যেখানে সেখানে  নোংরা, গাছপালা, টায়ার পোড়ানোর ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করল পরিবেশ দফতর। নোটিফিকেশন জারি করে পরিবেশ দফতর জানিয়ে দিয়েছে রাস্তায় যেখানে সেখানে আবর্জনা পোড়ানো যাবে না। 

শীতের বাতাসে উত্তুরে হাওয়ার দাপট। ঠান্ডা থেকে বাঁচতে কলকাতা সহ বিভিন্ন জেলায় গাছের ডাল পাতা পুড়িয়ে তার সামনে বসে থাকে মানুষ। কিন্তু এর থেকে বাতাসে ছড়াচ্ছে দূষণ। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে রাস্তার ধারে ময়লার স্তুপে আগুন জ্বলতে দেখা যায়। সেটাও দূষণের কারণ ।
যারা মানবে না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবার কথা বলা হয়েছে পরিবেশ দফতরের নোটিফিকেশনে।  
শুক্রবার কলকাতায় দশম এনভায়রনমেন্ট পার্টনারশিপ পোগ্রামে এসে দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের চেয়ারম্যান কল্যাণ রুদ্র এই নির্দেশের কথা জানান।  

মাত্রাতিরিক্ত দূষণের কারণে দিল্লির রাস্তায়  ঘন কুয়াশা নেমে এসেছিল। দৃশ্যমানতা কমে যাওয়ায় ব্যাহত হয়েছিল ট্রেন চলাচল ও বিমান চলাচল। এমনকি মানুষের নিশ্বাস নিতেও সমস্যা হচ্ছিল। আর এই দূষণের কারণ হিসাবে যেখানে সেখানে আবর্জনা পোড়ানোকেই দায়ী করেছিলেন পরিবেশ বিশেষজ্ঞরা। তাই দিল্লি থেকে শিক্ষা নিয়ে আগাম সর্তক হতে চান  রাজ্যের পরিবেশবিদরা। কল্যাণবাবু বলেন, কিছুদিন আগে তিনি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় গিয়ে দেখেন, ক্যাম্পাসের ভিতর আবর্জনা পোড়ানো হচ্ছে। তার ধোঁয়ায় ক্যাম্পাসের বেশ কিছুটা অংশ ঢেকে গেছে। তিনি উপাচার্যকে ফোন করেন ও বিষয়টি জানান। কল্যাণবাবু বলে প্রয়োজনে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে আলাদা করে পরিবেশ সচেতনতা মূলক বিজ্ঞপ্তি জারি করার কথা ভাবছে পর্ষদ, যাতে ক্যাম্পাসগুলি দূষণমুক্ত থাকে। 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here