here