BJP mednipur
প্রতীকী ছবি

কলকাতা: হুগলির মশাটে বিজেপির সভা থেকে ফেরার পথে আক্রান্ত হন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ-সহ অন্যান্য নেতৃত্বের গাড়িতে। রবিবার সন্ধ্যায় বিজেপির সদর কার্যালয়ে সাংবাদিক বৈঠকে জানানো হয়, আগামী সোমবার রাজ্যের জেলায় জেলায় প্রতিবাদে নামবে দল।

এ দিন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু জানান, রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা বলে কিছু নেই। পুলিশ কিছুই করেনি। এ ভাবে পুলিশ তৃণমূলকে বাঁচাতে পারবে না। সিপিএমকেও পুলিশ বাঁচাতে পারেনি। আগামী কাল সারা রাজ্য জুড়ে বিজেপি পথে নামবে। অবরোধ-বিক্ষোভ-ধরনা হবে।

এ দিন সাংবাদিকদের সামনে সায়ন্তন বলেন, তৃণমূল দুষ্কৃতীরা পরিকল্পিত ভাবে দিলীপবাবুকে খুনের জন্য এই হামলা চালিয়েছে।

জানা গিয়েছে, এ দিনের সভা সেরে চারটি গাড়িতে কলকাতা ফিরছিলেন বিজেপি নেতৃত্ব। সেই গাড়িগুলি ডানকুনির কাছে কালীতলা বাজারের কাছে আসার পরই ৫০ জনের একটি দুষ্কৃতী দল হামলা চালানোর চেষ্টা করে। দিলীপবাবুর গাড়িতেও তারা হামলা চালানোর চেষ্টা করে। কিন্তু সেখানে ধস্তাধস্তির পর তিনি কোনো ক্রমে নিরাপত্তা কর্মীদের সহায়তায় নিষ্কৃতী পান। তবে পিছনে থাকে বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়ের গাড়িতে ব্যাপক ভঙচুর চালানো হয়। মাথায় আঘাত লাগে ওই অভিনেতা-নেতার।

এখনও পর্যন্ত যা খবর তাতে জানা গিয়েছে, বিজেপি এই হামলার বিষয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেনি। তবে আগামী সোমবার যে সারা রাজ্য জুড়ে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালিত হবে, সে কথা স্পষ্ট করেই জানান সায়ন্তন।

আরও পড়ুন: ফিকে হয়ে গেল বিজেপি-বিরোধী মহাজোট! কংগ্রেসকে এড়িয়ে আসন সমঝোতায় অখিলেশ-মায়াবতী

এ বিষয়ে অবশ্য তৃণমূল নেতা প্রবীর ঘোষাল সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন, বিজেপি পরিকল্পনা করে এই কাণ্ড ঘটিয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here