অসুস্থতা সত্ত্বেও রবিবার ব্রিগেড সমাবেশে যেতে চান বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অসুস্থতা সত্ত্বেও রবিবার ব্রিগেড সমাবেশে উপস্থিত থাকতে চান প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। দলের কাছে বিগ্রেড সমাবেশে আসার ইচ্ছে প্রকাশ করে বার্তা পাঠিয়েছেন তিনি।

রাজ্য সিপিএম নেতৃত্ব এমনিতেও চায়, কিছুক্ষণের জন্য হলেও সমাবেশে আসুন বুদ্ধদেব। কিন্তু, তাঁর শরীর-স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই এবার আর তাঁকে ব্রিগেড সমাবেশে আসার জন্য অনুরোধ করা হয়নি। সিপিএমের ছাত্র ও যুব সংগঠনের নেতা-কর্মীরা দলের কাছে আবেদন জানিয়েছেন, ব্রিগেডে বুদ্ধদেবের ভার্চুয়াল উপস্থিতির বন্দোবস্ত করা হোক। জানা গিয়েছিল ব্রিগেডে লিখিত বার্তা পাঠাবেন তিনি। কিন্তু শুক্রবার বুদ্ধদেব নিজেই সমাবেশে আসার ইচ্ছে প্রকাশ করায় উজ্জীবিত বাম শিবির।

Loading videos...

তবে বুদ্ধবাবু ব্রিগেডে আসবেন কি না, সেই সিদ্ধান্ত তাঁর চিকিৎসকরাই নিন, এমনই চাইছে দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। কারণ, ধুলোয় অ্যালার্জি রয়েছে তাঁর। আর ব্রিগেড ময়দানে জনসমাবেশের কারণ ব্যাপক ধুলো ওড়ে। তাই চিকিৎসকরাই সিদ্ধান্ত নিন তাঁর সমাবেশে আসা উচিত না অনুচিত।

উল্লেখ্য, ২০০০ সালে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই বামফ্রন্টের ব্রিগেড সমাবেশে প্রধান বক্তা হতেন বুদ্ধদেব। এমনকি ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর ২০১৫ সালে ২৭ ডিসেম্বর কলকাতায় সিপিএমের সাংগঠনিক প্লেনাম উপলক্ষে ব্রিগেড সমাবেশ করেছিল সিপিএম। সেই সমাবেশে প্রধান বক্তা ছিলেন বুদ্ধদেবই।

২০১৯ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি বামফ্রন্টের শেষ ব্রিগেড সমাবেশে অসুস্থ শরীর নিয়েই গিয়েছিলেন বুদ্ধদেব। চিকিৎসকের পরামর্শ মেনেই। কিন্তু মঞ্চে ওঠেননি, করেননি বক্তৃতা। চিকিৎসকের পরামর্শ মেনেই, মঞ্চের পিছনে গাড়িতে বসে বক্তব্য শুনছিলেন তিনি। সর্বক্ষণের সঙ্গী ছিল অক্সিজেন সিলিন্ডার। তবে রবিবার সত্যিই বুদ্ধবাবু ব্রিগেডে আসবেন কি না, সেটা সময়ই বলবে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

করোনা নির্দেশিকার মেয়াদ বেড়ে ৩১ মার্চ, সমস্ত রাজ্যকে সাবধানতা অবলম্বন করার পরামর্শ কেন্দ্রের

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.