crack in railway line

নিজস্ব প্রতিনিধি, বারুইপুর: স্থানীয় বাসিন্দাদের তৎপরতায় বড়ো দুর্ঘটনা থেকে বাঁচল ক্যানিং-শিয়ালদহ লোকাল।

ক্যানিং থেকে বিকেল ৩.০৮ মিনিটে ছেড়ে আসা আপ শিয়ালদহ লোকালের বিদ্যাধরপুরে আসার কথা ৩.৪০ মিনিটে। ওই ট্রেন বিদ্যাধরপুরে ঢোকার আগে আপ লাইনে ফাটল দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁরা স্টেশন থেকে ৩০০ মিটার দূরে লালচে গামছা নিয়ে ট্রেনের সামনে ওড়াতে থাকেন। ওই গামছা দেখে মুহূর্তের মধ্যে চালক ট্রেন দাঁড় করিয়ে দেন। বড়ো দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পায় ট্রেনটি। এই ঘটনার ফলে বিকেল-সন্ধের ক্যানিং লাইনে ট্রেন চলাচল ব্যাহত হয়। পরে ফাটল মেরামতি করে ধীর গতিতে ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

sealdah-canning localহঠাৎ ট্রেন দাঁড়িয়ে পড়ার পর খবর ছড়িয়ে পরে বড়ো দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে ট্রেন। আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে ট্রেনের যাত্রীদের মধ্যে। তাঁদের মধ্যে হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। অনেকেই ট্রেন  থেকে নেমে পড়েন। খবর দেওয়া হয় সোনারপুর জিআরপি এবং রেলের আধিকারিকদের। রেলের লোকজন এসে ফাটল মেরামতিতে নেমে পড়েন। আপ লাইনে এক ঘণ্টার মতো ট্রেন চলাচল ব্যাহত হয়।

স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, তাঁরা লাইনের ধার দিয়ে হেঁটে বাড়ি যাচ্ছিলেন। আচমকা আপ লাইনে বড়ো ফাটল দেখতে পান। একই সঙ্গে দেখেন শিয়ালদহগামী আপ ট্রেন বিদ্যাধরপুর স্টেশনে ঢুকছে। তাঁরা চালকের দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য এগিয়ে গিয়ে গামছা নিয়ে ট্রেনের সামনে নাড়াতে থাকেন। চালক তা দেখতে পেয়ে দ্রুততার সঙ্গে ট্রেন থামিয়ে দেন।

স্থানীয় মানুষদের তৎপরতায় বড়ো দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পাওয়াইয় খুশি যাত্রীরা।

ছবি: সুমন সাহা

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন