Mukul Roy and Mamata banerjee

কলকাতা: বিজেপিকে প্যাঁচে ফেলতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যতই ছোটাছুটি করুন নিজের রাজ্যেই তাঁর দল খেই হারাবে আগামী লোকসভা নির্বাচনে। মন্তব্য তৃণমূল ত্যাগী সাংসদ তথা বর্তমান বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের।

পঞ্চায়েত মামলার চাপে ক্ষীণ হয়ে পড়েছে আগামী ২০১৯ সাধারণ নির্বাচন নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের দেশব্যাপী প্রচার কর্মসূচি। দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ট সূত্রে জানা গিয়েছিল, তিনি এ বারের পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে খুব একটা মাথা ঘামাবেন না। তাঁর লক্ষ্য স্থির থাকবে আগামী লোকসভা নির্বাচনেই। কিন্তু পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে অস্থিরতা এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে তিনি ভিন রাজ্যের বেশ কয়েকটি পূর্বনির্ধারিত সফর বাতিল করতে বাধ্য হয়েছেন। কারণ, সারা রাজ্য জুড়ে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি হিংসা-সন্ত্রাসের অভিযোগ করছে, এমন অবস্থায় খোদ মুখ্যমন্ত্রী যদি নিজের দলীয় স্বার্থে রাজ্যের বাইরে থাকেন, সমালোচনা আরও জোরালো হয়ে ওঠাই স্বাভাবিক।

আরও পড়ুন: ডিভিশন বেঞ্চেও ঝুলে রইল পঞ্চায়েত মামলা, শুনানি সোমবার

তবে মমতা বা তৃণমূল কংগ্রেস মুখে যতই দাবি করুক, আগামী লোকসভা ভোটে বিজেপি-বিরোধী জোট গড়তে তারা মোটেই সফল হবে না বলে মনে করেন মুকুলবাবু। তিনি একটি সর্বভারতীয় ইংরাজি সংবাদ মাধ্যমে মন্তব্য করেছেন, “মনে হয় না তৃণমূল একটা বড়ো জাতীয় স্তরের শক্তি গড়ে তুলতে সক্ষম হবে। কারণ, পরবর্তী লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি বাংলায় ক্ষমতাসীন দলকে ‘দমন’ করবে”।

আরও পড়ুন: পঞ্চায়েত: কমিশনে বিক্ষোভ, কমিশনার রাজভবনে, সুপ্রিম কোর্টে বিজেপি

তিনি বলেন,”বাংলার মানুষ রাজ্যে পরিবর্তনের পথ চেয়ে রয়েছে। বিজেপি সেই পরিবর্তন নিয়ে আসবে”। তবে মুকুলবাবুর এমন দাবিকে আমল দিতে চান না তৃণমূল নেতৃত্ব। পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেছেন, “এ বারের পঞ্চায়েত ভোটে তৃণমূলই জিতবে। কারণ বাংলার মানুষ তৃণমূলের সঙ্গেই আছেন”।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন